বরিশাল-২ আসনে ভোটের আগে জোটের লড়াই বরিশাল-২ আসনে ভোটের আগে জোটের লড়াই - ajkerparibartan.com
বরিশাল-২ আসনে ভোটের আগে জোটের লড়াই

2:53 pm , December 6, 2023

শাকিল মাহমুদ বাচ্চু, উজিরপুর ॥ বরিশাল -২  (উজিরপুর ও বানারীপাড়া ) আসনে ভোট যুদ্ধ’র আগেই প্রার্থীরা নেমেছে জোটের মনোনয়ন যুদ্ধে। কে হচ্ছেন এ আসনটিতে  নৌকা প্রতীকের কান্ডারী তা নিয়ে চলছে নানা জল্পনা কল্পনা। দীর্ঘ সময় ধরে আওয়ামী লীগের দখলে থাকা আসনটিতে রাশেদ খান মেননের মনোনয়ন দাখিল ভাল চোখে দেখছে না দুই উপজেলার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।  প্রাথীরা চুপচাপ থাকলেও  দু দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে চলছে বাকযুদ্ধ। জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা ইকবাল হোসেন তাপসও শেষ মুহূর্তে এ  আসনে মনোনয়ন দাখিল করেছেন। আসনটিতে একাধিকবার জাপা জয়ী হওয়ায়  তিনি মহাজোটের প্রার্থী হিসাবে  দাবী করছেন।
এ আসনের সাবেক সংসদ  বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সাধানর সম্পাদক  তালুকদার মো: ইউনুস আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন। শেষ মূহূর্তে আওয়ামী লীগের অন্যতম শরীক দল ১৪ দলীয় জোটের শীর্ষ পর্যায়ের নেতা রাশেদ খান মেনন এ আসনে  মনোনয়ন দাখিল করেন ৩০ নভেম্বর।  বরিশাল জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা মো: শহিদুল ইসলাম তাদের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করেছেন। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ইউনুস ছাড়াও এ আসনে স্বতন্ত্র পদে প্রার্থী হয়েছেন আওয়ামী লীগের দুই নেতা । এরা হলেন : সাবেক সংসদ সদস্য মনিরুল ইসলাম মনি ও শের ই বাংলার দৌহিত্র ফাইজুল হক রাজু। মনোনয়ন প্রশ্নে নাটকীয় কোন সিদ্ধান্ত হলে এ আসনটির ভোটের  হিসাব নিকাশ বদলে যাবে। বরিশাল -২ আসনে  দলীয়  মনোনয়ন পাওয়া বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক তালুকদার মো:ইউনুসের পক্ষে একাট্টা হয়ে মাঠে নেমেছেন বানারীপাড়া ও উজিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের বিভিন্নস্থরের নেতাকর্মীরা। দুই উপজেলার  নেতাদের সাফ কথা আওয়ামী লীগের দখলে আসনটি ভোটের মাঠে জামানত হারানো দলকে দিতে হবে কেন ? এদিকে এ আসনের ওয়ার্কার্স পাটির কর্মী সমার্থকরা তাকিয়ে আছেন কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের  দিকে। অপাদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী  মনিরুল ইসলাম মনি ও ফায়জুল হক রাজুর সমর্থকরা অপেক্ষায় রয়েছেন জোটের মনোনয়নের চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের দিকে। তাদের অভিমত এ আসনটিতে জোটের প্রার্থী রাশেদ খান মেননকে ছেড়ে দেওয়া হলে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা প্রকাশ্যে তাদের দিকে ঝুকবেন। কারন এ আসনে জোটের শরীক ওয়ার্কার্স পাটির সাংগঠনিক অবস্থা মজবুত নয়। এ সুযোগটি কাজে লাগাতে সহজ হবে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের। এ আসনটি বাবুগঞ্জ উপজেলার সাথে যুক্ত থাকাকালীন ১৯৯১ সালের নির্বাচনে রাশেদ খান মেনন এমপি নির্বাচিত হয়েছিলেন। ৯৬ সালের নির্বাচনে মেনন জাতীয় পার্টির প্রার্থী গোলাম ফারুক অভির কাছে পরাজিত হয়ে জামানত হারান। একাধিকবার বরিশাল-২ আসন  জাতীয় পার্টির দখলে থাকলেও  নবম সংসদ নির্বাচনের আগে আসন সীমানা পরিবর্তন করে বরিশাল-২ উজিরপুরের সাথে বানারীপাড়া সংযুক্ত করা হলে টানা ৩টি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা জয়ী হয়ে মজবুত অবস্থানে রয়েছেন। দলটির প্রার্থী তালুকদার মো: ইউনুস। একাদশ সংসদ নির্বাচনেও প্রথমে  তিনি দলের মনোনয়ন পেয়েছিলেন। ওই নির্বাচনে মহাজোটের শরীক জাতীয় পার্টির সাথে আসন ভাগাভাগিতে মনোনয়ন বঞ্চিত হন তিনি।   ওই নির্বাচনে  এ আসনটিতে জাপার প্রার্থী অভিনেতা  মাসুদ পারভেজ সোহেল রানাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। তখন ডামি প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন পেয়েছিলেন শাহে আলম তালুকদার। বিদুৎ বিল বকেয়া সংক্রান্ত  কারনে তার মনোনয়ন বাতিল হলে নৌকার প্রার্থী শাহে আলম  সংসদ সদেস্য নির্বাচিত হন।
বানরীপাড়ার উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মাওলাদ হোসেন সানা বলেন, ক্লিন ইমেজের ব্যক্তি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক এ আসনের সাবেক সংসদ ইউনুস প্রশ্নে আমরা একাট্টা হয়ে কাজ করছি।  নৌকা প্রতীক অন্য দলের হাতে তুলে দিলে পরিস্থিতি  ভিন্ন হতে পারে। বানরীপাড়া উপজেলা পরিষদের  সাবেক  ভাইস চেয়ারম্যান শরিফ উদ্দিন কিসলু বলেন, একজন পরিচ্ছন্ন নেতা হিসাবে তালুকদার মো: ইউনুস দলের মধ্যে যেমন জনপ্রিয় তেমনি দলের বাইরেও সাধারন মানুষের মধ্যে জনপ্রিয়। তাকে বাদ দেওয়া হলে অনেকেই ভিন্ন ধারায় হাটতে পারে। উজিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক  ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম মৃধা দেশ বলেন, ইউনুস ও নৌকা  প্রশ্নে আমরা একাট্টা। তিনি একজন ত্যাগী ও জনপ্রিয় নেতা।  আমরা বরিশাল-২ আসনে তার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ। তিনি মনোনয়ন না পেলে অন্য প্রার্থীকে জয়ী করতে মাঠে নেমে কাজ করতে পারবো না। তবে দল যাকে মনোনয়ন দিবে তাকে একটা ভোট দিবো। ওয়ার্কার্স পার্টির  উজিরপুর উপজেলা সভাপতি ও  উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সীমা রাণী শীল বলেন, জোট ওয়ার্কার্স পার্টি রাশেদ খান মেননকে এ আসনে মনোনয় দিলে তিনি বিপুল ভোটে জয়ী হবেন। জাতীয় পার্টির প্রার্থী ইকবাল হোসেন তাপস  নিজেদের জোটের প্রার্থী হিসাবে এ আসনটি তাদের প্রাপ্য বলে দাবী করে বলেন, এ আসনটি আমাদের  দখলে ছিলো।  দল যে সিদ্ধান্ত নেবে আমি সেই মোতাবেক কাজ করবো। তবে আমিও আশাবাদী জোট এ আসনটি আমাকে দেবে।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT