আবারো বরিশাল সেক্টরে নিয়মিত ফ্লাইট থেকে সরে গেল বিমান আবারো বরিশাল সেক্টরে নিয়মিত ফ্লাইট থেকে সরে গেল বিমান - ajkerparibartan.com
আবারো বরিশাল সেক্টরে নিয়মিত ফ্লাইট থেকে সরে গেল বিমান

4:09 pm , March 20, 2024

বিশেষ প্রতিবেদক ॥ শেষ পর্যন্ত রাষ্ট্রীয় আকাশ পরিবহন সংস্থা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স আসন্ন স্বাধীনতা দিবসের দিন বরিশালবাসীর জন্য সু-সংবাদটি দিতে পারল না। দীর্ঘ দাবীর প্রেক্ষিতে গত জানুয়ারীর শেষে জাতীয় পতাকাবাহী বিমান আসন্ন গ্রীষ্মকালীন সময়সূচীতে ২৬ মার্চ থেকে বরিশাল সেক্টরে সপ্তাহে ৬দিন চালানোর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছিল। বিষয়টি সংস্থার ফ্লাইট সিডিউল পরিদপ্তর থেকে বিক্রয় ও বিপণন  বিভাগকে অবহিত করা হয়। এ ব্যাপারে বিভিন্ন গণমাধ্যমকেও বেসরকারীভাবে অবহিত করা হয়েছিল।
কিন্তু ‘পাইলট সংকটের কারণে’ চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে সে সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে বিমান। বর্তমানে অভ্যন্তরীণ রুটের জন্য বিমান এর ৪টি ‘ড্যাস-৮ কিউ-৪০০’ এয়ারক্রাফট থাকলেও প্রয়োজনীয় ক্রু নেই। নতুন সিদ্ধান্তনুযায়ী আগামী ২৬ মার্চ নয় ৩১ মার্চ থেকে বরিশাল সেক্টরে সপ্তাহে ৪ দিন ফ্লাইট পরিচালনা করবে রাষ্ট্রীয় সংস্থাটি। ৩১ মার্চ থেকে রবি, সোম, বৃহস্পতি ও শুক্রবার ফ্লাইট পরিচালনা করবে বিমান।
তবে নতুন সময়সূচী অনুযায়ী সোম ও বৃহস্পতিবার ঢাকা থেকে বিকেল সোয়া ৪টা ও বরিশাল থেকে সাড়ে ৫টায় এবং শুক্রবার ঢাকা থেকে সকাল সোয়া ৮টা ও বরিশাল থেকে সকাল সাড়ে ৯টা, রোববার ঢাকা থেকে সকাল সাড়ে ১০টা, বরিশাল থেকে সকাল সাড়ে ১১টায় ফ্লাইট পরিচলনার কথা জানিয়েছে বিমান। কিন্তু ‘এ সময়সূচী যাত্রীবান্ধব হয়নি’ বলে বিভিন্ন ট্রাভেল এজেন্সী ও যাত্রীদের তরফ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে। তাদের তরফ থেকে যতদিন নিয়মিত ফ্লাইট প্রদান সম্ভব হচ্ছেনা ততদিন সোমবারের পরিবর্তে শনিবার বিকেলে ফ্লাইট প্রদানের দাবী জানান হয়েছে। পাশাপাশি সোমবার ফ্লাইট পরিচালনা করলে তা শুক্রবারের মত সকালে এবং রোববারের ফ্লাইটটিও ঢাকা থেকে সকাল সোয়া ৮টায় এবং বরিশাল থেকে সাড়ে ৯টায় পরিচালন-এর দাবী জানান হয়েছে।
উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্তি ২০২১ সালের ২৬ মার্চ থেকে বরিশাল সেক্টরে প্রতিদিন নিয়মিত ফ্লাইট চালু করেছিল জাতীয় পতাকাবাহী বিমান। কিন্তু পদ্মা সেতু চালুর অজুহাত তুলে ২০২২ সালের  ৫ আগষ্ট থেকে নিয়মিত ফ্লাইট সপ্তাহে ৩ দিনে হ্রাস করা হয়। তবে এজন্য প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর বা মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন দূরের কথা অবহিত পর্যন্ত করেনি বিমানের  তৎকালীন ব্যবস্থাপানা কর্তৃপক্ষ। অথচ ২০২২ সালেও বরিশাল সেক্টরে ফ্লাইট প্রতি বিমান-এ ৭০% এর বেশী যাত্রী বহন করে। সাধারন যাত্রীদের অভিযোগ, বানিজ্যিক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে কখনোই বরিশাল সেক্টরে ফ্লাইট পরিচালনা করেনি বিমান কর্তৃপক্ষ।
বরিশাল সেক্টরের বিষয়ে বিমানের বর্তমান ব্যবস্থাপনা পরিচালক শফিউল আজিম একাধিকবারই ইতিবাচক মনোভাবের কথা জানিয়েছেন। তার মতে ‘বরিশাল সেক্টর নিয়ে ইতিবাচক পদক্ষেপ গ্রহণের চেষ্টা চলছে’। বিদ্যমান কিছু সংকট কাটিয়ে উঠে এ সেক্টরে যাত্রী চাহিদার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে সম্ভব সব কিছু করা হবে বলেও জানিয়েছিলেন তিনি।
বরিশাল সদর আসনের এমপি ও পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক শামীমও সম্পতি গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় ‘ তার সাথে বিমানমন্ত্রীর কথা হয়েছে জানিয়ে খুব শীঘ্রই বরিশাল সেক্টরে বিমান ফ্লাইট বাড়বে’ বলে জানিয়েছিলেন।
কিন্তু আসন্ন গ্রীষ্মকালীন সময়সূচীতে বরিশাল সেক্টরে সপ্তাহে ৬দিন ফ্লাইট দেয়ার পরেও তা থেকে সরে আসার বিষয়ে জানতে বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং বিক্রয় ও বিপণন পরিদপ্তরের পরিচালকের সাথে দাপ্তরিক সেলফোনে একাধিকবার চেষ্টা করেও তা সম্ভব  হয়নি। গতবছরও গ্রীষ্মকালীন সময়সূচীতে বরিশাল সেক্টরে ৫টি ফ্লাইট প্রদান করা হলেও মার্চের মধ্যভাগে এসে সেখান থেকে সরে গিয়ে ৩টিতেই বহাল রাখে বিমান কর্তৃপক্ষ। বরিশাল সেক্টর নিয়ে একের পর এ ধরনের নেতীবাচক পদক্ষেপ সাধারন যাত্রীদের বিমান এর প্রতি বিরুপ মনোভাব তৈরীতে সহায়ক হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন অনেকেই।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT