শেষ আশাও নিরাশায় পরিণত হলো সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহর শেষ আশাও নিরাশায় পরিণত হলো সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহর - ajkerparibartan.com
শেষ আশাও নিরাশায় পরিণত হলো সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহর

4:12 pm , January 2, 2024

প্রার্থীতা বাতিল করেছে সুপ্রীমকোর্টের আপিল বিভাগ

হেলাল উদ্দিন ॥ শেষ আশাও নিরাশায় পরিনত হলো সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহর। মঙ্গলবার বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের আপিল বিভাগ চূড়ান্ত রায় ঘোষণা করেছে। এতে বলা হয়েছে ‘বরিশাল-৫ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে আর অংশ গ্রহণ করতে পারবেন না। মূলত দ্বৈত নাগরিকত্ব ও হলফনামায় তথ্য গোপন করার অভিযোগে তার প্রার্থীতা বাতিল করা হয়েছে।
সুপ্রীমকোর্টের আপিল বিভাগে আবেদন করার পর সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহর আপিল শুনানীর দিন ধার্য্য করা হয়েছিলো ২ জানুয়ারী। এই ২ তারিখের দিকেই তাকিয়ে ছিলো সাদিক অনুসারী নেতাকর্মীরা। সকাল ১০ টার পরপরই রায় ঘোষণা করেন সুপ্রীমকোর্টের আপিল বিভাগ। রায়ে সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহর প্রার্থিতা ফেরত চেয়ে আবেদন খারিজ করে দেওয়া হয়। প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে ৬ বিচারপতির আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।
সুপ্রীম কোর্টের আদেশের খবর বরিশালে ছড়িয়ে পড়ার পরপরই সাদিক শিবিরে হতাশা নেমে আসে। তাদের প্রত্যাশা ছিলো ২ জানুয়ারী আপিল বিভাগের রায় সাদিক আবদুল্লাহর পক্ষে আসবে। এমন আশায় ঈগল প্রতীক দিয়ে সাদিক আবদুল্লাহর পক্ষে পোষ্টার লিফলেট ছেপে প্রচার প্রচারণার সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করে রেখেছিলেন সাদিক অনুসারীরা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত হতাশ হতে হলো তাদের। এখন সাদিক অনুসারীদের রাজনৈতিক কৌশল কি হবে। নৌকার পক্ষে নির্বাচনী মাঠে নামবেন কিনা এমন পশ্নের জবাবে সাদিক আবদুল্লাহর অন্যতম প্রধান অনুসারী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি  এ কেম জাহাঙ্গীর বলেন, আমরা এখনো নির্বাচন বা রাজনৈতিক কোন কলাকৌশল নির্ধারণ করিনি। এ বিষয়ে আপনাদের পরে অবহিত করবো।
গত ১৯ ডিসেম্বর সাদিক আব্দুল্লাহর প্রার্থিতা বৈধ ঘোষণা করে হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করেন আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত। এর ফলে তার  নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সুযোগ বন্ধ হয়ে যায়। আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম এ আদেশ দেন। আদালতে সাদিক আবদুল্লাহর পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান ও অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথি। অপরপক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট আহসানুল করিম। এরআগে সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহর প্রার্থিতা বৈধ ঘোষণা করে হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চেয়ে আবেদন করে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জাহিদ ফারুক শামীম। এর আগে ১৮ ডিসেম্বর সাদিক আব্দুল্লাহর প্রার্থিতা বৈধ ঘোষণা করেন হাইকোর্ট। বিচারপতি আবু তাহের সাইফুর রহমান ও বিচারপতি মো. বশির উল্লাহর হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। গত ১৫ ডিসেম্বর বরিশাল-৫ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহর প্রার্থিতা বাতিল করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। নির্বাচন কমিশনের আপিল শুনানিতে এই রায় দেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আওয়ালের নেতৃত্বাধীন কমিশন। দ্বৈত নাগরিকত্বের অভিযোগে তার প্রার্থিতা বাতিল চেয়ে আপিল করেছিলেন একই আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জাহিদ ফারুক।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT