স্বরূপকাঠিতে প্রতারণার শিকার গৃহবধূর আত্মহত্যা স্বরূপকাঠিতে প্রতারণার শিকার গৃহবধূর আত্মহত্যা - ajkerparibartan.com
স্বরূপকাঠিতে প্রতারণার শিকার গৃহবধূর আত্মহত্যা

4:08 pm , February 25, 2023

স্বরূপকাঠি প্রতিবেদক ॥ স্বরূপকাঠিতে প্রতারণার শিকার হয়ে মৌসুমী জেসমিন (১৯) নামে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন। বৃহস্পতিবার বিকেলে উত্তর ছারছিনাস্থ বসতঘরের আড়ার সাথে ঝুঁলে আত্মহত্যা করে সে। ময়না তদন্ত শেষে শনিবার রাতে লাশ দাফন করা হয়েছে। জেসমিনের পিতা জাহাঙ্গীর হোসেন শনিবার রাতে সাংবাদিকদের জানান, তার মেয়েকে আত্মহত্যায় বাধ্য করা হয়েছে। তিনি বলেন, প্রায় এক বছর পূর্বে সুটিয়াকাঠি গ্রামের জামাল হোসেনের ছেলে জসীমের সাথে পারিবারিক ভাবে মৌসুমির সম্মতিতেই  বিয়ে হয়। বিয়ের পূর্বে প্রতিবেশি নিপু কামালের ছেলে সিয়ামের সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক ছিল। বিয়ের পর থেকে সিয়াম নানাভাবে ছবি পাঠিয়ে ফোন করে জসীম ও মৌসুমির মধ্যে দূরত্মের সৃষ্টি করে। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে বিচ্ছেদ হয়ে যায়। এর পর সিয়াম মৌসুমীকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। কিন্তু সিয়ামের পরিবার বিয়েতে রাজি না হওয়ায় জাহাঙ্গীর মেয়েকে পুনরায় স্কুলে ভর্তি করে দেন। কিন্তু সিয়াম নানা প্রলোভনে  সম্পর্ক জোরদার করে দুই মাস পূর্বে মৌসুমিকে নিয়ে ঢাকা চলে যায়। সেখানে তারা ২ লাখ টাকার কাবিন করে বিয়ে করে। দুইমাস পরে গত সপ্তাহে সিয়ামের মা অসুস্থ্য হলে তাকে খবর দেয়। সিয়াম মৌসুমিকে নিয়ে বাড়ী গেলে তার পিতা ঘরে তুলতে দেননি। এসময় এলাকার ইউপি সদস্য দেব কুমার সমদ্দারের কাছে গেলে তিনি মৌসুমির চাচার ঘরে মৌসুমিকে তুলে দেন। অপর দিকে সিয়াম গা ঢাকা দেওয়ার চেষ্টা করলে জাহাঙ্গীর তাকে ধরে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আল আমিনের কাছে নিয়ে যায়। অসুস্থ মাকে দেখার জন্য ঢাকা যেতে চাইলে চেয়ারম্যান তাকে যেতে দেন। এরপর সিয়ামের বাবা নিপু কামাল বাড়ী এলে চেয়ারম্যান ও মেম্বার মিলে শালিস বৈঠকে বসেন। তারা সিয়ামকে বাড়ী আনার জন্য বলেন। ওইদিন দুপুরে মৌসুমী আত্মহত্যা করে। মৌসুমির স্বজনদের বক্তব্য চেয়ারম্যান মেম্বারের কথায় ভরসা না পেয়ে মৌসুমী আত্মহননের পথ বেছে নিয়েছে। তারা আরো বলেন, চেয়ারম্যান মেম্বারের ভূমিকা ছিল সিয়ামের বাবা নিপু কামালের পক্ষে।  মেম্বার দেব কুমার সমদ্দার বলেন, আমি ঘটনাটি জানার পর থেকেই একটি সুষ্ঠু সমাধানের চেষ্টা করেছি। কিন্তু ওরা ভুল বুঝে আমাকে দোষারোপ করছে। ৩ নং স্বরূপকাঠি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আল আমিন বলেন, আমি আন্তরিক ভাবে বিষয়টি মিমাংসার জন্য চেষ্টা করেছি।  কিন্তু এমন একটা অঘটন ঘটবে তা ভাবতেও পারিনি। এ বিষয়ে নেছারাবাদ থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মো. জাফর আহম্মেদ জানান, খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্ত শেষে পিতার কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT