জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনকে ঘিরে সরগরম বরিশালের আদালত পাড়া জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনকে ঘিরে সরগরম বরিশালের আদালত পাড়া - ajkerparibartan.com
জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনকে ঘিরে সরগরম বরিশালের আদালত পাড়া

4:11 pm , February 13, 2024

আরিফ আহমেদ, বিশেষ প্রতিবেদক ॥ বরিশাল আদালত পাড়ার প্রায় অর্ধশত চায়ের দোকানে জমজমাট আড্ডা চলছে। আদালত সংশ্লিষ্ট কাজ ছেড়েই চা দোকানে এসে জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন নিয়ে বাগবিতন্ডায় জড়াচ্ছেন আইনজীবীরা। আইনজীবী সমিতি নেতৃবৃন্দের বিগত সময়ের কার্যক্রম নিয়েও চলছে আলোচনা। সরেজমিনে আদালত পাড়া ঘুরে দেখা যায়, জেলা আইনজীবী সমিতি ভবনের সামনে ঝুলছে তিনটি ফেস্টুন। এর একটি নীল দল অর্থাৎ বিএনপি সমর্থক আইনজীবীদের অন্য দুটি বঙ্গবন্ধু আইনজীবী পরিষদ ও আওয়ামী লীগ সমর্থক আইনজীবীদের ফেস্টুন। নির্বাচনের বাকী আর একদিন। ১৫ ফেব্রুয়ারীর এই নির্বাচনে সাদা প্যানেলে বঙ্গবন্ধু আইনজীবী পরিষদ এবং নীল প্যানেলে ইউনাইটেড ল’ইয়ার্স এর ১১ জন করে মোট ২২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। চা দোকানে আড্ডারতদের বেশিরভাগ ভোটার হলেও তারা ঘীরে আছেন নির্বাহী সদস্য পদ প্রার্থীদের। মূলত সদস্য ও সহ সভাপতি, কোষাধ্যক্ষ পদপ্রার্থীরাই সরগরম করে রেখেছেন এই চা আড্ডা। এরই মধ্যে উম্মিয়া খানম নামের একজন নারী আইনজীবী মাইগ্রেন সমস্যার জন্য ওষুধ কিনতে ছুটলেন আদালত পাড়ার বাইরে। তিনি একজন সাধারণ ভোটার এই নির্বাচনে। যেতে যেতে প্রার্থীদের কাছে দাবী জানালেন, একটি ফার্মেসী যেন হয় এই আদালত পাড়ার ভিতরে। আরেকজন পুরুষ ভোটার তামিম জানালেন, একটি মসজিদ এখানে রয়েছে, তবে সেটির সংস্কার খুবই জরুরী। আর নারী ভোটার সুমাইয়া জিসানের দাবী লাইব্রেরিতে পর্যাপ্ত বইয়ের অভাবসহ মহিলা আইনজীবীদের সুযোগ সুবিধা। এসব প্রয়োজনীয় অনেক বিষয় নিয়ে চলছে আলোচনা। তবে প্রার্থীদের  অনেকেরই টনক নড়েছে ওষুধের দোকানের কথায়। আদালত পাড়ার অলিগলিতে চা দোকান, সেলুন থাকলেও নেই কোনো ওষুধের দোকান। এটা খুবই জরুরী প্রয়োজন স্বীকার করে বিএনপি সমর্থিত নীল দল ইউনাইটেড লইয়ার্স ফ্রন্ট এর সভাপতি পদপ্রার্থী এস এম সাদিকুর রহমান লিংকন বললেন, নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হলে আমরা জয়ী হবো। আর জয়ী হলে প্রথমেই এই সমস্যার সমাধান করবো ইনশাআল্লাহ। তবে বিগত বছরগুলোর অভিজ্ঞতায় বলতে পারি এরা জেলা আইনজীবী সমিতির ঐতিহ্য ধ্বংস করে দিয়েছে। এখানে নির্বাচন সুষ্ঠু হওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম বলে দাবী নীল প্যানেলের প্রায় সকলেরই। তারপরও নির্বাচনের ধারাবাহিকতা রক্ষা করতে ইউনাইটেড লইয়ার্স ফ্রন্টের সভাপতি
লিংকন ও সম্পাদক মির্জা মোহাম্মদ রিয়াজ হোসেন প্যানেল জোর প্রচারণা চালাচ্ছে আদালত পাড়ায়। এবারের নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্বে আছেন আইনজীবী লস্কর নুরুল হক ও আইনজীবী রফিকুল ইসলাম খোকন। এরা দুজনেই বঙ্গবন্ধু আইনজীবী পরিষদের সাবেক সভাপতি ও সম্পাদক। তাই নির্বাচন সুষ্ঠু হওয়ার সম্ভাবনা কম দাবী করেন নীল প্যানেলের সম্পাদক রিয়াজ।
এ নির্বাচন একান্তই আদালত পাড়ার এবং আইনজীবীদের নিজস্ব নির্বাচন, তাই এখানে বিএনপির নির্বাচন বয়কটের প্রভাব গুরুত্বপূর্ণ নয় বলে জানান বিএনপি সমর্থক আইনজীবীরা।
১৩ ফেব্রুয়ারী মঙ্গলবার সকালে জেলা আইনজীবী সমিতি এনেক্স ভবনের সামনে কথা হয় বঙ্গবন্ধু আইনজীবী পরিষদ নির্বাচন পরিচালনা কমিটি ও নেতৃবৃন্দের সাথে। সিনিয়র আইনজীবী কেবিএস আহমেদ কবীর, জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি আনিচ উদ্দিন শহীদ, নির্বাচন কমিশনার লস্কর নুরুল হক, আইনজীবী আফজালুল করিম সহ বর্তমান বঙ্গবন্ধু আইনজীবী পরিষদ নেতৃবৃন্দের সাথে। সকলের চোখেমুখে নির্বাচনী আমেজ। ১৫ ফেব্রুয়ারী নির্বাচন, তাই এই মুহূর্তে সাদা প্যানেলের সভাপতি ও সম্পাদক  গোলাম কবির বাদল ও খান মোঃ মোর্শেদ গণমাধ্যমের সাথে কথা বলতে রাজী না হয়ে তারা আনিচ উদ্দিন শহীদ এর বক্তব্য গ্রহণের পরামর্শ দেন।  সিনিয়র আইনজীবী কেবিএস আহমেদ কবীর এর কক্ষে তখন আড্ডা জমেছে বঙ্গবন্ধু আইনজীবী পরিষদ নির্বাচন পর্ষদ সদস্যদের। আনিচ উদ্দিন শহীদ বলেন, বঙ্গবন্ধুর আদর্শের আইনজীবীরা সবসময় আমাদের পক্ষে আছে এবং থাকবে। মোট ৯শ  ভোটার আমাদের। এরমধ্যে আমাদের বঙ্গবন্ধু পরিষদের সদস্য ভোটই রয়েছে প্রায় তিনশ। আমরা পূর্ণ প্যানেল এ নির্বাচনে জয়ী হবো।
নির্বাচন কমিশনার লস্কর নুরুল হক নির্বাচন শতভাগ সুষ্ঠু করার নিশ্চয়তা দিয়ে বলেন,  আইনজীবীদের নির্বাচন আগে যেমন হয়েছে, এবারেও তেমনি হবে। তবে এবার একটি অনন্য উদাহরণ তৈরি হবে বলে জানান লস্কর নুরুল হক।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT