পরোপকারী বন্ধু প্রিয় সাংবাদিক ছিলেন মাসুদ রানা পরোপকারী বন্ধু প্রিয় সাংবাদিক ছিলেন মাসুদ রানা - ajkerparibartan.com
পরোপকারী বন্ধু প্রিয় সাংবাদিক ছিলেন মাসুদ রানা

3:54 pm , January 17, 2023

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ পরোপকারী ও বন্ধুপ্রিয় ছিলেন সাংবাদিক মাসুদ রানা। ক্যান্সারে আক্রান্ত ছাত্রীর মায়ের চিকিৎসার জন্য ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা করে দুর্ঘটনার শিকার হয়ে থেমে গেছে তার জীবন।
বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার রাজিহার ইউনিয়নের লখারমাটিয়া গ্রামের সোবাহান মৃধার ছেলে মাসুদ রানা নগরীর ব্রাউন কম্পাউন্ড এলাকায় স্ত্রীকে নিয়ে ভাড়া বাসায় বাস করতেন।
বরিশাল নগরী থেকে প্রকাশিত বিডিবুলেটিন নামের অনলাইন নিউজ পোর্টালের প্রধান বার্তা সম্পাদক ও দৈনিক নবচেতনার বরিশালের ব্যুরো প্রধান ছিলেন তিনি।
বরিশালের সাংবাদিকদের সাথে সু-সম্পর্ক ছিলো মাসুদ রানার। পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার আদিবাসী পরিবারের কন্যা মালা রাখাইনের সাথে দীর্ঘ প্রেমের সম্পর্কের পর পাঁচ বছর পূর্বে তারা বিয়ে করেন। বর্তমানে নি:সন্তান এ দম্পত্তির নগরীর আমতলা মোড় এলাকায় জনপ্রিয় একটি রেষ্টুরেন্টও রয়েছে। স্বনামধন্য এ রেষ্টুরেন্ট কাচ্ছিখানা স্ত্রী মালা রাখাইনকে উপহার হিসেবে দিয়েছেন বলে জানান সহকর্মী সৈয়দ মেহেদী হাসান।
তিনি বলেন, তার স্ত্রী স্বাবলম্বী হওয়ার ইচ্ছা পোষন করেণ। তাই তাকে স্বাবলম্বী করতেই কাচ্ছিখানা করে দিয়েছেন।
স্বামীকে হারিয়ে মালা রাখাইনের আহাজারিতে লখার মাটিয়া গ্রামের বাড়িতে আসা হাজারো মানুষ অশ্রুসজল হয়ে পড়ে বলে জানিয়েছেন ঘটনাস্থলে থাকা আগৈলঝাড়া উপজেলার জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক আজাদ রহমান।
তিনি জানান, মাসুদ রানাকে তার স্ত্রী মালা রাখাইন পাখি বলতে ডাকতো। তাকে হারিয়ে মালা প্রলাপ বকছে ‘আমার পাখি হারিয়ে গেছে’। আমাকে তো কেউ আর ‘জান’ বলে ডাকবে না। প্রলাপের সাথে সাথে উচ্চ স্বরে আহজারি করছে মালা রাখাইন।
মাসুদ রানা সাংবাদিকতা পেশার সাথে সাথে বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথেও জড়িত ছিলো বলে জানিয়েছেন এফএফএল বিডিফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক মামুনুর রশিদ নোমানী। তিনি বলেন, মাসুদ রানা একজন সামাজিক সচেতন ও সজ্জন ব্যক্তি ছিলেন। বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে তার সরব উপস্থিতি ছিলো।
নোমানী বলেন, তাদের পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম, শিক্ষার্থীদের নৈতিক ও প্রযুক্তি শিক্ষাদান, মাদক বিরোধী প্রচারনা এবং স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসুচীতে সব সময় ভূমিকা রাখতো। দেশের বিভিন্œ জাতীয় দিবসের নানা কর্মসূচীতে স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে কাজ করতো।
অনলাইন নিউজ পোর্টাল বিডিবুলেটিনের সম্পাদক ও প্রকাশক কাজী আফরোজা বলেন, একজন বিশ্বাসী সংবাদকর্মী ছিলেন। দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে বিডিবুলেটিনের প্রধান বার্তার দায়িত্বে ছিলেন। খুব ভালো একজন মানুষ ছিলো সে। ঘটনাস্থলে থাকা সংবাদকর্মী ও মাসুদ রানার দীর্ঘদিনের সহকর্মী তন্ময় তপু বলেন, আর দেখা হবে না, হাসি-ঠাট্টা ফূর্তি হবে না। এটা মানতেই পারছি না। কয়েকদিন তার সাথে দেখা হয়নি। পরিকল্পনা ছিলো আগামী শুক্রবার একসাথে খাওয়া দাওয়া করবো। কিন্তু সেই পরিকল্পনা থমকে দিয়েছে একটি দুর্ঘটনা। তপু জানান, বিকেল তিনটায় সহকর্মীর লাশ গ্রামের বাড়িতে এসে পৌঁছেছে। মাগরিবের নামাজের পর জানাজা শেষে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হবে বন্ধু প্রিয় এ মানুষটিকে।
মাসুদ রানা একদিন পূর্বে সর্বশেষ ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন। আগৈলঝাড়া উপজেলার এতিহ্যবাহী মার্বেল মেলা নিয়ে তার তৈরি করা ভিডিও প্রতিবেদন শেয়ার করেছেন। যা দৈনিক নবচেতনার অনলাইনে প্রচার হয়েছে।
দুইদিন পূর্বে আরেকটি ষ্ট্যাটাস দিয়েছিলেন এক বন্ধুকে সাথে নিয়ে কয়েকটি ছবি দিয়ে। ২০২৩ সালের প্রথম ছবি দুই বন্ধু মহাশূন্যে ক্যাপশন দিয়ে  চারটি ছবি দিয়েছিলেন মাসুদ রানা। সামাজিক কর্মকান্ডে অংশ নেয়ার ছবিও রয়েছে ফেসবুক আইডিতে।মাসুদ রানার স্বজন বাপ্পি সাংবাদিকদের বলেন, এলাকা থেকে বরিশালে কেউ গেলেই কিভাবে কি করবেন, কি আপ্যায়ন করবেন তা নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়তেন। কোনো সাহায্যের জন্য বললে কোনো কিছু না ভেবেই করতেন। নিজের জন্য যা করেনি তার থেকে বহুগুন অন্যের জন্য করেছে মাসুদ ভাই। নিহত নূরজাহান বেগমের স্বজন ইয়াসিন মল্লিক সাংবাদিকদের বলেন, নূরজাহান বেগম আমার ভাবি। আমার ভাই লতিফ মল্লিক আমেরিকা প্রবাসী। এই ঘরে তার একটি মেয়ে লুৎফুন্নাহার লিমা। সেও দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। এছাড়া মারা যাওয়া ফজলে রাব্বি হলো আমার মামাতো ভাইয়ের ছেলে। সাংবাদিক মাসুদ রানা হলেন লুৎফুন্নাহার লিমার শিক্ষক। তিনি জানান, নূরজাহান বেগম দুইমাস ধরে অসুস্থ ছিলেন। এজন্য তারা বরিশাল নগরীর কলেজ এভিনিউ লতিফ ম্যানশনে নিজের বাসায় ছিলেন। সোমবার রাত ১১ টার দিকে নূরজাহান বেগম অসুস্থ হয়ে পড়লে বরিশাল নগরীর কেএমসি হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখান থেকে ঢাকায় পাঠানোর পরামর্শ দেন। রাত ১ টার দিকে লতিফ ম্যানশনের সামনে থেকে যাত্রা করেন বলে জানান ওই ম্যানশনের একটি মাদ্রাসার শিক্ষক আব্দুর রহিম।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT