আজ ভান্ডারিয়া হানাদার মুক্ত দিবস আজ ভান্ডারিয়া হানাদার মুক্ত দিবস - ajkerparibartan.com
আজ ভান্ডারিয়া হানাদার মুক্ত দিবস

3:52 pm , December 12, 2023

ভা-ারিয়া প্রতিবেদক ॥ আজ বুধবার পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া হানাদার মুক্ত দিবস । ১৯৭১ সালের এই দিনে ভান্ডারিয়ার বীর মুক্তিযোদ্ধারা পাকবাহিনীর বিরুদ্ধে চূড়ান্ত প্রতিরোধ গড়ে তোলেন। শহরের বহমান পোনা নদী তীরের পুরাতন স্টীমারঘাট এলাকায় মুক্তিযুদ্ধকালীন কমান্ডার সুবেদার আব্দুল আজিজ সিকদারের নেতৃত্বে অর্ধশত সশস্ত্র মুক্তিযোদ্ধারা একত্রিত হয়েছিলেন।  এরপর সংগঠিত মুক্তিযোদ্ধারা পোনা নদীতে অবস্থানরত পাকহানাদারের গানবোর্ড লক্ষ করে গুলি বর্ষন শুরু করেন । এর জবাবে হানাদারবাহিনীও পাল্টা গুলি চালায়। সশস্ত্র মুক্তিযোদ্ধারা পোনা নদীতে হানাদার বাহিনীর গানবোট ডুবিয়ে দেওয়ার চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হন। এরপর মুক্তিযোদ্ধারা অবস্থান বদলে ভান্ডারিয়া শহর থেকে প্রায় চার কিলোমিটার ভিটাবাড়িয়া গ্রামের পোনা নদীর মোহনার শিয়ালকাঠী এলাকায় নতুন করে প্রতিরোধের জন্য ঘাঁটি গড়েন। এসময় তাঁদের সাথে আরও কিছু মুক্তিযোদ্ধা যোগ দিলে তাদের শক্তি বৃদ্ধি পায়। মুক্তিযোদ্ধারা হানাদারদের গানবোট ডুবিয়ে হানাদারদের ওপর সশস্ত্র হামলা চালায়। এসময় মুক্তিযোদ্ধাদের গুলিতে পাকবাহিনীর একটি গানবোটের তলা ছিদ্র হয়ে কঁচা নদীতে ডুবে যায়। এসময় পাকহানাদাররা অন্য একটি গানবোটে পিছু হটে যায়। তবে মুক্তিযোদ্ধাদের সশস্ত্র আক্রমনে ঘটনাস্থলে পাকহানাদারের কয়েকজন সদস্য নিহত হয়। এরপর স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা বিজয় মিছিল করে ভা-ারিয়া শহরের প্রবেশ করেলেই ভান্ডারিয়া সম্পূর্ণ হানানাদার মুক্ত হয়।
সকল মুক্তিযোদ্ধারা শহরে প্রবেশ করলে সর্বস্তরের জনতা  মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে নিয়ে জয়বাংলা ধ্বনিতে বিজয় মিছিলে মুখরিত করে।  এ বিষয়ে সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা খান এনায়েত করিম জানান, আজও আমরা ভা-ারিয়ায় বধ্যভূমি সংরক্ষণ করতে পারিনি। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চত্বরে এক কর্নারে তৎকালিন পাক হানাদার বাহিনী ৫০/৬০ লোককে হত্যা করে সেখানে ফেলে রেখে ছিল। পরবর্তীতে ওই জমি বাউন্ডারি ওয়াল নির্মান করে সরকারি হাসপাতাল চত্বরের ভেতরে নিয়ে যাওয়া হয়। আমরা একাধিকবার বধ্য ভূমি সংরক্ষণের উদ্যোগ নিয়েছিলাম। সরকারি কর্মকর্তাদের সহয়তা না পাওয়ায় বধ্যভূমিতে স্মৃতি স্তম্ভ নির্মান করতে পারিনি।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT