বাকেরগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলায় সাংবাদিক পলাশ হাওলাদার ও তার পরিবার গুরুতর আহত বাকেরগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলায় সাংবাদিক পলাশ হাওলাদার ও তার পরিবার গুরুতর আহত - ajkerparibartan.com
বাকেরগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলায় সাংবাদিক পলাশ হাওলাদার ও তার পরিবার গুরুতর আহত

2:20 pm , April 15, 2020

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে বাকেরগঞ্জের সাংবাদিক ও তার পরিবারের দুই সদস্যর ওপর হামলা চালিয়েছে প্রতিবেশী সন্ত্রাসীরা। গুরুতর আহত দৈনিক আজকের পরিবর্তনের বাকেরগঞ্জ প্রতিনিধি সাংবাদিক পলাশ হাওলাদার সহ আহতদের বাকেরগঞ্জ থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। হামলায় আরো আহতরা হলেন, পলাশ হাওলাদারের ভাই তপন হাওলাদার (৪৪) এবং ভাবি রাহিমা বেগম (৩২)। আহতরা বর্তমানে গুরতর অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ঘটনার পর বাকেরগঞ্জথানা পুলিশ পৌরসভার ভরপাশা গ্রাম ৮ নং ওয়ার্ডে হাওলাদার বাড়ির ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে এবং মামলা দায়ের করা হলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহনের আশ্বাস দিয়েছেন। আহত সাংবাদিক পলাশ হাওলাদার জানান, দীর্ঘদিন থেকে তার প্রতিবেশি রুহুল আমিন খলিফা (৫০) ও তার ৩ ছেলে মিলে তাদের (পলাশ হাওলাদার) সম্পত্তি দখলের পায়তারা করে আসছে। স্থানীয় ছিচকে সন্ত্রাসী ও মাদকসেবি ছেলেদের নিয়ে বিভিন্ন মানুষের জমি দখলের একাধিক অভিযোগ রয়েছে রুহুল আমিন খলিফার বিরুদ্ধে। এমনকি তাদের বিরুদ্ধে গ্রামের বাইতুল আকসা মসজিদের জমি দখলের চেষ্টার অভিযোগও রয়েছে। তাদের এমন কর্মকান্ডে অতিষ্ট হয়ে ওই মসজিদ কমিটির সদস্যরা সহ গ্রামের প্রায় অর্ধশত বাসিন্দার গনস্বাক্ষরকৃত লিখিত অভিযোগ পত্র পৌর মেয়র বরাবর দেয়া হয়েছিল বলে জানান পলাশ হাওলাদার। তারা বিভিন্ন মানুষের জমি নিজেদের দাবি করে দখলের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে এখন পর্যন্ত। গাছ রোপন সহ সীমানা প্রাচীর দিয়ে নানা কৌশলে তারা এই দখল সন্ত্রাস করে আসছে। তাদের এমন কর্মকান্ডে যারা বাধা দিয়েছে তাদের ওপরেই হামলা চালিয়ে আহত করা সহ খুন করার চেষ্টা করেছে এই পিতা-পুত্ররা। রুহুল আমিন খলিফার নামে এমন কর্মকান্ডে ২০১৫ সালে বাকেরগঞ্জথানায় মামলাও রয়েছে। যার নম্বর এফ আই আর নং-১৫। এই মামলায় জি আর নং ৪৩ এর-১৪৩/৩২৩/৩২৪/৩০৭/৩৫৪/৩৭৯/৫০৬/১১৪ ধারায় অভিযুক্ত আসামী। এই দখলদাররা অনেকদিন আগ থেকেই পলাশ হাওলাদার এর জমি দখলের চেষ্টা চালিয়ে আসছেন বলে জানান। বুধবার সকাল ১০ টায় পলাশ হাওলাদার তার নিজ জমিতে একটি গাছ রোপন করতে গেলে রুহুল আমিন খলিফা ও তার ছেলেরা বাধা দেয়। এ নিয়ে বাকবিতন্ডা হয় ওই সময়। দুপরে সাংবাদিক পলাশ তার পেশাগত কাজ শেষে বাকেরগঞ্জথেকে বাড়ির উদ্যেশ্যে মোটর সাইকেলে আসার পথে পূর্ব থেকে হামলার উদ্দেশ্যে অবস্থান নেয়া রুহুল আমিন খলিফা, ছেলে নাজমুল, নাইম ও সায়েম শাবল, লাঠি, দা নিয়ে ধাওয়া করে। পলাশ দ্রুত তার বসতঘরের নিকটে পৌছে গেলে হামলাকারীরা পেছন থেকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার মাথায় শাবল দিয়ে আধাত করে বলে জানান আহত সাংবাদিক। এর পর ঘরে ঢুকে তার ভাই তপন হাওলাদার ও ভাবি রাহিমা বেগমকে মারধর করে। এসময় তারা রাহিমা বেগমকে শ্লীলতাহানি করার চেষ্টা করে বলেও অভিযোগ করেন আহত পলাশ হাওলাদার। এর পর স্থানীয়রা এসে তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়। খবর বাকেরগঞ্জথানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। বাকেরগঞ্জথানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালাম জানিয়েছেন, তিনি ঘটনাটি শুনেছেন। আহতরা মামলা দায়ের করলে ব্যাবস্থা নেয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। আহত সাংবাদিক পলাশ হাওলাদার জানিয়েছেন, এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT