সৌদি আরব ও নেপালে চাকুরির প্রলোভন ও মানবপাচার অভিযোগে পৃথক দুই মামলা দায়ের সৌদি আরব ও নেপালে চাকুরির প্রলোভন ও মানবপাচার অভিযোগে পৃথক দুই মামলা দায়ের - ajkerparibartan.com
সৌদি আরব ও নেপালে চাকুরির প্রলোভন ও মানবপাচার অভিযোগে পৃথক দুই মামলা দায়ের

3:46 pm , April 2, 2023

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ চাকুরি দেয়ার প্রলোভনে সৌদি আরব ও নেপালে পাচার এবং বিক্রি করার অভিযোগে পৃথক দুই মামলা করা হয়েছে। বরিশাল মানবপাচার অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালে পৃথক দুই মামলা করা হয়েছে। ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মঞ্জুর হোসেন উভয় মামলা এজাহার হিসেবে রুজুর নির্দেশ দিয়েছেন।
একটি মামলার বাদী হয়েছেন বাবুগঞ্জের চাঁদপাশা ইউনিয়নের বকশির চর কাজী বাড়ীর এলাকার আব্দুর রহমান কাজী। তার মামলার আসামীরা হলো-একই ইউনিয়নের খা বাড়ীর বাসিন্দা নান্টু হাওলাদার, ইমরান ও বাপ্পী হাওলাদার। অপর মামলার বাদী হলেন গৌরনদীর ধুড়িয়াল এলাকার নয়ন সরদার। তার মামলার আসামীরা হলো-গোপারগঞ্জের মোকসেদপুর এলাকার তৈয়াব তালুকদারের দুই ছেলে সোহাগ তালুকদার, সজীব তালুকদার, নারায়নগঞ্জের সোনারগাও উপজেলার চর গোয়ালদি এলাকার তরিকুল ইসলাম ওরফে আল আমিন, সুমনা, শাহনেওয়াজ, ইসমাইল হোসেন, সালমা বেগম ও করিম সর্দার।
আব্দুর রহমান কাজী তার মামলায় অভিযোগ করেন তার ছেলে সুজন কাজীকে সৌদি আরবে ভালো চাকুরি ও বেতন দেয়ার প্রলোভন দেয়। পরে সুজনকে সৌদি আরবে পাচার করে। সেখানে সুজন যাওয়ারে পর জানতে পারে তাকে সৌদি আরব এনে বিক্রি করে দিয়েছে। সেখানে সুজনের উপর যৌনসহ শারিরীক নির্যাতন চালানো হয়েছে। বিষয়টি আসামীদের জানানোর পর তারা ৫ লাখ টাকা দাবি করে। দাবির টাকা না দিলে ছেলে সুজনকে হত্যার হুমকি দিয়েছে।
নয়ন সরদারের মামলায় অভিযোগ করা হয়, আসামীরা তাকে মালয়েশিয়া পাঠানোর প্রলোভন দেয়। ওই প্রলোভনে সাড়া দিয়ে তাদের দাবি করা চার লাখ টাকার মধ্যে তিন লাখ টাকা দেয়া হয়। ২০২০ সালের ৮ অক্টোবর তাকেসহ সাত জনকে নেপাল নিয়ে যায়। কাঠমুন্ডুতে একটি আবাসিক হোটেলে রেখে আসামীরা পালিয়ে যায়। পরে তাদের পাওনা এক লাখ টাকা দিলে মালয়েশিয়া পাঠানো হবে বলে জানায়। তখন মোবাইল ফোনের মাধ্যমে বাড়িতে যোগাযোগ করে এক লাখ টাকা পরিশোধ করা হয়। পরে নেপালের অজ্ঞাতনামা লোকেরা এসে জানায়, তাদের শ্রমিক হিসেবে কিনেছেন। আগামী ৫ বছর তাদের শ্রমিক হিসেবে কাজ করতে হবে জানিয়ে জোর করে চারপাশে সীমানা দেয়া একটি স্থানে নিয়ে আটকে রাখে। সেখানে ২৫ দিন থাকার পর পালিয়ে বাংলাদেশীদের সহায়তায় দেশে ফিরেছে নয়ন।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT