আতংঙ্কিত নগরবাসী ও অভিভাবক নগরীতে মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে কিশোর গ্যাং আতংঙ্কিত নগরবাসী ও অভিভাবক নগরীতে মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে কিশোর গ্যাং - ajkerparibartan.com
আতংঙ্কিত নগরবাসী ও অভিভাবক নগরীতে মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে কিশোর গ্যাং

3:39 pm , April 1, 2023

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বরিশাল নগরীতে হঠাৎ মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে কিশোর গ্যাং। নানা রাজনৈতিক ব্যানারে এক একটি গ্রুপের সাথে সংগঠিত হচ্ছে তুমুল মারামারি। যা অনেক ক্ষেত্রে জীবন কেড়ে নেওয়ার মত ঘটনায় রুপ নেয়। গত দু দিনে নগরীতে এ ধরনের পৃথক দুটি ঘটনা ঘটেছে। একটি ঘটনায় একজন সামান্য আহত হলেও অন্য ঘটনাটিতে ২ জনকে মারাতœক ভাবে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। এদের মধ্যে একজনকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। ওই ঘটনায় আহত হয়েছে আরো ৪ জন। বিস্ময়কর বিষয় হলো উভয় ঘটনাই ঘটেছে তারাবী নামাজ পড়ার সময় মসজিদের সামনে ও মসজিদের ভিতরে। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন তারাবীর নামাজের সময় কিশোর ও উঠতি বয়সী ছেলেরা দল বেধে মসজিদগুলোর সামনে আড্ডা দেয়। তাদের তর্কাতর্কি, উচ্চ স্বরে কথায় মুসল্লিদের নামাজে প্রচুর সমস্যা হচ্ছে। কেউ ভয়ে তাদের কিছু বলছে না। কারন একটু কিছু হলেই তারা দলবল বেধে এসে মারধর এমনকি ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা করে। মহানগর পুলিশ বলছে ঘটে যাওয়া কিশোর গ্যাংয়ের দুইটি ঘটনার পর নগরীতে পুলিশের টহল বাড়ানো হয়েছে। নগরীর প্রত্যেকটি ফাড়ি পুলিশ ও থানা পুলিশের একাধিক টিম তারাবী নামাজের সময় জোড়ালো টহল দিচ্ছে। কিশোর গ্যাং যেন কোন ভাবেই নগরীতে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করতে না পারে সেদিকে বিশেষ দৃষ্টি রেখেছেন তারা। পরপর ঘটে যাওয়া এ দুটি ঘটনায় পুরো নগরী জুড়ে আতংঙ্ক উৎকন্ঠা বিরাজ করছে। এক ধরনের ভীতি কাজ করছে অভিভাবকদের মধ্যে।
বুধবার রাতে নগরীর বায়তুল মোকারম জামে মসজিদে তারাবীহ নামাজের সময় মসজিদে কিশোর গ্যাংয়ের হামলায় এক তরুন আহত হয়। তার নাম ওয়াহেদ রেজবী। রেজবীর দাবী ছিলো কিশোর গ্যাংয়ের সদস্য সাকিব, আলফি, আদর, মিজান ও ইমরানসহ অজ্ঞাতনামারা মসজিদে নামাজ পড়তে গিয়ে অন্যকে উত্যক্ত করে। ১০ বছর বয়সী খালাতো ভাই ইফাদকে উত্যক্তের পর মারধর করে। এর প্রতিবাদ করলে নামাজের মধ্যে সাকিব, আলফি, আদর, মিজান ও ইমরানসহ অজ্ঞাতনামারা তাকে বেধরকভাবে মারধর করে। এতে রক্তাক্ত জখম হয়। এ ঘটনায় রিজবীর বাবা মোঃ বুলবুল মিয়া বাদী হয়ে কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যদের বিরুদ্ধে মামলা করেন। যদিও পর্যন্ত এ ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি থানা পুলিশ।
এর পরের দিন তারাবীহ নামাজের সময় নগরীর প্রান কেন্দ্রে বগুরা রোডে অবস্থিত ভুতের বাড়ি মসজিদের সামনে কিশোর গ্যাংদের একটি  গ্রুপ অপর একটি গ্রুপের উপর হামলা চালায়। এসময় দুজনকে বেধড়ক কুপিয়ে জখম করে এবং আরো ৪ জনকে পিটিয়ে আহত করে। যদিও এ ঘটনার সাথে ছাত্রদল  ও জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের দুই শীর্ষ নেতার অনুসারীরা জুড়িত বলে অভিযোগ রয়েছে। এ ঘটনায় থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে দুইজনকে আটক করলেও মামলা দায়েরের পর আর কাউকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়নি থানা পুলিশ।
কোতয়ালী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আমান উল্লাহ আল বারী পরিবর্তনকে বলেন থানা পুলিশ অভিযুক্তদের গ্রেফতাদের জন্য অভিযান পরিচালনা করছে। এছাড়া দুটি ঘটনার পর আমরা নগরীতে বিশেষ করে তারাবীহ নামাজের সময় পুলিশের টহল বৃদ্ধি করেছি। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে নগরীর প্রত্যেকটি ফাড়ি পুলিশ থেকে একটি করে এবং প্রত্যেক থানা থেকে একাধিক টিম টহল দিচ্ছে। তিনি বলেন নগরীতে কিশোর গ্যাংদের দৌড়াত্ব এর আগে তেমন একটা ছিলো না,ভবিষ্যতেও বাড়তে দেওয়া হবে না। এজন্য আমরা সব ধরনের তৎপরতা চালাচ্ছি।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT