কুয়াকাটায় নির্বাচনী প্রচারনায় বাঁধাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ২৫ কুয়াকাটায় নির্বাচনী প্রচারনায় বাঁধাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ২৫ - ajkerparibartan.com
কুয়াকাটায় নির্বাচনী প্রচারনায় বাঁধাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ২৫

2:52 pm , December 17, 2020

 

কয়াকাটা প্রতিবেদক ॥ কুয়াকাটায় পৌর নির্বাচনের প্রচার প্রচারনায় বাধা দেয়াকে কেন্দ্র করে স্বতন্ত্র এবং আওয়ামীলীগ প্রার্থীর সমর্থকদের মাঝে সংঘর্ষে শিশুসহ ২৫ জন আহত হয়েছে। জানা যায়, বৃহস্পতিবের সকাল আনুমানিক ১১ টার দিকে পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ড মোল্লাপাড়ায় নির্বাচনী প্রচারে বাঁধা দেওয়া কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মাঝে সংঘর্ষ সৃস্টি হয়। এই সংঘর্ষে এক শিশু সহ মোট ২৫ জন আহত হয়েছে। আহতদের কুয়াকাটা ২০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। আহতদের মধ্যে একজনে শেবাচিম হাসপাতালে ও অন্য জনকে কলাপাড়া হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, জগ প্রতিকের স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থীর কর্মীরা ৪ নং ওয়ার্ডের নির্ধারিত স্থানে বিকালে উঠান বৈঠকের প্রস্তুতি শুরু করে। প্রার্থীর পোস্টার লাগানোর কাজ শেষ হওয়ার এক পর্যায় নৌকা প্রতিক সমর্থকরা সেখানে উপস্থিত হয়। তারা তাদের উঠান বৈঠকের প্রস্তুতি কাজে বাধা প্রদান করে। প্রতক্ষ্য দর্শী একজন বলেন, বাধা দেওয়ার এক পর্যায় উভয় পক্ষের বাগবিতর্ক শুরু হয় ও সংঘর্ষ সৃষ্টি হয়। স্বতন্ত্র প্রার্থী আনোয়ার হোসেন ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন আনতে চেষ্টা করেন। এঘটনায় নির্বাচনী এলাকায় থমথমে পরিবেশ বিরাজ ছিলো। কিন্তু পুলিশের কঠোর অবস্থানের কারনে পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক রয়েছে।।স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী (জগ প্রতীক) আনোয়ার হাওলাদার বলেন, উঠান বৈঠকের প্রস্তুতির জন্য আমার সমর্থকরা ওই এলাকায় প্রস্তুতিমূলক কাজ করতে গেলে স্থানীয় নৌকার কর্মী ও সমর্থকরা আমার কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলা চালায়। এখবর শুনে ঘটনাস্থলে গেলে তারা আমাকেও লাঞ্চিত করে। এছাড়াও তার কর্মীদের বভিন্ন ভাবে হুমকির দেয় বলে তিনি জানান। এব্যাপারে সত্যতা খুজতে গিয়ে মোবাইল ফোনে হুমকি দেয়ার কিছু অডিও ক্লিপ পাওয়া যায়।
এদিকে নৌকা প্রতীকের মেয়র প্রার্থী আঃ বারেক মোল্লা বলেন, নির্বাচনী বিধিতে বেলা দুইটা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত প্রচার প্রচারণার আইন আছে কিন্তু স্বতন্ত্র প্রার্থী আনোয়ার হাওলাদার নির্বাচনী বিধি লঙ্গন করে সকালে শতাধিক কর্মী সমর্থকদের নিয়ে প্রচার প্রচারণায় নেমেছিলো। এসময় তার স্থানীয় সমর্থকদের সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায় স্বতন্ত্র প্রার্থীর উপস্থিতিতে তার নির্দেশে হামলা করা হয়েছে। এক পর্যায়ে সে নিজেও নৌকার সমর্থকদের মারধর করেছে বলে অভিযোগ করেন।
কুয়াকাটা হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক মাহমুদুল হাসান বলেন, সংঘর্ষের যারাই হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসেছে সকলকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। যাদের অবস্থা গুরুতর তাদের কলাপাড়া হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মহিপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ও,সি) মোঃ মনিরুজ্জমান বলেন, সংর্ঘষের সংবাদ পাওয়া মাত্রই পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায় এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হয়। বর্তমানে কুয়াকাটা পৌর এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT