বিসিসির ৪৪২ কোটি ৭ লাখ ৭১ হাজার ৩৮৭ টাকার প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষনা বিসিসির ৪৪২ কোটি ৭ লাখ ৭১ হাজার ৩৮৭ টাকার প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষনা - ajkerparibartan.com
বিসিসির ৪৪২ কোটি ৭ লাখ ৭১ হাজার ৩৮৭ টাকার প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষনা

3:44 pm , September 7, 2023

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের (বিসিসি) ২০২৩-২০২৪ অর্থবছরে ৪৪২ কোটি ৭ লাখ ৭১ হাজার ৩৮৭ টাকার প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষনা করেছেন বিদায়ী মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ। বর্তমান পরিষদের পঞ্চম ও কর্পোরেশন ২১তম ওই বাজেট বৃহস্পতিবার বিকেলে বরিশাল ক্লাব মিলনায়তনে ঘোষনা করা হয়েছে।
এ সময় ২০২২-২৩ অর্থ বছরের ১৭১ কোটি ৯৮ লাখ ৩৩ হাজার ২৮১ টাকা সংশোধিত বাজেট ঘোষনা করা হয়। বিসিসির ২০২২-২৩ অর্থ বছরে প্রস্তাবিত বাজেট ছিলো ৪১৮ কোটি ৯০ লাখ টাকা।
গত অর্থ বছরের চেয়ে ২৩ কোটি ১৭ লাখ ৭১ হাজার ৩৮৭ টাকা বেশি।
ঘোষিত বাজেটে আয়ের উৎস ধরা হয়েছে নিজস্ব রাজস্ব আয়, সরকারী উন্নয়ন ও রাজস্ব অনুদান এবং সরকারী ও বৈদেশিক সাহয্যপুষ্ট প্রকল্প।
এর মধ্যে রাজস্ব আয় থেকে ২৯.৯১ ভাগ, উন্নয়ন খাতের সরকারী অনুদান ৮.৭০ ভাগ, রাজস্ব খাতে সরকারী অনুদান ২.৭৩ ভাগ এবং সরকারী ও বৈদেশিক সাহয্যপুষ্ট প্রকল্প থেকে ৫৮.৬৬ ভাগ।
অর্থের হিসেবে নিজস্ব রাজস্ব আয় ধরা হয়েছে ১২৫ কোটি ৪৫ লাখ ৯৬ হাজার ১৩৭ টাকা, সরকারী অনুদান (রাজস্ব) ১১৪ কোটি ৫০ লাখ, উন্নয়ন খাতের সরকারী অনুদান ৩৬৫ কোটি এবং সরকারী ও বৈদেশিক সাহয্যপুষ্ট প্রকল্প থেকে ২৪৬ কোটি ৪৭ লাখ ৬ হাজার ৭৯৬ টাকা।
প্রারম্ভিক স্থিতি ধরা হয়েছে ২২৬ কোটি ১৯ লাখ ৮ হাজার ৪৫৪ টাকা। সর্বমোট আয় ধরা হয়েছে ৪১৯ কোটি ৪৫ লাখ ৭২ হাজার ৯৩৩ টাকা। প্রারম্ভিক স্থিতিসহ আয় মোট আয় ধরা হয়েছে ৪৪২ কোটি ৭ লাখ ৭১ হাজার ৩৮৭ টাকা।
মোট উন্নয়ন ব্যয় দেখানো হয়েছে ৩৪৯ কোটি ৫৬ লাখ ৭৬ হাজার ৭৯৬ টাকা। রাজস্ব ও উন্নয়ন ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৩৩ কোটি ৮৫ লাখ ১৪ হাজার ৬১৬ টাকা।
সংশোধনী বাজেটে ২০২২-২৩ অর্থ বছরে নিজস্ব রাজস্ব আয় দেখানো হয়েছে ৮৫ কোটি ৫৩ লাখ ৬৬ হাজার ২৪১ টাকা। ২০২২ সালের জুলাই থেকে ২০২৩ সালের মার্চ পর্যন্ত প্রকৃত রাজস্ব আয় হয়েছে ৬১ কোটি ৪২ লাখ ৭৪  হাজার ৯৮৯ টাকা।
২০২২-২৩ অর্থ বছরে সরকারী অনুদান (রাজস্ব) দেখানো হয়েছে ৩ কোটি ৫০ লাখ ৩৮ হাজার ৪০০ টাকা। ২০২০ সালের জুলাই থেকে ২০২৩ সালের মার্চ পর্যন্ত পাওয়া গেছে ২ কোটি ৬৬ লাখ ৬৫ হাজার ৮১৫ টাকা।
২০২২-২৩ অর্থ উন্নয়ন খাতের সরকারী অনুদান দেখানো হয়েছে ১০ কোটি ৭৪ লাখ ১২ হাজার ৫০০ টাকা। ২০২০ সালের জুলাই থেকে ২০২৩ সালের মার্চ পর্যন্ত পাওয়া গেছে ৩ কোটি ৫৩ লাখ ৫০ হাজার।
২০২২-২৩ সরকারী ও বৈদেশিক সাহয্যপুষ্ট প্রকল্প থেকে ৩৩ কোটি ৩১ লাখ ৮৩ হাজার ৮০৬ টাকা। ২০২০ সালের জুলাই থেকে ২০২৩ সালের মার্চ পর্যন্ত পাওয়া গেছে ২৫ কোটি ১৩ লাখ ২৪ হাজার ৮৩৪ টাকা।
২০২৩-২৪ অর্থ বছরে প্রারম্ভিক স্থিতি ধরা হয়েছে ২২৬ কোটি ১৯ লাখ ৮ হাজার ৪৫৪ টাকা। সর্বমোট আয় ধরা হয়েছে ৪১৯ কোটি ৪৫ লাখ ৭২ হাজার ৯৩৩ টাকা।
প্রারম্ভিক স্থিতিসহ আয় মোট আয় ধরা হয়েছে ৪৪২ কোটি ৭ লাখ ৭১ হাজার ৩৮৭ টাকা।
মোট উন্নয়ন ব্যয় দেখানো হয়েছে ৩৪৯ কোটি ৫৬ লাখ ৭৬ হাজার ৭৯৬ টাকা। রাজস্ব ও উন্নয়ন ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৩৩ কোটি ৮৫ লাখ ১৪ হাজার ৬১৬ টাকা। সমাপনি স্থিতি দেখানো ৮ কোটি ২২ লাখ ৫৬ হাজার ৭৭১ টাকা।
বাজেটে রাস্তা, ড্রেন ও অন্যান্য ভৌত অবকাঠামো নির্মাণ, পুণ.নির্মান ও রক্ষনাবেক্ষনে বরাদ্দ করা হয়েছে ২৭.৪৭ ভাগ, অর্থের হিসেবে ১১৯ কোটি ১৭ লাখ, ৪৯ হাজার ৪৬ টাকা। পরিবেশ উন্নয়ন ও সৌন্দর্যবর্ধন কাজে বরাদ্দ রাখা হয়েছে ২২.৪৫ ভাগ, অর্থের পরিমান ৯৭ কোটি ৩৯ লাখ ৩৯ হাজার ৮৩৮ টাকা।  বর্জ্য ব্যবস্থাপনা খাতে ১৭.০৫ ভাগ। অর্থের হিসেবে যার পরিমান ৭৩ কোটি, ৯৭ লাখ, ৬৭ হাজার ৬ টাকা। সম্মানী, বেতন, বোনাস ও অন্যান্য খাতে বরাদ্দ রাখা হয়েছে ১২.২৫ ভাগ। অর্থের পরিমান ৫৩ কোটি ১৩ লাখ ৬০ হাজার টাকা। খাল ও পুকুর সংরক্ষন খাতে ব্যয় বরাদ্দ ৬.৪৭ ভাগ। অর্থের পরিমান ২৮ কোটি, ৬ লাখ ৭৭ হাজার ৩৫ টাকা। পানি সরবরাহ খাতে ৪.৭৩ ভাগ। অর্থের পরিমান ২০ কোটি ৫১ লাখ ৫০ হাজার টাকা। বিদ্যুত খাতে ৩.৫০ ভাগ। অর্থের পরিমান ১৫ কোটি ২০ লাখ। সামাজিক সুরক্ষা ও কল্যানমুলক ব্যয়ে ১.৯১ ভাগ বরাদ্দ করা হয়েছে। অর্থের পরিমান ৮ কোটি ২৯ লাখ ২৩ হাজার ৫৬৫ টাকা। স্বাস্থ্য খাতে ১.১৪ ভাগ বরাদ্দ রাখা হয়েছে। অর্থের পরিমান ৪ কোটি ৯৫ লাখ ৬৭ হাজার ৮৮ টাকা। এছাড়াও কোভিড মোকাবেলায় ১ কোটি ৭০ লাখ, আইটি খাতে ২ কোটি ৪৪ লাখ, প্রশাসনিক ও অফিস পরিচালনা ব্যয় ১ কোটি ৯৪ লাখ, পরিবহন খাতে ২ কোটি ৯৮ লাখ ৫০ হাজার, শিক্ষাÑসংস্কৃতি- খেলাধুলা-তথ্যপ্রযুক্তি খাতে ৬৮ লাখ ও অন্যান্য খাতে ব্যয় বরাদ্দ রাখ হয়েছে ৩ কোটি ৩৯ লাখ ৩১ হাজার ২০ টাকা। সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ’র সভাপতিত্বে বাজেট বই পাঠ করেন প্যানেল মেয়র গাজী নঈমুল হোসেন লিটু।  এসময় উপস্থিত ছিলেন বরিশাল জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাড একেএম জাহাঙ্গীর, প্যানেল মেয়র এ্যাড. রফিকুল ইসলাম খোকন ও সিটি করপোরেশনের সচিব মাসুমা আকতার প্রমুখ।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT