১নং ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলরসহ অর্ধডজন প্রার্থী মাঠে ১নং ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলরসহ অর্ধডজন প্রার্থী মাঠে - ajkerparibartan.com
১নং ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলরসহ অর্ধডজন প্রার্থী মাঠে

7:15 pm , May 29, 2018

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ঘোষনা করা হয়েছে বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের তফসিল। আগামী ৩০ জুলাই প্রথম বারের মতো দলীয় প্রতীকে এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। অবশ্য দলীয় প্রতীকে মেয়র নির্বাচন হলেও পূর্বের নিয়মেই হবে কাউন্সিলর নির্বাচন। অর্থাৎ নির্বাচন কমিশনের দেয়া প্রতীক নিয়েই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন সম্ভাব্য প্রার্থীরা। তবে দলীয় প্রভাব না থাকলেও প্রার্থী নির্ধারণ হবে দলীয় সিদ্ধান্তেই। যে কারনে নগরীর ৩০টি ওয়ার্ডে রাজনৈতিক দলগুলো কাউন্সিলর প্রার্থী চুড়ান্ত করতে পারেনি। কিন্তু দলীয় সূত্র বলছে, আসন্ন সিটি নির্বাচনে বিএনপি’র প্রার্থী নির্বাচনের ক্ষেত্রে বেশিরভাগ ওয়ার্ডেই বর্তমান প্রার্থীরা পুনরায় নির্বাচনের সুযোগ পাবে। সরকার দলীয় আওয়ামী লীগের ক্ষেত্রেও ঠিক একই সিদ্ধান্ত আসতে পারে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। তবে দলীয়ভাবে কাউন্সিলর প্রার্থী চূড়ান্ত না হলেও থেমে নেই ৩০ ওয়ার্ডের সম্ভাব্য প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারনা। ভোটারদের গণসংযোগের পাশাপাশি দলের সমর্থন পেতে নীতি-নির্ধারনী মহলে লবিং-তদবির চালিয়ে যাচ্ছেন তারা। সরেজমিনে দেখাগেছে, বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের ৩০টি ওয়ার্ডের মধ্যে বিএনপি অধ্যুষিত ওয়ার্ড হিসেবে পরিচিত ১নং ওয়ার্ড। বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব এ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ার এর বসবাস এই ওয়ার্ডটিতে। এই ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর হলেন সৈয়দ সাইদুল হাসান মামুন। যিনি একই ওয়ার্ড বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক ও বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব মজিবর রহমান সরোয়ার এর শ্যালক। আসন্ন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে সৈয়দ সাইদুল হাসান মামুন পুনরায় ১নং ওয়ার্ড থেকে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিয়েছেন। কাউন্সিলর হিসেবে নিজেকে সফল এবং অসমাপ্ত উন্নয়ন সমাপ্তের আশা নিয়েই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার প্রস্তুতি রয়েছে বলে জানিয়েছেন সৈয়দ সাইদুল হাসান মামুন।

এদিকে ১নং ওয়ার্ডে সৈয়দ সাইদুল হাসান মামুন সহ আওয়ামী লীগ ও বিএনপি’র সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থী রয়েছেন ৪ জন। যারা সবাই ইতিপূর্বে নির্বাচন করেছেন। এরা হলেন- ১নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন বিশ্বাস, ওয়ার্ড বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন শিবু ও আওয়ামী লীগ নেতা আউয়াল বিশ্বাস।

এর মধ্যে আউয়াল মোল্লা বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের ১নং ওয়ার্ডের প্রথম কমিশনার ছিলেন। সাজ্জাদ হোসেন শিবু ২০১৩ সালের সিটি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে পরাজিত হন। অবশ্য ওই নির্বাচনের ফলাফলে তৃতীয় অবস্থানে ছিলেন তিনি। এবারের নির্বাচনের জন্য পুরোপুরিভাবেই প্রস্তুত রয়েছেন জানিয়ে সাজ্জাদ হোসেন শিবু বলেন, এবারের নির্বাচনে দলের কিছু বিষয় রয়েছে। তাই দল থেকে কি সিদ্ধান্ত আসে সে বিষয়টিও বিবেচনা করবেন।

এদিকে আমির হোসেন বিশ্বাস’র প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি নিয়ে দলীয় বাঁধা রয়েছে বলে জানিয়েছেন মহানগর আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল সূত্র। তারা জানিয়েছেন, মহানগর আওয়ামী লীগ নিয়ম করেছে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি-সম্পাদকরা প্রার্থী হতে পারবে না। কাউন্সিলর নির্বাচন করতে হলে তাকে সভাপতি বা সম্পাদকের পদ থেকে সরে যেতে হবে। এজন্য আমির হোসেন বিশ্বাসকেও প্রার্থী হতে হলে সম্পাদকের পদ ছাড়তে হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

ওদিকে শুধুমাত্র আওয়ামী লীগ এবং বিএনপি’র প্রার্থীই নয়, মেয়র পদের পাশাপাশি ৩০ ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ও বাম সংগঠনগুলোর। এর মধ্যে ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ এরই মধ্যে নগরীর অন্তত ২০টি ওয়ার্ডে তাদের কাউন্সিলর প্রার্থী চূড়ান্ত করেছেন। বাকি ১০টি ওয়ার্ডে ঈদের পর পরই প্রার্থী চূড়ান্ত হবে বলে জানিয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর মহানগর কমিটির সেক্রেটারী মো. জাকারিয়া।

অপরদিকে সিপিবি ও বাসদ যৌথ ভাবে ওয়ার্ড পর্যায়ে কাউন্সিলর প্রার্থী দেয়ার পরিকল্পনা করছেন বলে জানিয়েছেন বাসদ বরিশাল জেলা শাখার সদস্য সচিব ডা. মনিষা চক্রবর্তী। সে অনুযায়ী বিসিসি’র ১নং ওয়ার্ডে বাসদ এর সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে শ্রমিক ফ্রন্টের দুলাল মল্লিক এর নাম শোনা গেছে। তাকে প্রার্থীতা করার জন্য দলীয় প্রস্তাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT