বিজয়ের ৫০ বছর পূর্তি আজ বিজয়ের ৫০ বছর পূর্তি আজ - ajkerparibartan.com
বিজয়ের ৫০ বছর পূর্তি আজ

3:09 pm , December 15, 2021

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ আজ ১৬ ডিসেম্বর। ১৯৭১ সালের এই দিনে ঢাকার রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমানে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) নতমস্তকে আত্মসমপর্ণ করেছিল পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী। আজ বাঙালি জাতির গৌরবের দিন। বিশ্ব মানচিত্রে লাল সবুজের পতাকার স্থান পাওয়ার দিন। যেসব বীর সন্তানের প্রাণের বিনিময়ে এই পতাকা ও মানচিত্র এসেছে, তাঁদের শ্রদ্ধা জানানোর মাধ্যমেই এই দিবসের মহিমা প্রকাশ পাবে আজ। এবার বিজয়ের ৫০ তম বার্ষিকী। এবছর বছর স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী। সব মিলিয়ে এবারের বিজয়ের উদ্যাপনে ভিন্নমাত্রা যোগ হয়েছে। তবে করোনার ওমিক্রম সংক্রমণ পরিস্থিতির কারণে এবার মহান বিজয় দিবস পালনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশনা রয়েছে। বিজয় দিবস উপলক্ষে গতকাল বুধবার থেকেই সারা দেশে সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও বেসরকারি ভবনে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক, সড়কদ্বীপ ও মোড় আলোকসজ্জিত করা হয়েছে। আজ সকালে জাতীয় পতাকা শোভা পাবে আঙিনায়। গতকাল থেকেই ঢাকার অলিগলিতে মাইকে বাজতে শোনা যায় বঙ্গবন্ধুর রেকর্ড করা ভাষণ ও মুক্তির গান। আজ ১৬ ডিসেম্বর প্রত্যুষে ৫০ বার তোপধ্বনির মাধ্যমে দিবসটির সূচনা হবে। দিসবটি উপলক্ষে প্রশাসন,রাজনৈতিক দল ও প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহন করা হয়েছে।
বরিশাল জেলা প্রশাসন ঃ যথাযোগ্য মর্যাদার সাথে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী, মুজিববর্ষ ও মহান বিজয় দিবস উদযাপনের লক্ষ্যে বরিশাল জেলা প্রশাসন নানা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। ১৬ ডিসেম্বর সূর্যোদয়ের সাথে সাথে বরিশাল জেলা পুলিশ লাইন্স মাঠে পঞ্চাশ বার তোপধ্বনির মধ্যদিয়ে দিবসের কার্যক্রম শুরু হবে। সূর্যোদয়ের সাথে সাথে সরকারি, আধাসরকারি, স্বায়ত্বশাসিত ও ব্যক্তি মালিকানাধীন ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জেলা প্রশাসক কার্যালয় সংলগ্ন শহিদ মুক্তিযোদ্ধা স্মৃতিফলকে পুষ্পস্তবক অর্পণ, সকাল ৭টায় বধ্যভুমি অভিমুখে পদযাত্রা ও পুষ্পস্তবক অর্পণ, সকাল ৭টা ১৫ মিনিটে শহিদ এডিসি কাজী আজিজুল ইসলাম এর কবর জিয়ারত ও দোয়া করা হবে। সকাল ৯টায় বঙ্গবন্ধু উদ্যানে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন, কুচকাওয়াজ ও শরীরচর্চা প্রদর্শনী হবে।
সকাল ১০ টায় বরিশাল নগরের লঞ্চঘাট, ত্রিশ গোডাউন, বঙ্গবন্ধু উদ্যান এবং অভিরুচি সিনেমা হলে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হবে। একই সময় আব্দুর রব সেরনিয়াবাত স্টেডিয়ামে টি-২০ প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচ, বেলা ১২টায় লেডিস ক্লাবে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মাননা, স্মৃতিচারণ ও আলোচনা সভা ,হাসপাতাল, জেলখানা, এতিমখানা, সরকারি শিশু পরিবার ও দু:স্থ মহিলাদের আশ্রয়কেন্দ্রসহ অনুরূপ প্রতিষ্ঠানে উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হবে।
বিজয় দিবসের আয়োজনের মধ্যে আরও রয়েছে ১৬ ডিসেম্বর বিকাল আড়াইটায় বরিশাল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে নারীদের ক্রীড়া অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভা। বিকেল ৩টায় বঙ্গবন্ধু উদ্যানে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। বিকেল সাড়ে ৩টায় বঙ্গবন্ধু উদ্যানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভার্চুয়ালি শপথ পাঠ করাবেন। ১৬ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন থাকবে।
জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগ ঃ ১৫ ডিসেম্বও রাত ১২ টা ১ মিনিটে বদ্ধ ভূমিতে শহীদদের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন। বিকেল ৩ টায় বঙ্গবন্ধু উদ্যানে প্রধানমন্ত্রীর শপথ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন।
জেলা ও মহানগর বিএনপি ঃ সকালে স্বাধীনতা যুদ্ধে শহীদদের স্মৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন, সকাল সাড়ে ১০ টায় দলীয় কার্যালয় থেকে বিজয় র‌্যালী।
বরিশাল বিশ^ বিদ্যালয় ঃ সকাল ৯ টায় জাতীয় ও বিশ^ বিদ্যালয়ের পতাকা উত্তোলন ও গার্ড অফ অনার গ্রহন,সাড়ে ৯ টায় বিজয় র‌্যালী,১০ টায় শ্রদ্ধা নিবেদন,সাড়ে ১০ টায় আলোচনা সভা। বেলা সাড়ে ১১ টায় ক্রীড়া প্রতিযোগীতার পুরস্কার বিতরন এবং বেলা ১২ টায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।
এদিকে, অবিস্মরণীয় গৌরবময় দিনটিতে জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় ‘মহাবিজয়ের মহানায়ক’ প্রতিপাদ্যে দুই দিনব্যাপী বিশেষ অনুষ্ঠানমালা শুরু হবে। মুজিববর্ষ উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি এ আয়োজন করেছে। অনুষ্ঠানমালার ১ম দিন আজ অনুষ্ঠান শুরু হবে বিকেল সাড়ে ৪টায় এবং অনুষ্ঠানের শুরুতেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরিচালনায় থাকবে সুবর্ণজয়ন্তী ও মুজিববর্ষের শপথ। সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ার অঙ্গীকার নিয়ে জাতীয় পতাকা হাতে দেশের সর্বস্তরের মানুষ এ শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন। শপথগ্রহণ শেষে আলোচনা পর্বে প্রধান অতিথি থাকবেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। সম্মানীয় অতিথির বক্তব্য রাখবেন ভারতের রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দ। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখবেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হক এবং স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। স্বাগত বক্তব্য রাখবেন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী। এ অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ রেহানা সম্মানীয় অতিথিকে “মুজিব চিরন্তন” শ্রদ্ধা স্মারক প্রদান করবেন হবে বলে জানিয়েছেন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী। জাতীয় পর্যায়ে বিজয় দিবসের কর্মসূচির মধ্যে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করবেন। এরপর মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীর নেতৃত্বে উপস্থিত বীরশ্রেষ্ঠ পরিবার, যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা ও বীর মুক্তিযোদ্ধারা পুষ্পস্তবক অর্পণ করবেন। বাংলাদেশে অবস্থানরত বিদেশি কূটনীতিকবৃন্দ, বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনসহ সর্বস্তরের জনগণ পুষ্পস্তবক অর্পণ করে মহান মুক্তিযুদ্ধে শহিদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাবেন। বিদেশি কূটনীতিকবৃন্দ, মুক্তিযুদ্ধে মিত্রবাহিনীর সদস্য হিসেবে অংশগ্রহণকারী আমন্ত্রিত সদস্যগণ এবং বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনসহ সর্বস্তরের জনগণ পুষ্পস্তবক অর্পণ করে মহান মুক্তিযুদ্ধে শহিদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাবেন।এছাড়া, সকাল সাড়ে ১০টায় তেজগাঁও পুরাতন বিমানবন্দরস্থ জাতীয় প্যারেড স্কয়ারে সম্মিলিত বাহিনীর বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজ এবং বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রমভিত্তিক যান্ত্রিক বহর প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। রাষ্ট্রপতি এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও সালাম গ্রহণ করবেন। প্রধানমন্ত্রীও এ কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন। দিনটি সরকারি ছুটির দিন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT