বাংলাবাজারের কসাইয়ের বাড়ী থেকে চোরাই গরু উদ্ধার ॥ চার চোর আটক বাংলাবাজারের কসাইয়ের বাড়ী থেকে চোরাই গরু উদ্ধার ॥ চার চোর আটক - ajkerparibartan.com
বাংলাবাজারের কসাইয়ের বাড়ী থেকে চোরাই গরু উদ্ধার ॥ চার চোর আটক

3:03 pm , April 8, 2019

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ চোরাই গরু মাংস বিক্রি হয় নগরীর বিভিন্ন কসাইয়ের দোকানে। সংঘবদ্ধ চোরাই চক্র বিভিন্ন স্থান থেকে চুরি করে গরু এনে কসাইয়ের কাছে বিক্রি করে। চোরাই গরু হওয়ায় কসাইরা কম দামে ক্রয় করতে পারে। এতে কসাইদের লাভ বেশি হয়। তাই নগরীর বিভিন্ন বাজারের কসাইদের সাথে রয়েছে গরু চোরাই চক্রের সাথে ঘনিষ্ট যোগাযোগ। এমন অভিযোগের প্রমান মিলেছে এই নগরীতেই। নলছিটি থেকে চুরি হওয়া গরু উদ্ধার করা হয়েছে নগরীর বাংলাবাজারের কশাই লাডলা শেখ এর বাড়ি থেকে। এছাড়া আটক করা হয়েছে গরু চোর চক্রের চার সদস্যকে। রোববার রাতে নলছিটি থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই শেখ মহিউদ্দিন এর নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে চার চোর আটক ও গরু উদ্ধার করা হয়। আটককৃত চার চোরের মধ্যে দু’জনের নাম জানাগেছে। এর মধ্যে একজন নগরীর বাংলাবাজারে লাডলা শেখ এর হৃদয় মিট স্টোর্স এর কশাই ও নগরীর রিফিউজী কলোনীর বাসিন্দা মোতালেব আরিন্দার ছেলে মো. বজলু আরিন্দা ও তার সহযোগী নগরীর পোর্ট রোডের পিকআপ চালক নলছিটি উপজেলার দপদপিয়া ফেরিঘাট এলাকার বাসিন্দা আজিজ মোল্লার ছেলে রাব্বি মোল্লা। তবে গরু চুরি সিন্ডিকেটের অন্যতম হোতা বাংলাবাজার হৃদয় মিট স্টোর এর মালিক লাডলা শেখ রহস্যজনক কারনে পার পেয়ে যাচ্ছেন। গরুর মালিক নলছিটি উপজেলার তিমিরকাঠি এলাকার বাসিন্দা মজিবর মল্লিক জানান, গত বুধবার ৪৬ হাজার টাকা দিয়ে একটি ষাড় ক্রয় করেন তিনি। শনিবার ওই গরুটিকে গোসল করানোর জন্য বাড়ির পাশের খালপাড়ে বেঁধে রাখেন। কিছুক্ষন পরে এসে দেখতে পান গরু উধাও।
তিনি বলেন, এর আগেও গত সপ্তাহের বুধবার তার বাড়ির উঠান থেকে আরো একটি গাভী গরু একই ভাবে চুরি হয়। তাই দ্বিতীয় গরুটি চুরি হওয়ায় বিষয়টি নিয়ে সন্দেহের সৃষ্টি হয়। তাই ঘটনাস্থলে কাছেই একটি বাড়িতে লাগানো সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে গরু চুরির বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে নলছিটি থানায় অভিযোগ করেন কৃষক মজিবর মল্লিক। ‘সিসি ক্যামেরায় তিনি দেখতে পান বজলু ও রাব্বি সহ তাদের কয়েকজন সহযোগী ষাড় জোর করে পিকআপে তুলছে। পরে গরুটিকে বেঁধে পিকআপে করে চুরি করে নিয়ে যায়।
এদিকে অভিযোগ পেয়ে নলছিটি থানার সেকেন্ড অফিসারের নেতৃত্বে অভিযান শুরু করা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে রোববার দিবাগত রাতে নগরীর রিফিউজী (খালেদাবাদ) কলোনীতে বাংলাবাজারের হৃদয় মিট স্টোর্স এর মালিক লাডলা শেখ এর বাড়িতে চোরাই গরুটি খুঁজে পায় পুলিশ। শুধু তাই নয়, চোর চক্রের দুই সদস্য বজলু আরিন্দা ও রাব্বি মল্লিককে গ্রেফতার করেন। পরে তাদের দেয়া স্বীকারক্তি অনুযায়ী আরো দু’জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তবে রহস্যজনক কারনে লাডলা শেখকে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।
যদিও হৃদয় মিট স্টোরের মালিক কশাই লাডলা শেখ দাবী করেছেন, ‘তার দোকানের কর্মচারী বজলু আরিন্দা ও পিকআপ চালক রাব্বি মোল্লার কাছ থেকে ২৫ হাজার টাকায় ওই গরুটি তিনি ক্রয় করেছেন। তারা চুরি করে এনেছে কিনা সে বিষয়টি তিনি জানতেন না। তবে স্থানীয় একাধিক সূত্র জানিয়েছে, লাডলা শেখ মাংস ব্যবসার মুল উৎস হচ্ছে চোরাই গরু। তিনি চোর চক্রের কাছ থেকে গরু কিনে দীর্ঘ দিন ধরেই এমন অবৈধভাবে ব্যবসা করে আসছে। শুধু লাডলা একাই নয়, নগরীর অধিকাংশ মাংসের দোকানেই চোরাই গরু জবাই করে তার মাংস বিক্রি হয়ে থাকে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT