বরিশালের জনগন টাকায় উড়ে না, সংবাদ সম্মেলনে যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল বরিশালের জনগন টাকায় উড়ে না, সংবাদ সম্মেলনে যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল - ajkerparibartan.com
বরিশালের জনগন টাকায় উড়ে না, সংবাদ সম্মেলনে যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল

2:46 pm , November 6, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ টাকা দিয়ে ওবায়দুল কাদের উড়তে পারে, বরিশালের জনগন টাকায় উড়ে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও বরিশালের গণ সমাবেশের টিম লিডার হাবিব উন নবী খান সোহেল। রোববার স্থানীয় একটি হোটেলে বরিশাল বিভাগীয় গণ সমাবেশ নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো বলেন, ওবায়দুল কাদেরের এ বক্তব্য বরিশালবাসীর জন্য অপমান। এ ধরণের মন্তব্য করা ঠিক হয়নি। বরিশাল বিভাগীয় গণ সমাবেশের পূর্বে ও পরে বিএনপি এবং অঙ্গ সংগঠনের নেতা কর্মীদের উপর হামলা করা হয়েছে জানিয়ে সোহেল বলেন, সরকার দলীয় নেতাকর্মীদের হামলায় ৫ শতাধিক বিএনপির নেতাকর্মী আহত হয়েছে। হামলার পর নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হয়েছে। তিনি বলেন, বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলায় সরকার দলীয় নেতাকর্মীদের হামলায় অর্ধশতাধিক বিএনপির নেতাকর্মী আহত হয়েছে। বরগুনার আমতলী থেকে গণ সমাবেশে আসার সময় গাড়ি বহরে হামলা চালানো হয়েছে। কয়েকটি গাড়ির চাবি ছিনিয়ে নিয়েছে। সমাবেশ থেকে ফেরার পথে যুবলীগের নেতাকর্মীদের হামলায় বাকেরগঞ্জে ২০/২৫ জন আহত হয়েছে। ভোলার চরফ্যাসনে এক যুবদল নেতাকে কুপিয়ে আহত করা হয়েছে। ভোলার বোরহানউদ্দিন, দৌলতখান ও লালমোহন থেকে রওনা দিলে তাদের বাঁধা দিয়েছে। ভোলা জেলা থেকে লঞ্চে রওনা দেয়া নেতাকর্মীদের লক্ষ্য করে গুলি করা হয়েছে। লঞ্চে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করা হয়েছে। পটুয়াখালীতে বিএনপির কার্যালয় ভাংচুর করেছে। পটুয়াখালীতে কৃষক দলের আহবায়কের গাড়ি ভাংচুর করেছে। কলাপাড়া উপজেলায় বিএনপির অফিস ভাংচুর করেছে। দশমিনা উপজেলা ছাত্রদলের কর্মীকে পুলিশ আটক করে। পরে অবশ্য গভীর রাতে ছেড়ে দেয়া হয়েছে বলে জানান হাবিব উন নবী সোহেল।
তিনি আরো জানান, গলাচিপার চরকাজল-চর বিশ্বাস থেকে সমাবেশে আসার জন্য ভাড়া করা ট্রলার মালিককে হুমকি দিয়ে গণ সমাবেশে আসতে বিরত রাখতে বাধ্য করা হয়েছে। পটুয়াখালী সদর প্রশাসন মাইকিং করে বরিশালের উদ্দেশ্যে কোন নৌযান না যাওয়ার জন্য হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। প্রশাসনের পক্ষ থেকে নৌযান জব্দ করারও হুমকি দেয়া হয়। পটুয়াখালী সদর ও দুমকি উপজেলা বিএনপির ভাড়া করা ট্রলার প্রশাসন আটকে দিয়েছে। সাবেক সংসদ সদস্য শাহজাহান খান বহর নিয়ে রওনা হলে পটুয়াখালীর শিয়ালী ব্রীজের সামনে লাঠি ও রড নিয়ে হামলা করেছে সরকারী দলের লোকেরা। হামলায় শাহজাহান খান আহত হয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গলাচিপা উপজেলার চর বিশ্বাস ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতির নেতৃত্বে একটি মোটর সাইকেল বহর লেবুখালী ব্রীজে এলে তাদের আটকে দেয়া হয়। সমাবেশে যোগ না দেয়ার শর্তে মুক্তি দেয়া হয়েছে। সমাবেশ থেকে ফিরে যাওয়ার পথে ঝালকাঠির নলছিটি বাসষ্ট্যান্ড এলাকায় আওয়ামী সন্ত্রাসীরা আমাদের নেতাকর্মীদের উপর হামলা করে। তারা নেতা কর্মীদের মোবাইল ফোন ও টাকা-পয়সা ছিনিয়ে নিয়েছে। সমাবেশে আসার কারনে এ উপজেলার ৭/৮ জনের দোকান তালা দিয়েছে। বলেছে টাকা দিলে দোকান খুলে দেয়া হবে। স্বেচ্ছাসেবকদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সাধারন সম্পাদক আব্দুল কাদের ভূঁইয়া জুয়েলের গাড়িতে গৌরনদীতে হামলা হয়েছে। সমাবেশে থেকে ফেরার পথে চরফ্যাসনের দুলারহাটে হামলা করা হয়েছে। বরিশালের গৌরনদী ও আগৈলঝাড়া উপজেলার নেতাকর্মীদের উপর হামলা করা হয়েছে। আগৈলঝাড়া ইউনিয়নের বাগদা ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে স্লুইজগেট এলাকায় হামলা করা হয়েছে। গৌরনদী ও আগৈলঝাড়া থেকে যারা সমাবেশে যোগ দিয়েছে, তাদের বাড়ী না ফেরার জন্য হুমকি দিয়েছে। গৌরনদীতে ঢাকা দক্ষিনের বিএনপির মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেনের গাড়ি বহরে হামলা করা হয়েছে। পুলিশ হামলাকারীদের বিরুদ্ধে মামলা না নিয়ে ইশরাকসহ বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা নিয়েছে। গৌরনদীতে প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের দুই নেতাসহ সাবেক নেত্রী সুলতানা আহম্মেদের গাড়িতে হামলা করা হয়েছে। সুলতানা আহমেদ বরিশাল থেকে ফেরার পর ঢাকায় গ্রেপ্তার হয়েছে। বরিশাল মহানগর বিএনপির ৩০ নং ওয়ার্ডের আহবায়কের উপর হামলা করা হয়েছে। বিভিন্ন ওয়ার্ডের নেতাকর্মীদের হুমকি দিয়েছে। বরিশালের বানারীপাড়া ও উজিরপুরে নেতাকর্মীদের উপর হামলা করা হয়েছে। এছাড়াও আরো অনেক ঘটনা ঘটেছে। তা আমাদের কাছে এসে পৌঁছেনি।
বরিশালের গণ সমাবেশের পূর্ব ও পরের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. বিলকিস জাহান শিরীন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুল হক নান্নু, আকন কুদ্দুসুর রহমান, মহানগর বিএনপির আহবায়ক মনিরুজ্জামান ফারুক, সদস্য সচিব মীর জাহিদুল কবীর, উত্তর জেলা বিএনপির আহবায়ক দেওয়ান মো. শহীদুল্লাহ, সাবেক এমপি এম মেজবাহউদ্দিন ফরহাদ, মহানগর বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহায়ক এ্যাড. আলী হায়দার বাবুল, যুগ্ম আহবায়ক আলতাফ মাহমুদ সিকদার, এটিএম শহীদুল্লাহ কবীর, হাবিবুর রহমান টিপু, শাহ আমিনুল ইসলাম আমিন, জাকির হোসেন নান্নু, আনম সাইফুল আহসান আজিম, জেলা যুবদলের সাধারন সম্পাদক এ্যাড. এইচএম তসলিম উদ্দীন, সাংগঠনিক সম্পাদক হাফিজউদ্দিন আহম্মেদ বাবলু  প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন সকল বাধা উপেক্ষা করে বরিশালের গণ সমাবেশ জন সমুদ্রে পরিনত করায় সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, আমাদের এ আন্দোলন জনগনের ক্ষমতা তাদের কাছে ফিরিয়ে দেয়ার। যা বরিশালবাসী জন সমুদ্র প্রমান করে দিয়েছে। তারা প্রতিবাদ করতে জানে। শেরে বাংলার দেশের মানুষ তারা বুঝিয়ে দিয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT