পাথরঘাটা শিকলে বেধে নারীকে নির্যাতনের অভিযোগ পাথরঘাটা শিকলে বেধে নারীকে নির্যাতনের অভিযোগ - ajkerparibartan.com
পাথরঘাটা শিকলে বেধে নারীকে নির্যাতনের অভিযোগ

3:25 pm , September 11, 2022

পাথরঘাটা প্রতিবেদক ॥ পাথরঘাটায় পূর্বশত্রুতার জের ধরে দুলু বেগম (৪২) নামে এক নারীকে শিকলে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। শনিবার দুপুরে উপজেলার কাকচিড়া গ্রামে একটি ঘরে ওই নারীকে শিকলে বেধে নির্যাতন করা হয়। ভুক্তভোগী নারীর অভিযোগ, তার বাড়ির গাছ কেটে ফেলে প্রতিবেশি রাজ্জাকের ছেলে শাহ-জালাল আকন। তিনি বাধাঁ প্রদান করলে তাকে শাহ জালাল তার ভাই ফেরদাউস আকন ও সালমা বেগম নামে এক নারী জোা করে ধরে নিয়ে পায়ে শিকলে বেধেঁ ২ ঘন্টা ধরে শাহ জালালের ঘরে নির্যাতন করে। পরে তার ছেলে-মেয়ে ও স্থানীয়রা উদ্ধার করে পাথরঘাটা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। ওই নারী আরো বলেন, এর আগেও কয়েকবার তাকে নির্যাতন করা হয়েছে। নির্যাতিত ওই নারী এখন পাথরঘাটা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের কমর্রত চিকিৎসক জানান, ওই নারীর পায়ে ও মাথায় জখম রয়েছে। স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলার কাকচিড়া গ্রামের রাজ্জাকের ছেলে ফেরদাউস আকন ও তার ভাই শাহ জালাল আকন ওই পরিবারকে দীর্ঘদিন ধরে নির্যাতন করে আসছেন। তিনি ডিসি অফিসে চাকরি করেন পরিচয় দিয়ে এলাকায় প্রভাব বিস্তার করেছেন। নাম প্রকাশ না করা শর্তে ওই এলাকার একজন জনপ্রতিনিধি বলেন, ফেরদাউস আকন মাদক সেবন করেন ও এর ব্যবসা করেন। নির্যাতনের বিষয় এ প্রতিবেদক মুঠোফোনে ফেরদাউস আকনের বক্তব্য জানতে চাইলে তিনি প্রতিবেদকের সঙ্গে রবিবার পাথরঘাটা উপজেলা প্রেসক্লাবে দেখা করেন। প্রতিবেদকের সামনেই নির্যাতিত নারীর ছেলেকে উদ্দেশ্য করে মুঠোফোনে একজনকে বলেন ‘‘ওকে বিরচা টাকা পয়সা যা লাগে দিতাছি, আমি আইতাছি। আমি ডিসি অফিসে চাকরি করি কথা বোঝনায়। ওরে টানাইয়া পিডা, এরপর ধরে আনব। এ ধরণের একটি অডিও রেকর্ড প্রতিবেদকের হাতে রয়েছে। পরে তিনি নির্যাতনের বিষয় কোন কথা না বলে চলে যান। ভুক্তভোগী ওই নারীর ছেলে মো. জিলানী বলেন, আমার মাকে শিকলে বেধেঁ নির্যাতন করা হয়, খবর শুনে গিয়ে মাকে উদ্ধার করি। এসময় ফেরদাউস আকন ও তার ভাই শাহ জালাল আমাকে এলোপাথারি মারতে থাকেন। পরে মাকে নিয়ে পাথরঘাটা হাসপাতালে আসি। মা এখন চিকিৎসাধীন। আমাদের বাড়ি ছাড়া করবেন, মেরে ফেলবেন বলে হুমকি দেন ফেরদাউস আকন। আমরা এখন আতঙ্কিত। কাকচিড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন পল্টু জানান, গত শনিবারের নির্যাতনের ঘটনা আমি শুনিনি, তবে ওরা শাহ জালাল আকন তার ভাই ফেরদাউস আকন লোক ভালনা। এর আগে কয়েকবার ও নারীকে নির্যাতন করেছেন। আমার সামনেও একবার এ ঘটনা ঘটেছে। ওরা খারাপ প্রকৃতির লোক। এ ব্যাপারে পাথরঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল বাশার বলেন, ঘটনা শোনার পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT