নৌকাই পারাপারের একমাত্র ভরসা নৌকাই পারাপারের একমাত্র ভরসা - ajkerparibartan.com
নৌকাই পারাপারের একমাত্র ভরসা

3:20 pm , February 4, 2019

মোঃ জসিম জনি, লালমোহন ॥ লালমোহন উপজেলার লর্ডহার্ডিঞ্জ ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী এলাকা ফাতেমাবাদের প্রায় ৫ শতাধীক মানুষ প্রতিদিনি ২০০ মিটারের চওড়া বেঁতুয়া খাল ফাঁড়ি দিতে হচ্ছে। আর এ খাল পারাপারের একমাত্র ভরসা হচ্ছে নৌকা। নৌকাতে করে এখানের মানুষরা বিগত ৬০ বছর ধরে খালটি ফাঁড়ি দিতে হচ্ছে। যার কারণে প্রতিনিয়ত চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এখানের জনগণের। প্রতিদিন প্রায় ৬০-৬৫ জন শিক্ষার্থী খালটি ফাঁড়ি দিয়ে ওপারে গিয়ে চরফ্যাশন উপজেলার আসলামপুর ইউনিয়নের আজাহার মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও আসলামপুর দাখিল মাদ্রাসায় পড়াশোনা করছে। অন্যদিকে চরফ্যাশনের আসলামপুর ইউনিয়নের অনেক মানুষ লর্ডহার্ডিঞ্জের ফাতেমাবাদ এলাকায় এসে ব্যবসা করছে। আবার এপার থেকে অনেকেই ওপারে যাচ্ছে। লালমোহন উপজেলা সদর থেকে ফাতেমাবাদ এলাকা অনেক দূরে হওয়ায় এখানের বাসিন্দারা প্রয়োজনীয় কাজ সারতে যাচ্ছে চরফ্যাশনে। শিক্ষার্থী ঝুমা, ঝর্ণা, মেরুনা, মারিয়া ও শাকিল জানায়, আমরা প্রতিদিন এখান দিয়ে নৌকায় করে যেতে হয়। যার কারণে বর্ষাকালে আমাদের অনেক সমস্যা হচ্ছে। বৃষ্টিতে আমাদের বই খাতা ভিজে যায়। মাঝে মাঝে খালের ভিতর নৌকা উল্টে পড়ে আমাদের জামা-কাপড় ভিজে যায়। তাই আমাদের সমস্যা লাগবের জন্য এখানে একটি ব্রিজ নির্মাণের দাবী জানাচ্ছি। মহিউদ্দিন, জসিম উদ্দিন, আক্তার মিয়া ও নিরঞ্জন নামের কয়েকজন এলাকাবাসী বলেন, উপজেলা সদর থেকে এই এলাকাটি অনেক দূরে। তাই প্রয়োজনীয় কাজ আমাদের চরফ্যাশনে গিয়ে করতে হয়। এই খালটির কারণে আমরা বিগত ৬০ বছর ধরে দুর্ভোগ পোহাচ্ছি। তাই সরকারের কাছে আমাদের দাবী দ্রুত যেনো এ খালোর ওপর দিয়ে একটি ব্রিজ নির্মাণ করা হয়। ঘাটের মাঝি আব্দুস সালাম বলেন, প্রায় ৩৯ বছর ধরে এই ঘাটে নৌকা বাইছি। এর আগে বাবা ছিলো এখানের মাঝি। এতো বছর ধরে এখানের মানুষরা অনেক সমস্যা নিয়ে খালটি পাড় হচ্ছে। বিশেষ করে ব্যাপক সমস্যা হচ্ছে শিক্ষার্থীদের। এসকল সমস্যা বিবেচনা করে এখানে একটি ব্রিজ নির্মাণ অত্যান্ত জরুরী। লর্ডহার্ডিঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কাশেম মিয়া জানান, একটি মাত্র ব্রিজের জন্য ফাতেমাবাদের বাসিন্দরা অনেক দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। তাদের সমস্যার কথা বিবেচনা করে আমি ইতোমধ্যে আমাদের এমপি আলহাজ্ব নূরুন্নবী চৌধুরী শাওনকে জানিয়েছি। তিনিও একটি ব্রিজ নির্মাণের জন্য ডিও ল্যাটার দিয়েছেন। আশা করছি খুব শিগগিরই এখানে একটি ব্রিজ নির্মাণের ব্যবস্থা গ্রহণ করবে কর্তৃপক্ষ। উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী এ.এম.এম আলী রেজা রাজু বলেন, এখানে একটি ব্রিজ নিমার্ণের কাজ প্রক্রিয়াধীন রয়েছেন। বছর খানেকের ভিতর তা শুরু করা হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT