বরিশাল-ঢাকা রুটে বর্ধিত ফ্লাইট বাতিল করেছে বিমান বরিশাল-ঢাকা রুটে বর্ধিত ফ্লাইট বাতিল করেছে বিমান - ajkerparibartan.com
বরিশাল-ঢাকা রুটে বর্ধিত ফ্লাইট বাতিল করেছে বিমান

3:52 pm , March 9, 2023

বিশেষ প্রতিবেদক ॥ যাত্রী চাহিদা অনুযায়ী বরিশাল সেক্টরে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স-এর নতুন সময়সূচী বৃহস্পতিবার থেকে কার্যকর হলেও গ্রীষ্মকালীন সময়সূচীতে বর্ধিত ফ্লাইটটি শেষ পর্যন্ত থাকছে না। উপরন্তু ১ মার্চ থেকে দেশের স্বল্প দূরত্বের বরিশাল সেক্টরে যাত্রী ভাড়া ২শ টাকা বৃদ্ধি করা হয়েছে। যা বেসরকারী এয়ারলাইন্স-এর চেয়ে ৪শ টাকা বেশী।
আগামী ২৫ মার্চ থেকে শনিবারেও বরিশাল সেক্টরে ৪র্থ ফ্লাইট চালুর কথা ছিল। সে অনুযায়ী বিমান-এর সেন্ট্রাল কন্টোল থেকে শনিবার সকাল ৮টা ২৫ মিনিটে  ঢাকা থেকে এবং সকাল সাড়ে ৯ টায় বরিশাল থেকে ফ্লাইট চলাচলের তফসিলও দেয়া হয়েছিল। বরিশাল সেলস অফিস থেকে সে ধরনের প্রস্তুতিও গ্রহণ করা হচ্ছিল। কিন্তু রহস্যজনক কারণে ঘোষিত সিডিউলে শেষ পর্যন্ত শনিবারের ফ্লাইটটি বাতিল করা হয়েছে। মাসখানেক আগে ঘোষিত গ্রীষ্মকালীন সিডিউলে বরিশালে ৪র্থ ফ্লাইট হিসেবে মঙ্গলবার দুপুরে ফ্লাইট ঘোষণা করা হয়। কিন্তু আগে থেকেই বরিশাল সেক্টেরে বৃহস্পতিবার বিকেলে এবং অন্য সবগুলো দিন সকালে ফ্লাইটের দাবী ছিল যাত্রীদের। মন্ত্রণালয় সহ সরকারের বিভিন্ন মহল থেকেও একই বিষয়ে বিমান কর্তৃপক্ষের মনযোগ আকর্ষণ করা হলে ৯ মার্চ থেকে যাত্রী সুবিধা অনুযায়ী বৃহস্পতিবার বিকেল সোয়া ৪টায় এবং শুক্র ও রোববার সকাল ৮টা ২৫ মিনিটে নতুন সময়সূচী কার্যকর করেছে বিমান। পাশাপাশি মঙ্গলবারে ফ্লাইটটি শনিবারে নির্ধারন করা হয়েছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত শনিবারের ফ্লাইটটি বাতিল করার কারণ সম্পর্কে কোন মহল থেকেই সুস্পষ্ট কিছু বলা হয়নি। বিষয়টি নিয়ে বিমান-এর সেন্ট্রাল কন্ট্রোল ও মার্কেটিং বিভাগের বক্তব্যের কোন মিল খুঁজে পাওয়া যায়নি। করোনা মহামারীর কারণে বন্ধের পরে স্বাধিনতার সূবর্ণ জয়ন্তির প্রভাতে ২০২১ সালের ২৬ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে বরিশালের আকাশে আবার ডানা মেলে জাতীয় পতাকাবাহী বিমান। প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের সরাসরি নির্দেশে বরিশাল সেক্টরে নিয়মিত ওই ফ্লাইট চালু করা হলেও গত বছর পদ্মা সেতু চালুর অজুহাত তুলে ৫ আগষ্ট থেকে বরিশাল সেক্টরে জাতীয় পতাকাবাহী বিমান-এর নিয়মিত ফ্লাইট সপ্তাহে ৩ দিনে হ্রাস করা হয়। তবে এজন্য প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর বা মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন দূরের কথা অবহিত পর্যন্ত করেননি তৎকালীন ব্যাবস্থাপনা পরিচালক।
বিষয়টি নিয়ে দক্ষিণাঞ্চলের আমজনতা সহ সব জন প্রতিনিধিরা পর্যন্ত হতাশ ও ক্ষুব্ধ। এমনকি বিভিন্ন মহল থেকে এব্যাপারে বিমান চলাচল মন্ত্রণালয় সহ সরকারের উচ্চ পর্যায়ের হস্তক্ষেপও কামনা করা হয়েছে। অভিযোগ রয়েছে, বেসরকারী এয়ারলাইন্সকে সুবিধা প্রদানের লক্ষ্যেই বিমানের একটি কুচক্রী মহল কোন ধরণের যুক্তিগ্রাহ্য কারণ ছাড়াই গত ৫ আগষ্ট থেকে বরিশাল সেক্টরে নিয়মিত ফ্লাইট সপ্তাহে ৩দিনে হ্রাস করা হয়। এমনকি সাধারন যাত্রীদের দাবী অনুযায়ী ফ্লাইট বৃদ্ধি করা হচ্ছেনা। অথচ পদ্মা সেতু চালুর পরেও বেসরকারী ইউএস বাংলা এখনো কোন কোন দিন দেশের স্বল্প দূরত্বের বরিশাল সেক্টরের একপথে ১০ হাজার  ৬শ টাকায়ও টিকেট বিক্রী করছে। যা ঢাকা থেকে কোলকাতার ভাড়ার চেয়েও বেশী।
তবে নানামুখি আত্মঘাতি কর্মকান্ড ও যাত্রী বিরূপ সময়সূচীর পরেও গত বছর বরিশাল সেক্টরে বিমানের যাত্রী ভ্রমনের হার ছিল ফ্লাইট প্রতি ৭০%-এরও বেশী। এমনকি বরিশাল সেলস অফিসে রাজস্ব আয় লক্ষ্যমাত্রার প্রায় দ্বিগুনেরও বেশী বলে একাধিক সূত্র জানা গেছে।
এসব বিষয়ে ইতিপূর্বে বিমান-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক শফিউল আজিম-এর সাথে সেল ফোনে আলাপ করা হলে তিনি বলেন ‘বরিশাল সেক্টর নিয়ে ইতিবাচক পদক্ষেপ গ্রহণের চেষ্টা চলছে। বরিশাল সেক্টরের ফ্লাইট সময়সূচী যাত্রী বান্ধব নয়’ বলে স্বীকার করে তিনি বলেন, এরফলে ‘ফ্লাইট লোড হ্রাস’ পেয়েছে। সব কিছু বিবেচনায় নিয়েই ইতিবাচক ধারায় ফেরার চেষ্টা চলছে।
এ ব্যাপারে বিমান-এর পরিচালক প্রশাসন এবং মার্কেটিং ও সেলস সিদ্দিকুর রহমান ‘এয়ারক্রাফট ও ক্রু সংকটের কারণে বরিশাল সেক্টর নিয়ে কিছু সমস্যার কথা জানিয়ে বিদ্যমান ফ্লাইটের পাশাপশি বরিশাল থেকে চট্টগ্রামেরও ফ্লাইট চালুর বিষয়টি বিবেচনায় রয়েছে বলে জানিয়েছিলেন। তবে আসন্ন গ্রীষ্মকালীন সময়সূচীতেও বরিশাল সেক্টেরে একটি ফ্লাইট বাড়ানোর যে সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছিল তাও বিলীন হওয়ায় হতাশ ও ক্ষুব্ধ সাধারন যাত্রী।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT