বিএনপি’র মানববন্ধন পন্ড, দলীয় কার্যালয়ে তালা ॥ আহত ৮ বিএনপি’র মানববন্ধন পন্ড, দলীয় কার্যালয়ে তালা ॥ আহত ৮ - ajkerparibartan.com
বিএনপি’র মানববন্ধন পন্ড, দলীয় কার্যালয়ে তালা ॥ আহত ৮

6:12 pm , August 1, 2018

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ সিটির ভোট বাতিলের দাবীতে বিএনপি’র মানববন্ধন পুলিশী বাঁধায় পন্ড হয়েছে। এর প্রতিবাদে সড়কে অবস্থান নেয়া বিএনপি’র মেয়র প্রার্থী এ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ারসহ নেতা-কর্মিদের উপর চড়াও হয় পুলিশ। এ সময় পুলিশের সাথে নেতা-কর্মিদের ধস্তাধস্তি ও বুটের আঘাতে এ্যাড সরোয়ারসহ অন্তত আট কর্মী আহত হয়েছে। এর আগে পুলিশ দলীয় কার্যালয়ে তালা দিয়েছে। পুলিশের সাথে ধস্তাধস্তি ও বুটের আঘাতে এ্যাড সরোয়ার ছাড়াও আহত হয় মহানগর বিএনপি’র উপদেষ্টা নূরুল আলম ফরিদ, সিনিয়র সহ-সভাপতি মনিরুজ্জামান খান ফারুক, সাব্বির, সামাদ, মহিলা কর্মী পাপিয়াসহ ৮ জন। এ্যাড সরোয়ার জানান, তার ঘাড়ে সহ শরীর কয়েক জায়গায় আঘাত পেয়েছেন।

তবে পুলিশের পক্ষ থেকে দাবী করা হয়েছে, তাদের কর্মসূচীতে বাধা নয়, নগরীর ব্যস্ততম সড়ক সদর রোডে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির চেষ্টা করলে বিএনপি নেতা-কর্মীদের সেখান থেকে হটিয়ে দেয়া হয়।

বিএনপি নেতাকর্মীরা জানান, ভোট জালিয়াতির ঘটনায় নগরীর সদর রোডের দলীয় কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন’র আয়োজন করে জেলা ও মহানগর বিএনপি। এতে অংশগ্রহনের জন্য নেতা-কর্মীরা দলীয় কার্যালয়ের সামনে জড়ো হওয়ার পর পুলিশ এসে অবস্থান নেয়। এ সময় সেখান থেকে নেতা-কর্মীদের সরিয়ে দিয়ে পুলিশ দলীয় কার্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে দেয়। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এ সময় পুলিশ ও বিএনপি নেতাকর্মীদের কথাকাটাকাটি এবং হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পরে মজিবর রহমান সরোয়ার দলীয় কার্যালয়ে প্রবেশ করতে চাইলে পুলিশের সাথে ধস্তাধস্তি হয়। পুলিশী বাঁধার মুখে নেতাকর্মীরা নগরীর সদর রোডে গিয়ে অবস্থান নেয় এবং রাস্তার ওপর বসে বিভিন্ন শ্লোগান দিতে থাকে। এসময় পুলিশ সেখান থেকে নেতা-কর্মীদের সরিয়ে দিতে গেলে পুনরায় ধস্তাধস্তির হয়। এ সময় পুলিশ নেতাকর্মীদের মারধর করে। পাশাপাশি নেতা-কর্মীদের অকথ্য ভাষায় গালাগালও করে পুলিশ। মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি মনিরুজ্জামান খান ফারুক জানান, মানববন্ধন কর্মসূচির পূর্বেই নেতা-কর্মীরা দলীয় কার্যালয়ে অবস্থান নিলে পুলিশ দলীয় কার্যালয় থেকে তাদেরকে বের করে দিয়ে রাস্তায় পাঠিয়ে দেয়। মজিবর রহমান সরোয়ার অভিযোগ করেন, ভোট জালিয়াতির প্রতিবাদে ও প্রহসনের নির্বাচন বাতিলের দাবীতে বিএনপি’র দলীয় কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। কিন্তু শান্তিপূর্ণ মানববন্ধন কর্মসূচীতে পুলিশ আমাদের বাঁধা প্রদান করে এবং নেতাকর্মীদের মারধর করেছে। পাশাপাশি নেতা-কর্মীদের অকথ্য ভাষায় গালাগালও করে পুলিশ।

বিএনপি’র নেতারা জানান, মজিবর রহমান সরোয়ার, বিলকিস জাহান শিরিনসহ নেতৃবৃন্দ রাস্তায় বসে পড়লে পুলিশ তাদেরকে এলোপাতারী লাথি ও মারধর শুরু করে দেয়। এ সময় পুলিশ মনিরুজ্জামান ফারুকের শার্টের কলার ধরে টেনে হেচড়ে ও লাঠি দিয়ে পিঠিয়ে পুলিশ বক্সের কাছে নিয়ে তাকে ছেড়ে দেয়। অপরদিকে অশ্বিনী কুমার হলের গেটের কাছে ঘিরে রাখা মজিবর রহমান সরোয়ারসহ বিভিন্ন নেতা কর্মীদের পিছন থেকে চোরা গোপ্তা লাথি দিয়ে তাদেরকে ঘায়েল করতে না পেরে দলীয় কার্যালয়ে যাওয়ার পথে ব্যারিকেড সৃষ্টি করে।

পরবর্তীতে মজিবর রহমান সরোয়ার সহ দলীয় কর্মীরা প্রহসন ও ভোট ডাকাতির নির্বাচন বাতিলের শ্লোগান দিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করে জেলখানা মোড়ে গিয়ে শেষ করে।

এ সময় মজিবর রহমান সরোয়ার বলেন, বর্তমান অগনতান্ত্রিক সরকার মানুষের মৌলিক অধিকারসহ সাধারন মানুষের ভোট দেয়ার অধিকার কেড়ে নিয়েছে। তারা নির্বাচনের পূর্বে পুলিশ দিয়ে আমাদের প্রচার-প্রচারনায় বাধা সহ বিভিন্ন কর্মীদেরকে হয়রানী করে একতরফা ভাবে কেন্দ্র দখল করে প্রশাসনের উপস্থিতিতে ভোট ডাকাতি করেছে। এর প্রতিবাদে মানববন্ধনে পুলিশ হামলা করেছে।

তিনি আগামী জাতীয় সংসদের পূর্বে দেশের গনতন্ত্র উদ্বারের জন্য আন্দোলন-সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়ার সকলের প্রতি আহবান জানান।

কোতয়ালি মডেল থানা পুলিশের সেকেন্ড অফিসার সত্যরঞ্জন খাসকেল জানান, অনুমতি ছাড়া সদর রোডের প্রধান সড়কে অবস্থান নিয়ে কর্মসূচী করার চেষ্টা কালে পুলিশ তাদেরকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। তবে এই ঘটনায় কাউকে আটক করা হয়নি, এমনকি পুলিশের পক্ষ থেকে কর্মসূচীতে কোন বাঁধা প্রদানও করা হয়নি।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT