হেলমেট ও মুখোশ পরে ববি ছাত্রাবাসে প্রবেশ করে ছাত্রলীগ নেতাসহ তিনজনকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত হেলমেট ও মুখোশ পরে ববি ছাত্রাবাসে প্রবেশ করে ছাত্রলীগ নেতাসহ তিনজনকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত - ajkerparibartan.com
হেলমেট ও মুখোশ পরে ববি ছাত্রাবাসে প্রবেশ করে ছাত্রলীগ নেতাসহ তিনজনকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত

3:57 pm , January 24, 2023

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ হেলমেট ও মুখোশ পরে বরিশাল বিশ^বিদ্যালয়ের ছাত্রাবাসে প্রবেশ করে ছাত্রলীগ নেতাসহ তিনজনকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়েছে। মঙ্গলবার ভোরে বিশ^বিদ্যালয়ের শের ই বাংলা হলের ৪০১৮ নম্বর কক্ষে এ ঘটনা ঘটে বলে পুলিশ ও আহত ছাত্রলীগ নেতা জানিয়েছেন। আহত ছাত্রলীগ নেতা মহিউদ্দিন আহমেদ সিফাত ও জিএম ফাহাদ বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তবে অপর জন জিহাদ গুরুতর আহত না হওয়ায় ভর্তি হয়নি বলে জানিয়েছেন ছাত্রলীগ নেতা সিফাত।
আহত সিফাত বলেন, ভোর রাত সাড়ে ৫টার দিকে হেলমেট ও মুখোশ পরে ১০/১৫ জনের একটি দল কক্ষে প্রবেশ করে। তাদের সকলের হাতে রামদা, বগি দাসহ দেশীয় ধারালো অস্ত্র, হকিষ্টিক, জিআই পাইপ ও রড ছিলো। তারা কক্ষে প্রবেশ করে তিন জনকে এলোপাথাড়িভাবে পিটিয়ে কুপিয়ে আহত করে ফেলে রেখে যায়। সিফাত বলেন, তার দুই পা, শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষত জখম রয়েছে। হাতের তিনটি আঙ্গুল পিটিয়ে ভেঙ্গে ফেলেছে। সিফাতের অভিযোগ হামলাকারীরা তার দুই পায়ের রগ কাটারও চেষ্টা করেছে। হামলাকারীদের মধ্যে বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আলিম সাহানী, অমিত হাসান রক্তিম, বাকি, রিয়াজ মোল্লা ও সৈয়দ জিসানকে চিনতে পেরেছেন জানিয়ে সিফাত বলেন, বহিরাগতরাও ছিলো। হামলার কারন সম্পর্কে কোন ধারনা নেই জানিয়ে সিফাত বলেন, বিশ^বিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের কোন কমিটি নেই। তিনি ছাত্রলীগের বিশ^বিদ্যালয় শাখার সভাপতি পদ প্রত্যাশী। বরিশাল সিটি মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহর অনুসারী। সিফাতের ধারনা বরিশাল বিশ^বিদ্যালয় থেকে সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ’র রাজনীতি বন্ধ করতে প্রতিপক্ষ এ ঘটনা ঘটিয়েছে। তবে প্রতিপক্ষ কে বা কারা তাদের নাম বলেননি সিফাত।
এ ঘটনায় মামলা করবেন কিনা জানতে চাইলে সিফাত বলেন, এখনও সিদ্ধান্ত হয়নি।
প্রত্যক্ষদর্শী হলের আবাসিক ছাত্র জিয়া বলেন, ফজরের আজানের পর সাড়ে ৫টার দিকে হঠাৎ করে ১০/১৫ জন হেলমেট পরিহিত অবস্থায় হলে প্রবেশ করে। এরপর তারা সকল রুম বাইরে থেকে আটকে দেয়। পরে তারা সিফাতকে রুম থেকে টেনে হিছড়ে বের করে পিটিয়ে ও কুপিয়ে এবং জিএম ফাহাদের হাত ভেঙে দেওয়ার পাশাপাশি তাকে কুপিয়ে জখম করেছে। এরপর আহত অবস্থায় তাদের দুইজনকে বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
বরিশাল বিশ^বিদ্যালয় পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ এসআই মশিউর রহমান বলেন, হলের কক্ষে মুখোশধারীরা প্রবেশ করে দুই জনকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে আহত করেছে। কারা হামলা করেছে এখনও নিশ্চিত নই। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ চাওয়া হয়েছে। ফুটেজ পেলে হামলাকারীদের চিহিৃত করার চেষ্টা করা হবে।
অভিযোগের বিষয়ে ছাত্রলীগ নেতা রিয়াজ মোল্লা সাংবাদিকদের বলেন, সিফাতের বিরুদ্ধে সাধারণ শিক্ষার্থীরা ঐক্যবদ্ধ। তারা সিফাতের অপকর্মের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়ে তাকে প্রতিহত করেছে বলে আমার ধারণা।
এছাড়া সিফাত বিশ্ববিদ্যালয়ের আশে-পাশের এলাকায় জমি দখল থেকে শুরু নানা ধরণের অপরাধের সাথে জড়িত ছিলো। বহু মানুষ তার উপর ক্ষিপ্ত। এখন মূলত কারা তার উপর হামলা করেছে সেটা বলতে পারবো না।
বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শেরে বাংলা হলের প্রভোস্ট আবু জাফর বলেন, বিশ^বিদ্যালয়ের গনিত বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী সিফাত ও লোকপ্রশাসন বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী ফাহাদের উপর অতর্কিত হামলায় তারা গুরুতর আহত হয়েছে। হামলাকারীদের চিহিৃত করা যায়নি। পুরো বিষয়টি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন দেখছে।
বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানিয়েছে, সিফাতের নানা অপকর্ম নিয়ে অতিষ্ঠ ছিলো শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগের তার গ্রুপের অন্যান্য কর্মীরা। শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের ক্ষোভে এই হামলা। শিক্ষার্থীরা জানায়, সিফাতের উপর হামলায় যাদের নাম উঠে এসেছে,  তাদের মধ্যে আলিম সালেহী, সৈয়দ জিসান আহম্মেদ ও রিয়াজ মোল্লা সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহর অনুসারী।  অমিত হাসান রক্তিম পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক শামীমের অনুসারী ছাত্রলীগ নেতা।
বিশ^বিদ্যালয়ে আধিপত্য বিস্তা নিয়ে সিফাত ও রক্তিম গ্রুপের মধ্যে একাধিকবার সংঘর্ষসহ নানা ঘটনা ঘটেছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT