বরিশালে পৌনে ৪ লাখ শিশুকে ভিটামিন “এ” ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে বরিশালে পৌনে ৪ লাখ শিশুকে ভিটামিন “এ” ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে - ajkerparibartan.com
বরিশালে পৌনে ৪ লাখ শিশুকে ভিটামিন “এ” ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে

3:40 pm , December 11, 2023

সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত কার্যক্রম চলবে
নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ আজ সারা দেশের ন্যায় বরিশালেও অনুষ্ঠিত হবে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন। এদিন সকাল ৮ টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত বরিশাল সিটি করপোরেশনসহ জেলার ১০ উপজেলায় ৬ মাস হতে ৫ বছর বয়সী তিন লাখ ৭৭ হাজার ১৯৪ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। যারমধ্যে বরিশাল সিটি করপোরেশনের ত্রিশটি ওয়ার্ডে ৬ মাস থেকে ১১ মাস বয়সী ৯ হাজার জন এবং ১২ মাস থেকে ৫৯ মাস বয়সী ৬০ হাজার শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। অপরদিকে জেলায় ৬ মাস থেকে ১১ মাস বয়সী ৩৪ হাজার ৩১৫ জন এবং ১২ মাস থেকে ৫৯ মাস বয়সী ২ লাখ ৭৩ হাজার ৮৭৯ জন শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। বরিশাল সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মাসুমা আক্তার বলেন, বরিশাল নগরে ২২০ টি কেন্দ্রের মাধ্যমে শিশুদের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। ভ্রাম্যমান জনগোষ্ঠির জন্য বাসষ্টান্ড, লঞ্চঘাট এবং ফেরিঘাটসহ বিভিন্ন পয়েন্টে কেন্দ্র থাকবে। প্রতিটি কেন্দ্রে ২ জন করে কর্মী থাকবেন। ক্যাম্পেইন কার্যক্রম অনলাইনে সুপারভিশন হবে। তিনি বলেন, বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগ, আরবান প্রাইমারী হেলথ কেয়ার সার্ভিসে ডেলিভারী প্রকল্প, বেসরকারী প্রতিষ্ঠান এফপিএবি, সূর্যের হাসি ক্লিনিক, ব্র্যাক, চন্দ্র দ্বীপ, উদয়ন পাঠাগার, সিডিসি, গার্লস গাইড, ওআরডিপি, সদর হাসপাতাল, শের-ই-বাংল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, ওডিপি, মেরি স্টোপস ক্লিনিক, সেন্ট এ্যানেস মেডিকেল সেন্টার সহ মোট ১৬ টি প্রতিষ্ঠানের ৫ শত জন কর্মী এ কার্যক্রমে অংশগ্রহন করবেন। তিনি বলেন, এই ক্যাম্পেইনে বরিশাল সিটি কর্পোরেশন এলাকায় বাড়ী-বাড়ী পরিদর্শনের মাধ্যমে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে না। ভিটামিন এ ক্যাপসুল শিশুর জন্য সম্পূর্ন নিরাপদ। তবে ভরা পেটে খাওয়া ভাল। যদি কোন শিশু গত ৪ মাসের মধ্যে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খেয়ে থাকে সেই শিশুকে ক্যাম্পেইনে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো যাবে না। এদিকে বরিশাল জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ মারিয়া হাসান জানিয়েছেন, জেলায় ১০টি উপজেলায় ২ হাজার ১০৭ টি টিকাদান কেন্দ্র রয়েছে। এতে ৪ হাজার ২১৪ জন স্বেচ্ছাসেবক থাকবেন। সিভিল সার্জন আরো বলেন, জেলার ৪ টি উপজেলায় (হিজলা,মুলাদী,মেহেন্দীগঞ্জ এবং বাকেরগঞ্জ) সার্সিং পোগ্রাম রয়েছে। এই ৪ উপজেলায় যে সব শিশু বাদ পড়বে তাদের পরবর্তী ৪ দিন বাড়ি বাড়ি গিয়ে খুঁজে ভিটামিন খাওয়ানো হবে। তিনি বলেন, জ্বর,ডায়রিয়া বা গুরুতর অসুস্থ শিশুকে ভিটামিন ক্যাপসুল খাওয়ানো যাবে না।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT