কাদেরের মতোই এ সরকার ধপাস করে পড়ে য়াবে : গয়েশ্বর কাদেরের মতোই এ সরকার ধপাস করে পড়ে য়াবে : গয়েশ্বর - ajkerparibartan.com
কাদেরের মতোই এ সরকার ধপাস করে পড়ে য়াবে : গয়েশ্বর

3:21 pm , January 25, 2023

বিশেষ প্রতিবেদক ॥ বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ ও সাবেক মন্ত্রী গয়েশ্বর রায় বলেছেন, নির্বাচন নিয়ে কোনো প্রস্তুতি বিএনপির প্রয়োজন নেই। শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় রেখে এদেশে কোনো নির্বাচনের কথা বলবেন না। বর্তমান সরকারকে হটিয়ে নির্বাচন করা গেলে দেশের জনগন আর যাই হউক নৌকায় ভোট দেবে না।
২৫ জানুয়ারী গণহত্যা দিবস উপলক্ষে বরিশাল জেলা ও মহানগর বিএনপির উদ্যোগে আয়োজিত সমাবেশে প্রধান অতিথি গয়েশ্বর রায় মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী বাংলাদেশে রাষ্ট্রপতি শাসিত শাসন ব্যবস্থায় সিরাজ সিকদারকে হত্যা ও জহির রায়হানের গুম হওয়ার ইতিহাস তুলে ধরেন। কীভাবে বাকশাল গঠিত হয় ও একনায়কতন্ত্র চালু হয় তার বিষদ বিবরণ তুলে ধরে তিনি ওই  সময়ের দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকা পড়ার অনুরোধ জানিয়ে বলেন, এগুলো  আমার বানানো কথা নয়, দৈনিক ইত্তেফাকে প্রকাশিত সত্য। যার প্রমাণ আজো রয়েছে। গয়েশ্বর রায় বলেন, আওয়ামী লীগ বারবার সংবিধানের দোহাই দিচ্ছে। তারা কতবার তা পরিবর্তন করেছে? আওয়ামী লীগ নিজেই তো ৭২ সংবিধানে থাকেন নাই। তাই সংবিধান পরিবর্তন কোনো অপরাধ নয়। নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনেই নির্বাচন হতে হবে বলে জোর দাবী জানান বিএনপির এই নেতা। তিনি বলেন, আজ আদালতে বিচারপতিরা ন্যায় বিচার করতে পারেন না। বর্তমানে সকল আদালত চলে উপরের নির্দেশে। তাই শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় রাখার সময় আর বেশি দিন নাই তার সময় শেষ হয়ে আসছে । কাদেরের মতোই এ সরকার
ধপাস করে পড়ে য়াবে।
গয়েশ্বর বলেন, দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা ভয়াবহ কোন ব্যাংকে টাকা নাই। লুটপাট দূর্নীতির মাধ্যমে শেষ করে দিয়েছে যার ফলে ব্যবসায়ীরা আজ এলসি খুলতে পারছে না। তিনি এসময় দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে বলেন, আমাদের গণতন্ত্র উদ্ধারের জন্য যুদ্ধ শুরু হয়ে গেছে আপনারা সকলেই প্রস্তুত হন।
১৯৭৫ সালের ২৫ জানুয়ারি তৎকালীন আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় থাকার চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত করার লক্ষ্যে বহুদলীয় গণতন্ত্রকে গলাটিপে হত্যা করে একদলীয় সরকার ব্যবস্থা বাকশাল কায়েম করে বলে দাবী তোলেন বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া। ২০১৩ সালে দেয়া তার এক ভাষণে একথা স্পষ্ট উল্লেখ রয়েছে। সেই থেকে বিএনপি নেতৃবৃন্দ   সারাদেশে ২৫ জানুয়ারীকে গণহত্যা দিবস হিসেবে পালন করছে। যার ধারাবাহিকতায়
বরিশালের সদর রোডে অশ্বিনী কুমার টাউন হল সংলগ্ন আয়োজিত এই সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক মনিরুজ্জামান খান ফারুক।
এদিকে সমাবেশ শুরুর পরপরই কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের সামনেই তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে চেয়ার ছোড়াছুড়ি করে ছাত্রদল ও স্বেচ্ছাসেবকদলের নেতাকর্মীরা। তবে তা খুবই অল্পসময়ের জন্য।  এ সময় মঞ্চ থেকে শ্লোগান তুলে তা থামানোর চেষ্টা করা হয়। তাতেও না হলে মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব মীর জাহিদুল কবির জাহিদ ও যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাজহারুল হাসান জাহান মঞ্চ থেকে নেমে পরিস্থিতি শান্ত করেন। এর আগে বেলা ১১টায় সমাবেশ শুরু হলে এতে আলোচনায় অংশ নেন কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আকন কুদ্দুসুর রহমান, মাহবুবুল হক নান্নু, উত্তর জেলা দক্ষিন বিএনপির আহবায়ক আবুল হোসেন খান, মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব মীর জাহিদুল কবির জাহিদ, জেলা বিএনপির সদস্য সচিব আবুল কালাম শাহীন। সমাবেশে সঞ্চালনার দায়িত্বে ছিলেন উত্তর জেলা বিএনপির সদস্য সচিব মিজানুর রহমান মুকুল। সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক কাজী রওনোকুল ইসলাম টিপু, সাবেক বরিশাল জেলা বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব এবায়েদুল হক চাঁন, মহানগর বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক আলী হায়দার বাবুল, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সোবাহান, বরিশাল উত্তর জেলা বিএনপির আহবায়ক দেওয়ান মোঃ শহিদুল্লাহ, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক এইচএম তছলিম উদ্দীন, মহানগর শ্রমিকদলের আহবায়ক ফয়েজ আহমেদ খান, জেলা শ্রমিকদলের সাধারন সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, উত্তর জেলা যুবদলের সদস্য সচিব গোলাম মোর্শেদ মাসুদ, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক মসিউর রহমান মঞ্জু, জেলা স্বেচ্ছাসেবকদলের সদস্য সচিব কামরুল ইসলাম,বরিশাল জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মাহফুজুল আলম মিঠু।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT