হিজলায় ৫৫ বছর পর থানার জমি উদ্ধার হিজলায় ৫৫ বছর পর থানার জমি উদ্ধার - ajkerparibartan.com
হিজলায় ৫৫ বছর পর থানার জমি উদ্ধার

3:20 pm , October 2, 2023

সেলিম রাঢ়ী, হিজলা ॥ হিজলা উপজেলার বিচ্ছিন্ন চরে পুরাতন থানার প্রায় চার একর জমি ৫৫ বছর উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার জমির সীমানা নির্ধারন করে গাছ রোপনের মাধ্যমে দখলে নেয়া হয়েছে বলে হিজলা থানার ওসি মো. জুবাইর আহমেদ জানিয়েছেন। তিনি জানান, উপজেলার হিজলা গৌরবদী ইউনিয়নের চরহিজলা মৌজায় ৩ একর ৭৭ শতক জমিতে বদরপুর থানা ছিলো। ১৯১৭ সালে প্রতিষ্ঠিত ওই থানা ১৯৪২ সালে মেঘনা নদীতে বিলীন হয়। ১৯৬৮ সালের দিকে চর জেগে উঠলে ওই জমি বিভিন্ন মানুষ ভোগদখল করে। ওসি জুবাইর জানান, তিনি বিষয়টি জানতে পেরে জমি উদ্ধারের কার্যক্রম শুরু করেন। এ উপলক্ষ্যে পুরাতন হিজলা এলাকায় সুধী সমাবেশ হয়। এতে প্রধান অতিথি পুলিশ সুপার ওয়াহিদুল ইসলাম।
সুধী সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অর্থ) মো. শাহজাহান হোসেন ?(পিপিএম), হিজলা উপজেলা চেয়ারম্যান বেলায়েত হোসেন ঢালী, হিজলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুদীপ্ত সিংহ, বরিশাল জেলা কমিউনিটি পুলিশিং এর সাধারন সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মহিউদ্দিন মানিক বীর বিক্রম, হিজলা-গৌরবদী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম মিলন।
আরো উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম এন্ড অপস) মেহেদী হাসান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বাকেরগঞ্জ সার্কেল) ফরহাদ সরদার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মেহেন্দিগঞ্জ সার্কেল) জিএম মাজহারুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মুলাদী সার্কেল) মতিউর রহমান।
সমাবেশে পুলিশ সুপার জানান, বাকেরগঞ্জ জেলার অধীনে ওই জমি উপর বদরপুর থানা ছিলো। কাগজপত্র পর্যালোচনা করে এখানে এসেছি। প্রভাবশালীরা যে যার মতো করে ভোগ করেছেন। দখলদারদের হাত থেকে এই জমি উদ্ধার করা হয়েছে। স্থানীয়দের দাবির প্রেক্ষিতে এই জমিতে একটি পুলিশ ফাঁড়ি অথবা একটি পুলিশ ক্যাম্প নির্মাণ করা হবে।
সুধী সমাবেশের আগে উদ্ধারকৃত জমিতে বিভিন্ন ধরনের বৃক্ষ রোপন করেন পুলিশ সুপারসহ উপস্থিত অতিথিরা। পরে পুলিশ সুপার হিজলা থানার নবনির্মিত ভবন পরিদর্শন করেন।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT