আলোকিত মানুষ গড়তে বিকাশের মতো অন্য প্রতিষ্ঠানকেও এগিয়ে আসতে হবে -জেলা প্রশাসক আলোকিত মানুষ গড়তে বিকাশের মতো অন্য প্রতিষ্ঠানকেও এগিয়ে আসতে হবে -জেলা প্রশাসক - ajkerparibartan.com
আলোকিত মানুষ গড়তে বিকাশের মতো অন্য প্রতিষ্ঠানকেও এগিয়ে আসতে হবে -জেলা প্রশাসক

4:22 pm , May 20, 2024

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ জেলা প্রশাসক শহিদুল ইসলাম বলেছেন, বিকাশের মতো অন্যান্য প্রতিষ্ঠান গুলোকেও আলোকিত মানুষ গড়তে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। বিকাশের এ কার্যক্রম নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয়। নতুন আলোকিত মানুষ গড়তে শিক্ষার্থীদের বই পড়ার কোনো বিকল্প নেই। বই পড়ার মধ্য দিয়েই প্রকৃত জ্ঞান অর্জন করা সম্ভব। সোমবার জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে বিকাশ এবং বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের যৌথ উদ্যোগে বরিশালের ৯টি স্কুলের শিক্ষার্থীদের মাঝে বই পড়া কর্মসূচির উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন জেলা প্রশাসক। তিনি আরো বলেন, ছাত্র-ছাত্রীদের পাঠ্য-পুস্তকের বাইরেও বই পড়ার অভ্যাস তৈরি করতে হবে। যাতে তারা পরিপূর্ণ ও আলোকিত মানুষ হিসেবে গড়ে উঠার সুযোগ পায়।
বই পড়া কর্মসূচি অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, বিকাশ এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কামাল কাদীর, চিফ এক্সটার্নাল অ্যান্ড কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স অফিসার মেজর জেনারেল শেখ মোঃ মনিরুল ইসলাম (অবঃ), বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের পরিচালক শামীম আল মামুন সহ অন্যান্যরা।
বিকাশ এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কামাল কাদীর বলেন, শিক্ষার্থীদের বই পড়ার অভ্যাস তৈরি করতে হবে। আর নিয়মিত বই পড়লে বইয়ের মাধ্যমে বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের পথ খুঁজে বের করা যায়। তাই বই পড়ার কোনো বিকল্প নেই।
তিনি আরও বলেন, প্রত্যেকের জীবনে একটা লক্ষ্য থাকতে হবে, লক্ষ্য ঠিক থাকলে আলোকিত মানুষ হওয়া যাবে। আর এ জন্য সবাইকে বইয়ের সাথে সক্ষতা গড়ে তুলতে হবে।
অনুষ্ঠানে বক্তারা আরও বলেন, আলোকিত মানুষ গড়ার উদ্দেশ্যে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্র দেশজুড়ে বই পড়া কর্মসূচি পরিচালনা করে আসছে। এই উদ্দেশ্যকে আরো প্রসারিত ও কার্যকরী করতে গত এক দশক ধরে বই পড়া কর্মসূচির সাথে যুক্ত আছে বিকাশ। এর আওতায়, এ পর্যন্ত দেশজুড়ে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৩ লক্ষেরও বেশি বই দেয়া হয়েছে যার মাধ্যমে ৩০ লাখ পাঠক উপকৃত হয়েছে। এবছর এ কার্যক্রমে যুক্ত হওয়া বইয়ের সংখ্যা ৩৯,৮৬০।
এদিকে বই পড়া এ কার্যক্রমে বরিশালের ৯টি স্কুলের শিক্ষার্থীরা অংশ নেয়। এর মধ্যে বরিশালের ব্যাপ্টিষ্ট মিশন বালক উচ্চ বিদ্যালয়, হালিমা খাতুন বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, আলেকান্দা রুপাতলী সাগরদী মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, কলেজিয়েট মাধ্যমিক বিদ্যালয়, আছমত আলী খান ইনষ্টিটিউশন, কাউনিয়া বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, শহীদ আলতাফ স্মৃতি বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মমতাজ মজিদুন্নেছা মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, ইউসেপ সৈয়দ বাড়ি আলেকান্দা টেকনিক্যাল স্কুলে সম্প্রসারিত হলো বইপড়া কর্মসূচি।
এর আগে, মিলনায়তনে স্কুলগুলোর প্রায় ৪৫০ জন ছাত্রছাত্রীর অংশগ্রহণে একটি কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। ৪০ জন কুইজ বিজয়ীকে পুরস্কার ও সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।
উল্লেখ্য, বিকাশ তার যাত্রা শুরুর সময় থেকেই বই পড়াকে উৎসাহিত করতে বিভিন্ন ধরণের কার্যক্রমে যুক্ত রয়েছে। ২০১৮ সাল থেকেই বাংলা একাডেমির অমর একুশে বইমেলা আয়োজনে মূল পৃষ্ঠপোষক হিসেবে সহযোগিতা করছে বিকাশ। এছাড়া, স্কুলের শিক্ষার্থীদের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে অনুপ্রাণিত করতে সারাদেশে বাংলা ও ইংরেজি মাধ্যমের ৫০০টি স্কুলে প্রতি বছর ২০ হাজার কপি গ্রাফিক নভেল সিরিজ ‘মুজিব’ বিতরণ করছে প্রতিষ্ঠানটি। শিক্ষা কার্যক্রমকে আরও সম্প্রসারিত করতে ২০১৯ সাল থেকে যশোরের বিশেষায়িত স্কুল প্রয়াস এর শিক্ষার্থীদের বাৎসরিক শিক্ষাদান খরচও বহন করে আসছে বিকাশ।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT