দক্ষিণাঞ্চলে পৌনে ৫ লাখ কোরবানির পরেও উদ্বৃত্ত থাকবে লক্ষাধিক পশু দক্ষিণাঞ্চলে পৌনে ৫ লাখ কোরবানির পরেও উদ্বৃত্ত থাকবে লক্ষাধিক পশু - ajkerparibartan.com
দক্ষিণাঞ্চলে পৌনে ৫ লাখ কোরবানির পরেও উদ্বৃত্ত থাকবে লক্ষাধিক পশু

3:33 pm , July 3, 2022

বিশেষ প্রতিবেদক ॥ গোশত, ডিম ও দুধে উদ্বৃত্ত দক্ষিণাঞ্চলে এবারো স্থানীয় গবাদী পশুর মাধ্যমেই কোরবানির চাহিদা মিটিয়ে লক্ষাধিক পশু উদ্বৃত্ত থাকছে। গত বছরও ঈদ উল আজহায় প্রায় ৩০ হাজার গবাদি পশু উদ্বৃত্ত ছিল বলে বিভাগীয় প্রাণিসম্পদ দপ্তর জানিয়েছে। সরকারী হিসেবে দক্ষিণাঞ্চলের ৬ জেলার ৪২টি উপজেলায় এবার প্রায় ৪ লাখ ৬২ হাজার কোরবানির পশুর চাহিদার বিপরীতে প্রায় ৪ লাখ ৭০ হাজারটি বিভিন্ন ধরনের প্রাণি প্রস্তুত রয়েছে বিভিন্ন খামার পর্যায়ে। এর বাইরে গৃহস্থ পর্যায়ে কোরবানির জন্য আরো লক্ষাধিক গরু,মহিষ, ছাগল ও ভেড়া প্রস্তুত রয়েছে বলে জানিয়েছে প্রাণি সম্পদ দপ্তর।
সুতরাং এবারো দক্ষিণাঞ্চলে বিপুল সংখ্যক কোরবানির পশু উদ্বৃত্ত থাকার মধ্যে দেশের বিভিন্ন এলাকায় ট্রাক ও ট্রলারে করে পশুর চালান ছুটছে গত সপ্তাহ ধরে। এছাড়াও বছর জুড়েই দক্ষিণাঞ্চল থেকে বিপুল সংখ্যক বাছুর কুষ্টিয়া, মেহরপুর সহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জেলাসমুুহে যাচ্ছে মোটাতাজা করণের জন্য। সেসব গরুর একটি অংশ আবার দক্ষিণাঞ্চলের কোরবানির পশুর হাটে ফিরছে বিক্রির জন্য।
তবে এবার এখন পর্যন্ত দক্ষিণাঞ্চলে কোরবানির পশুর দাম গত বছরের চেয়ে ১০Ñ২৫ ভাগ পর্যন্ত বেশী। বাজারে গরু ও খাসির গোসতের দামও গত বছরের এ সময়ের তুলনায় প্রায় ২০ ভাগ বেশী। যদিও এ অঞ্চলে যে ২৬২টি কোরবানির পাশুর হাট বসার কথা, তার একটিও এখনো জমে ওঠেনি। সবাই আশা করছেন মঙ্গলবার থেকে গরু সহ অন্যন্য কোরবানির পশু হাটে আসতে শুরু করবে। জমে উঠবে কোরবানির পশুর হাটগুলো। মূল বেঁচা বিক্রি শুরু হবে বুধবার থেকেই। শণিবার রাত পর্যন্ত দক্ষিণাঞ্চলের প্রায় পৌনে ৩শ পশুর হাটে কোরবানির পশু বিক্রি জমজমাট থাকবে বলে আশা করছে প্রাণি সম্পদ অধিদপ্তরের বরিশাল বিভাগীয় দপ্তর।
ইতোমধ্যে প্রানি সম্পদ অধিদপ্তর দক্ষিণাঞ্চলের ৪২টি উপজেলায় সাড়ে ৭শরও বেশী ‘পশু বেচা কেনা সহ জবাই করার স্বাস্থ্য সনমম্মত উপায়’ নিয়ে সচেতনতামূলক সভাও করেছে। পাশাপাশি প্রায় দেড় হাজার মাংস প্রক্রিয়াজাতকারীদের প্রশিক্ষনও প্রদান করেছে প্রাণি সম্পদ অধিদপ্তর। এছাড়াও ১৩০টির মত মেডিকেল টিম এবার দক্ষিণাঞ্চলের পশুর হাটগুলোতে নিয়োজিত থাকছে।
সরকারী পরিসংখ্যান অনুযায়ী দক্ষিণাঞ্চলে খামার ও গৃহস্থ পর্যায়ে প্রায় পৌনে ৩ লাখ শংকর জাতের গাভী সহ ৩২ লাখ গবাদি পশু রয়েছে। এর বাইরে বিপুল সংখ্যক ছাগল, ভেড়া, মহিষ সহ বিভিন্ন ধরনের প্রাণি রয়েছে খামার ও গৃহস্থ পর্যায়ে।
তবে এবারো অন লাইনে কোরবানির পশু বেচা-কেনার সুযোগ অব্যাহত রয়েছে। কিন্তু এরপরেও প্রায় সব কোরবানি দাতাই হাটে ও মাঠে থেকে কোরবানির পশু কিনতেই আগ্রহী।
যদিও বিগত দুটি বছরই ঈদ উল আজহার পর পরই সারা দেশের সাথে দক্ষিণাঞ্চলেও করোনা সংক্রমন বিস্তৃতি লাভ করে। সে অভিজ্ঞতার আলোকে সর্বোচ্চ সতর্কতার সাথে করোনা সংক্রমন বিষয়টিকে বিবেচনায় নিয়ে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকগন এবং স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে মাস্ক পরিধান সহ পরিপূর্ণ স্বাস্থ্য বিধি অনুসরনের তাগিদ দেয়া হয়েছে।
তবে গত বছর কোরবানির প্রায় ১ মাস আগে ২১ জুন দক্ষিণাঞ্চলের ১৭৩টি ইউপি নির্বাচনী প্রচার প্রচারনা সহ নির্বাচন অনুষ্ঠানের রেশ ধরে করোনা সংক্রমন চুড়ায় উঠেছিল। এবার সে পরিস্থিতি না থাকার সাথে গত এক বছরে আরো বিপুল সংখ্যক মানুষ দুই ডোজ সহ করোনা ভেকসিনের বুষ্টার ডোজও গ্রহন করেছে। তার পরেও সার্বিক বিষয় বিবেচনায় নিয়েই আসন্ন ঈদ উল আজহার পশুরহাট স্থাপন সহ স্বাস্থ্য সম্মত ব্যবস্থাপনায় মনযোগী হবার তাগিদ দিয়েছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞগন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT