রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে বিএনপি প্রার্থীর অভিযোগ ১৩ বছরের সাজার তথ্য গোপন করে মনোনয়নের বৈধতা পেলেন পংকজ নাথ রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে বিএনপি প্রার্থীর অভিযোগ ১৩ বছরের সাজার তথ্য গোপন করে মনোনয়নের বৈধতা পেলেন পংকজ নাথ - ajkerparibartan.com
রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে বিএনপি প্রার্থীর অভিযোগ ১৩ বছরের সাজার তথ্য গোপন করে মনোনয়নের বৈধতা পেলেন পংকজ নাথ

3:26 pm , December 3, 2018

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ দুর্নীতির মামলায় বিচারিক আদালতের দেয়া সাজার তথ্য গোপন করেই মনোনয়নপত্রের বৈধতা পেলেন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বরিশাল-৪ (হিজলা-মেহেন্দিগঞ্জ) আসনে মহাজোটের প্রার্থী পঙ্কজ নাথ। এ বিষয়ে তার বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তার নিকট অভিযোগ দিলেও বিষয়টি গুরুত্ব পায়নি বলে অভিযোগ প্রতিপক্ষ ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীর। তবে জেলা প্রশাসক বলছেন এ ধরনের কোন অভিযোগ তার হাতে এসে পৌছেনি। অভিযোগ সূত্রে জানাগেছে, অবৈধ সম্পদ অর্জন, মানি লন্ডারিং, জালিয়াতি ও প্রতারণার অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) এর দায়ের করা মামলায় ২০০৭ সালের ২৬ আগস্ট বিচারিক আদালত বরিশাল-৪ আসনের মহাজোট মনোনীত প্রার্থী ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক পংকজ দেবনাথ ও তার স্ত্রীকে পৃথক মেয়াদে সাজা প্রদান করেন। এর মধ্যে পঙ্কজ নাথকে ১০ বছরের সশ্রম ও ৩ বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড সহ ১০ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো এক বছরের করাদন্ড দেয়া হয়। পাশাপাশি তার স্ত্রী মনিকা দেবনাথকে তিন বছর করে মোট ৬ বছরের কারাদন্ড সহ ২ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৬ মাসের কারাদন্ড দেয়া হয়। তবে তারা দু’জন সাজা খাটেননি।
এদিকে খোঁজ নিয়ে জানাগেছে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মহাজোট মনোনিত প্রার্থী হিসেবে বরিশাল-৪ আসন থেকে মনোনয়নপত্র ও হলফনামা রিটার্নিং কর্মকর্তার নিকট দাখিল করেছেন পঙ্কজ নাথ-এমপি। কিন্তু হলফনামায় তিনি তার পূর্বের সাজা কিংবা দুর্নীতির ওই মামলার বর্তমান কোন পর্যায়ে রয়েছে সে বিষয়টি গোপন করে গেছেন। অবশ্য আইনে রয়েছে সাজা খাটার পাঁচ বছর অতিক্রান্ত হওয়ার পর সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন।
তাছাড়া গত ২৭ নভেম্বর হাইকোর্ট এক পর্যবেক্ষণে বলেন, নৈতিক স্খলনের কারণে দুই বছরের বেশি সাজাপ্রাপ্ত কেউ নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না। আপিল বিভাগে বিচারাধীন থাকলেও কেউ নির্বাচন করতে পারবেন না। তবে সাজা স্থগিত হলে নির্বাচনে অংশ নেওয়া যাবে।
অপরদিকে সংবিধানের ৬৬ (২)(ঘ) ধারা অনুযায়ী, যারা ফৌজদারি মামলায় দন্ডপ্রাপ্ত আসামি তারা নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না। কিন্তু নির্বাচনে অংশগ্রহনের ক্ষেত্রে এসব আইনের কোনটিরই তোয়াক্কা করেননি পঙ্কজ নাথ। সাজার তথ্য গোপন রেখেই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
অবশ্য পঙ্কজ নাথ-এমপি অনুসারী একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, দুর্নীতির মামলায় পঙ্কজ নাথ ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে যে দন্ডাদেশ হয়েছে তার বিরুদ্ধে আপিল করা হয়েছে। আদালত ওই দন্ডাদেশ স্থগিত করেছে।
এদিকে বরিশাল-৪ আসনে ঐক্যফ্রন্টের মনোনিত প্রার্থী ও উত্তর জেলা বিএনপি’র সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদের দেয়া অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা বলেন, নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে যথাযথ পদ্ধতিতে সুনির্দিষ্ট প্রমান সহকারে অভিযোগ করতে হবে। কিন্তু মহাজোটের ওই প্রার্থীর বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট কোন প্রমান বা অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তাছাড়া আমাদের কাছে এখন আর কিছু করার নেই। কোন অভিযোগ থাকলে সে বিষয়ে নির্বাচন কমিশনে আপিল করতে হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT