ভোলা সদর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ধর্ষিত নারীর সংবাদ সম্মেলন ভোলা সদর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ধর্ষিত নারীর সংবাদ সম্মেলন - ajkerparibartan.com
ভোলা সদর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ধর্ষিত নারীর সংবাদ সম্মেলন

3:27 pm , June 14, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ভোলা সদর উপজেলা সমাজসেবা অফিসারের স্ত্রীর মর্যাদা দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে এক নারী। মঙ্গলবার বরিশাল রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সংবাদ সম্মেলনকারী নারী দাবি করেছেন, বিয়ের প্রলোভনে স্বামী-স্ত্রীর পরিচয়ে গত ১০ বছর ধরে বরিশাল নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ভাড়া বাসায় বসবাস করছেন তারা। ইউনিটির শহীদ জননী সাহান আরা বেগম স্মৃতি মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে বনানী বড়াল নামে ওই নারী জানান, বর্তমানে ভোলা জেলা সমাজসেবা অফিসার মো. দেলোয়ার হোসেনের সাথে ২০১০ সালের মাঝামাঝি সময়ে পরিচয় হয়। ওই সময় সে ঝালকাঠি জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ে ছিলেন। তখন ঝালকাঠি জেলা সমাজসেবা দপ্তরের ৬ মাস মেয়াদী কম্পিউার প্রশিক্ষন কোর্সেও ছাত্রী ছিলেন বনানী বড়াল। তিনি জানান, প্রশিক্ষনকালীন সময়ে তাদেও মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। সম্পর্ক চলাকালীন তাকে পরিবার বিয়ে দেয়। এরপরেও দেলোয়ার মোবাইল ফোনের মাধ্যমে সম্পর্ক অব্যাহত রাখে। বিষয়টি স্বামী জানতে পেওে তাকে তালাক দেয়। পরে তাকে দেলোয়ার বিয়ের প্রস্তাব দেয়। প্রস্তাবে রাজি হয়ে পিতার বাড়ি ত্যাগ করে দেলোয়ারের কাছে চলে আসে সে। এ সময় দেলোয়ার ভোলা সদর উপজেলা সমাজসেবা অফিসার পদে কর্মরত ছিল। এখনও ওই পদে কর্মরত রয়েছেন। দেলোয়ারের কাছে আসার পর প্রথমে বরিশাল নগরীর নথুল্লাবাদ এলাকায় স্বামী স্ত্রীর পরিয়ে বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস শুরু করেন। পরে নগরীর সিএন্ডবি রোড মীরা বাড়ির পুল সংলগ্ন এলাকার একটি বাসা ভাড়া নেয়। বর্তমানে সেখানে বাস করছেন।
বনানী জানায়, ভোলা থেকে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় এসে রোববার সকালে চলে যেত। তাছাড়া সরকারী ছুটির দিনও আসত। তাদের ১০ বছর একত্রে সংসার করার বিষয়টি ভাড়া থাকা স্থানের অনেক স্থানীয়রা জানেন জানিয়ে বলেন, সংসার জীবনে বনানী দুবার অন্ত.স্বত্তা হলে দেলোয়ার গর্ভপাত করিয়েছে। গত ফেব্রুয়ারি মাসের ২য় সপ্তাহে সামাজ ও ধর্মীয় অনুযায়ী বৈধভাবে স্ত্রীর অধিকার চায়। এরপর থেকে দেলোয়ার আর তার সাথে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। একাধিকবার ভোলায় গিয়ে ফিরিয়ে আনতে চাইলেও ব্যর্থ হয়।
বর্তমানে বনানী মানবেতর জীবন-যাপন করছেন জানিয়ে বলেন, কোন উপায় না পেয়ে গত ১১ মে বরিশাল কোতয়ালী মডেল থানায় দেলোয়ারের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে মামলা করেছেন।
এছাড়াও বিষয়টি সমাধানের জন্য বরিশাল জেলা লিগ্যাল এইড অফিস, বিভাগীয় সমাজ সেবা অধিদপ্তরের পরিচালক, ভোলা জেলা সমাজসেবা কার্যালয়, সমাজসেবার মহাপরিচালকের কাছে আবেদন করে কোন সুফল পাননি।
ভোলা সদর উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মো. দেলোয়ার হোসেন জানান, বনাননীকে সে ব্যক্তিগতভাবে চিনেন। পরিচয়ের পাশাপাশি একত্রে ছবি থাকতেই পারে। কিন্ত বনানী যা বলে তা সত্য নয়। বনানীর ভাড়া বাসায় তিনি মাঝে মাঝে যেতেন বলে স্বীকার করেছেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT