আ’লীগ নেতাকে কুপিয়েছে পরাজিত প্রার্থীর সমর্থক বিএনপি নেতাকর্মীরা আ’লীগ নেতাকে কুপিয়েছে পরাজিত প্রার্থীর সমর্থক বিএনপি নেতাকর্মীরা - ajkerparibartan.com
আ’লীগ নেতাকে কুপিয়েছে পরাজিত প্রার্থীর সমর্থক বিএনপি নেতাকর্মীরা

4:33 pm , June 6, 2024

বানারীপাড়া উপজেলা নির্বাচনী সহিংসতা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বানারীপাড়া উপজেলা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পরাজিত প্রার্থীর সমর্থকদের হামলায় গুরুত্বর আহত হয়েছে এক উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা। নির্বাচনে মোটর সাইকেল প্রতিকের প্রার্থী. এ্যাড মাওলাদ হোসেন সানা’র হয়ে কাজ করা বিএনপি নেতা কর্মীরা কুপিয়ে তাকে মৃত ভেবে ডোবায় ফেলে দেয় বলে জানায় উপজেলার ৩নং ওয়ার্ড আ’লীগ নেতা আহত মো. আলম বেপারী। সে উপজেলার পূর্ব সৈয়দকাঠীর মৃত মো. ফাজেল বেপারীর ছেলে। ৫ জুন ভোটের দিন সকালে দোয়াত কলম মার্কার বিজয়ী প্রার্থী গোলাম ফারুকের সমর্থনে কাজ করায় তাকে পিঠে ও মাথায় এলোপাতারি কোপানো হয়। আলম বেপারীকে মৃত ভেবে ফেলে যাওয়ার পর ফেইসবুকে ছবি পোস্ট করে হামলাকারিরা। পুলিশ ও বিজয়ী প্রার্থী গোলাম ফারুকের লোকজন তাকে উদ্ধার করে শেবাচিমে ভর্তি করেছে। ঘটনায় বানারীপাড়া থানায় মামলা দায়ের ও অভিযুক্ত একজনকে আটক করা হয়েছে।
আহত মো. আলম বেপারী জানায়, ৫ জুন সকাল ৮ টায় ভোট শুরু হওয়ার পর তিনি (আলম বেপারী) জয়ী প্রার্থী গোলাম ফারুকের হয়ে দোয়াত কলম মার্কার কাজ করছিলেন। ৩নং ওয়ার্ডের কালীবাড়ী কেন্দ্রে ভোট প্রদানের বিষয়ে ভোটারদের নানাবিধ সহায়তা করছিলেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে পরাজিত প্রার্থী এ্যাড. মাওলাদ হোসেন সানা’র হয়ে কাজ করা উপজেলা বিএনপির ওয়ার্ড পর্যায়ে পদবিদার নেতাদের নেতৃত্বে হামলা চালানো হয়। পূর্ব সৈয়দকাঠীর কালিবাড়ীর উত্তর পার্শে নুর আলম সরদারের বাড়ীর পাশে বিএনপি নেতা করিম মৃধার নেতৃত্বে হামলা করে তার দুই ছেলে শান্ত ও রফিকুল ইসলাম, আনোয়ার মৃধা, আবুল মৃধা, দেলোয়ার মৃধা, রোকেয়া বেগম, শামিম, খোকন সহ কমপক্ষে ২০/২৫ জন। প্রথমে তারা আ্হত আলম বেপারীকে মাথায় ইট মেরে ফেলে দেয়। এর পর চাপাতি দিয়ে মাথায় এলোপাতারি কুপিয়ে আহত করে। তার পিঠে মাছ ধরার টেটা দিয়ে কুপিয়ে মৃত ভেবে পাশের ডোবায় ফেলে কচুরিপানা দিয়ে ঢেকে রেখে চলে যায়। আলম বেপারী অভিযোগে আরও জানায়, শুধুমাত্র গোলাম ফারুকের হয়ে কাজ করায় হামলার শিকার হয়েছেন তিনি। হামলাকারীরা সবাই বিএনপি নেতা হয়েও পরাজিত প্রার্থী এ্যাড. মাওলাদ হোসেন সানা’র হয়ে কাজ করেছে পুরো নির্বাচনে। তার নির্দেশেই এই হামলা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। এ ঘটনায় তার ভাই বীর মুক্তিযোদ্ধা হাকিম বেপারীর ছেলে সাইফুল বাদী হয়ে মামলা করেছে। মামলার প্রেক্ষিতে অভিযুক্ত বিএনপি নেতা করিম মৃধাকে আটক করা হয়েছে।
আহত আলম বেপারীর মেয়ে নার্গিস জানায়, তার জন্মের পর থেকে পিতাকে আওয়ামীলীগ করতে দেখেছেন। তবে আজ এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক পরাজিত প্রার্থী এ্যাড. মাওলাদ হোসেন সানা’র হয়ে কাজ করা বিএনপির লোকের হাতে হামলার শিকার হয়ে মৃত্যুর সাথে লড়তে হচ্ছে তার পিতাকে। এর আগেও এরা তার পিতাকে হত্যার চেষ্টা করেছে বলে জানায় নার্গিস। ভোটের দিন তার পিতাকে কুপিয়ে ডোবায় ফেলে দিয়ে ছবি তুলে ফেইসবুকে পোস্ট করে আনন্দ উল্লাস করেছে তারা। এই হামলার কঠোর বিচারের জন্য প্রধানমন্ত্রী বরাবর দাবী জানিয়েছেন তিনি। এ বিষয়ে বানারীপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাইনুল ইসলামের সাথে ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি রিসিভ করেননি।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT