এমপি শাহে আলমের সামনে আওয়ামী লীগ নেতাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করলেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ইকবালের ক্যাডাররা এমপি শাহে আলমের সামনে আওয়ামী লীগ নেতাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করলেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ইকবালের ক্যাডাররা - ajkerparibartan.com
এমপি শাহে আলমের সামনে আওয়ামী লীগ নেতাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করলেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ইকবালের ক্যাডাররা

3:59 pm , March 27, 2023

শাকিল মাহমুদ বাচ্চু, উজিরপুর ॥ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসের অনুষ্ঠানে বরিশালের উজিরপুর উপজেলা পরিষদের সামনে রোববার সকালে বরিশাল-২ ( উজিরপুর- বানারী পাড়া ) আসনের সংসদ সদস্য মোঃ শাহে আলমের সামনে উজিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও উজিরপুর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ হাফিজুর রহমান ওরফে  ইকবাল একই কমিটির সহ-সভাপতি মোঃ ইদ্রিস সরদারকে (৪৫) পিটিযে রক্তাক্ত জখম  করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গুরুতরভাবে আহত ইদ্রিস সরদারকে উজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শী, স্থানীয় লোকজন ও আহত সূত্রে জানা গেছে, মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে উজিরপুর  উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সকাল ১০টার দিকে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বরিশাল-২ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ শাহে আলম। সকাল সাড়ে ৯টায় প্রধান অতিথি অনুষ্ঠানস্থলে হাজির হলে তার সঙ্গে উপস্থিত হন উজিরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও উজিরপুর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ হাফিজুর রহমান ওরফে  ইকবাল ও একই কমিটির সহ-সভাপতি মোঃ ইদ্রিস সরদার। এ সময় সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান সাংসদের সামনে ইদ্রিস সরদারকে কটুক্তি করে অশালীন ও অসংলগ্ন মন্তব্য করলে ইদ্রিস তার প্রতিবাদ করলে হাফিজুর রহমান তাকে সাংসদের সামনে মারধর শুরু করেন।
সহ-সভাপতি মোঃ ইদ্রিস সরদার অভিযোগ করে বলেন, এমপির সামনে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান আমাকে নিয়ে কটুক্তি ও অশালীন মন্তব্য করে।  আমি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যানের কথার প্রতিবাদ করলে হাফিজুর রহমান আমার উপর হামলা চালিয়ে মারধর শুরু করে। এ সময় তার সঙ্গে থাকা ছাত্রলীগ ও যুবলীগ ক্যাডার কাজী রিয়াজ (২৭), পলাশ তালুকদার (৩০) ও রুবেল হোসেন (২৫)সহ ৭/৮ জন সন্ত্রাসী ইদ্রিসকে লাঠিপেটা করে রক্তাক্ত জখম করেছে। স্থানীয়রা আহত ইদ্রিসকে উদ্ধার করে উজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। হামলার সময় সংসদ সদস্য শাহে আলমের  ভূমিকা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতারা । উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক  মো: গিয়াসউদ্দিন বেপারী বলেন, সংসদ সদস্যের উপস্থিতিতে দলের একজন নেতা হামলার শিকার হওয়া লজ্জাজনক।
অভিযোগের ব্যাপারে জানতে হাফিজুর রহমানের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তার ব্যবহৃত মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়।  উজিরপুর থানার ওসি মোঃ কামরুল হাসান বলেন, এখনো এ ঘটনায় কোন মামলা হয়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। উল্লেখ্য, হাফিজুর রহমান ইকবাল সংসদ সদস্য শাহে আলমের অনুসারী। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন না পাওয়ায় দলের সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসাবে নির্বাচন করেন।  সাতলা ইউনিয়ন আ.লীগের দায়িত্বে থাকা ইদ্রিস সরদার  নৌকা প্রতীকে কাজ করায় ইকবাল ইদ্রিস সরদারকে দেখে নেয়ার হুমকি দিয়েছিলো। এদিকে উজিরপুর উপজেলা  আওয়ামী লীগের জরুরী সভায় দলের সহ সভাপতি ইদ্রিস সরদারের উপর হামলার ঘটনায় হাফিজুর রহমান ইকবালের ৩ ক্যাডার শিকারপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক  রিয়াজ মিয়া,  বামরাইল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক আতিকুর রহমান পলাশ ও বামরাইলের যুবলীগ নেতা রুবেলকে সংগঠন থেকে বহিস্কার করা হয়েছে।

 

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT