বরিশাল নৌ বন্দরে উত্তেজনা শেষ হলো সমঝোতায় বরিশাল নৌ বন্দরে উত্তেজনা শেষ হলো সমঝোতায় - ajkerparibartan.com
বরিশাল নৌ বন্দরে উত্তেজনা শেষ হলো সমঝোতায়

4:32 pm , July 1, 2024

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বরিশালে একতলা লঞ্চঘাট ও বালুরঘাটের ইজারা নিয়ে দুই পক্ষের মহড়া সমঝোতায় শেষ হয়েছে। মৎস্য আড়তাদার এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি খান হাবিব ও নৌ বন্দর কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাকের নেতৃত্বে এ আতংক সমঝোতায় রূপ নিয়েছে বলে দাবি করেছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। দীর্ঘদিন ধরে ইজারাদার আবুয়াল হোসেন অরুন ঘাট পরিচালনা করে আসছেন। গতকাল সোমবার ঘাট ইজারা পায় মেসার্স হাসিব এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী হাসিবুল ইসলাম। ইজারা পেয়ে ঘাটে যাওয়ার পরপরই দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। আগের ইজারাদারের লোকজনও সেখানে প্রতিরোধ গড়তে প্রস্তুত হন। এ নিয়ে উত্তেজনা দেখা দিলে সেখানকার সাধারণ মানুষের মাঝে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। ঘাটের ভিতরে প্রবেশ করতে না পেরে হাসিবের দলবল ডাক-চিৎকার শুরু করে। এমনকি অকথ্য ভাষায় গালাগাল করতে থাকে। এসময় অপর পক্ষ লাঠিসোটা নিয়ে ঘাট এলাকায় অবস্থান নেয়। এ নিয়ে উত্তেজনা বাড়তে থাকলে নৌ বন্দর কর্মকর্তা এবং স্থানীয় কাউন্সিলরসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিরা হস্তক্ষেপ করেন। এরপর উভয় পক্ষকে নিয়ে নৌ বন্দর কর্মকর্তার কক্ষে বৈঠক ডাকা হয়। সেই বৈঠকে উভয় পক্ষের লোকজন ছিল। সেখানে দীর্ঘ আলোচনা শেষে হাসিব দাবি করেন ঘাট ইজারা নিতে তার আর্থিক খরচ হয়েছে। ওই বৈঠকে হাসিবের দাবিকৃত টাকা দিয়ে দেয়া হলে সমঝোতায় আসবেন বলে তিনি জানান। এমনকি হাসিব যে ইজারা নেয়ার বিষয়টি দাবি করেছিলেন তা লিখিতভাবে বর্তমান ইজারাদারদের কাছে তুলে দেওয়ার ওয়াদা করেন। আড়তদার এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি খান হাবিব বলেন, ঘাট ইজারা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। এ সময় ঘাট এলাকায় অবস্থানরত সাধারন মানুষের মাঝে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। পরবর্তীতে উভয় পক্ষকে নিবৃত্ত করে বৈঠকে ডাকা হয়। এতে সর্বাত্মক সহযোগিতা করেন নৌ বন্দর কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক। উভয় পক্ষকে এক জায়গায় বসিয়ে একটি সিদ্ধান্তে আসা হয়। সেই সিদ্ধান্ত উভয় পক্ষ মেনে নিলে পরিস্থিত শান্ত হয়। এখন থেকে ঘাট পরিচালনা করবে আবুয়াল হোসেন অরুন। এতে সম্মত হয়েছেন হাসিবুল ইসলাম হাসিবও। ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে নৌ বন্দর কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক জানিয়েছেন, ইজারা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। যা বাহিরের মানুষের মাঝে আতংক ছড়িয়ে পড়ে। আতংক দূর করা এবং সুষ্ঠু সমাধানের লক্ষ্যে উভয় পক্ষকে নিয়ে দীর্ঘ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই বৈঠকে উভয় পক্ষ থেকে যে দাবি করা হয় তা সাথে সাথে বাস্তবায়ন করে পুর্বের ইজারাদারের কাছে ঘাট বুঝিয়ে দেয়া হয়। এখন এ নিয়ে কোন সমস্যা নেই বলে দাবি করেন তিনি। এ ব্যাপারে মেসার্স হাসিব এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী হাসিবুল ইসলাম বলেন, একটু সমস্যা সৃষ্টি হয়েছিল। পরবর্তীতে নৌ বন্দর কর্মকর্তা ও স্থানীয় কাউন্সিলরসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের হস্তক্ষেপে সমাধান হয়েছে। আমার এ বিষয়ে কোন অভিযোগ নেই। এ ব্যাপারে কোতয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আরিচুল হক বলেন, নৌ বন্দরে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছিলো পরবর্তীতে সমঝোতার মাধ্যমে তা সমাধান হয়।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT