বাকেরগঞ্জে ইউপির চেয়ারম্যান পদে উপ- নির্বাচনে বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর হামলা-মামলার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন বাকেরগঞ্জে ইউপির চেয়ারম্যান পদে উপ- নির্বাচনে বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর হামলা-মামলার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন - ajkerparibartan.com
বাকেরগঞ্জে ইউপির চেয়ারম্যান পদে উপ- নির্বাচনে বিএনপি নেতাকর্মীদের উপর হামলা-মামলার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

2:42 pm , October 18, 2020

 

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বাকেরগঞ্জ উপজেলার কলসকাঠী ইউনিয়ন পরিষদের উপ নির্বাচনে বিএনপি’র মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী’র নেতা কর্মীদের উপর হামলা ও নির্বাচনী কার্যালয় ভাংচুরের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। গতকাল রোববার দুপুরে নগরীর সদর রোডে বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে ওই সংবাদ সম্মেলন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও বাকেরগঞ্জ উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি আবুল হোসেন খান বলেন, গত শনিবার বিকেল ৫টার দিকে বাকেরগঞ্জ উপজেলার কলসকাঠী ইউনিয়ন পরিষদের উপ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর সহযোগী বহিরাগত যুবলীগ, ছাত্র লীগ ও স্থানীয় কয়েকজন আওয়ামী লীগ নেতারা মিলে বিএনপি’র কার্যালয় ভাংচুর করে। এ সময় ৮ টি মটর সাইকেল ও বিএনপি প্রার্থী শওকত হোসেন হাওলাদার এর ছেলে কামাল, ও ভাইয়ের ছেলে মোঃ রাজাকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করা হয়। তাদেরকে উদ্ধার করে বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়াও সন্ধ্যা ৬টার দিকে বাকেরগঞ্জের পৌর মেয়র লোকমান হোসেন ডাকুয়া, আওয়ামীলীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ফয়সাল ওয়াহিদ মুন্না’র নেতৃত্বে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় তান্ডব চালিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের দোকান পাট ভাংচুর ও মারধর করে।
তিনি বলেণ, জাতীয় নির্বাচনে সাধারন মানুষ ভোট দিতে পারেনি। এরপর মেয়র নির্বাচন, চেয়ারম্যান, মেম্বার নির্বাচনেও সরকার সাধারন মানুষের ভোটের অধিকার কেড়ে নিচ্ছে। চার মাসের জন্য আয়োজিত নির্বাচনেও সরকার সাধারন মানুষের ভোট দিতে দিচ্ছেনা।
তিনি আরো বলেণ, পরিকল্পিত ভাবে সরকারের মনোনীত প্রার্থী ও দলীয় ক্যাডার বাহিনী বিএনপিকে পরাজিত করতে নিজেরা নিজেদের অফিস ভাংচুর করে তার দায় চাপাচ্ছে বিএনপি’র প্রার্থী ও সমর্থকদের উপর। উল্টো তারা আমাদের প্রার্থীকে হামলা মামলা দিয়ে হয়রানী করছে। ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের দলীয় নেতাকর্মীরা তিন চারশ মটরসাইকেল নিয়ে মহড়া দিচ্ছে। অথচ নির্বাচন কমিশন ও পুলিশ কোন ব্যবস্থা নিচ্ছেনা। বিএনপি’র কার্যালয়ে ভাংচুর ও হামলার ঘটনায় থানায় মামলা ও নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ দেওয়া হবে বলে তিনি জানান। এসময় তিনি সরকারের প্রতি একটি সুষ্ঠ ও শান্তিপূর্ন নির্বাচনের দাবি জানান। সংবাদ সম্মেলনে জেলা বিএনপি’র সভাপতি এবায়দুল হক চাঁন বলেন, আগামী ২০ অক্টোবর ভোটে যাতে নেতাকর্মীরা প্রচার প্রচারনা করতে না পারে ও ভোট কেন্দ্রে যেতে না পারে সে লক্ষে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা মামলা দিয়ে হয়রানি করতে চাচ্ছে। যত বাঁধাই আসুক না কেন আমরা শেষ পর্যন্ত নির্বাচনের মাঠে থাকবো। সাধারন মানুষের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিতে শেষ রক্তটুকু দিয়ে হলেও আমরা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করবো। সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা বিএনপি’র সাধারন সম্পাদক এ্যাডভোকেট আবুল কালাম শাহীন, উপজেলা বিএনপি’র সাধারন সম্পাদক নাছির হাওলাদার, পৌর বিএনপি সাধারন মোফাজ্জেল হোসেন, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গির আলম, কাজী শাহ আলম প্রমুখ।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  




মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT