বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর গণবিরোধী সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর গণবিরোধী সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ - ajkerparibartan.com
বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর গণবিরোধী সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ

3:07 pm , January 16, 2023

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বিদ্যুতর দাম বাড়ানো গণবিরোধী সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবিতে নগরীতে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় নগরীর অশ্বিনী কুমার হল চত্বরে বিক্ষোভ সমাবেশ করে গণসংহতি আন্দোলন বরিশাল কমিটি। সমাবেশ শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয় যা নগরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। বরিশাল জেলা কমিটির আহ্বায়ক দেওয়ান আবদুর রশিদ নীলুর সভাপতিত্বে ও জেলা কমিটির সদস্য সাকিবুল ইসলাম সাফিনের সঞ্চালনায় সমাবেশে বক্তব্য রাখেন গণসংহতি আন্দোলন বরিশাল জেলার সদস্য সচিব আরিফুর রহমান মিরাজ, নজরুল ইসলাম খান, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন বরিশাল জেলার সভাপতি মো. জাবের, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের আহ্বায়ক জামান কবির। এসময় নেতৃবৃন্দ বলেন, তড়িঘড়ি করে বিদ্যুতের দাম ৫ শতাংশ বাড়িয়েছে সরকার। এর আগে গত আগষ্ট মাসে জ্বালানী তেলের দাম বাড়িয়েছে রেকর্ড পরিমানে। গত জুনে বেড়েছে গ্যাসের দাম। এখানেই শেষ নয় বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী বলে দিয়েছেন মাসে মাসে সমন্বয় হবে জ্বালানীর দাম। উপুর্যপরি এমন গণবিরোধী সিদ্ধান্ত তারাই নিতে পারে যাদের সাথে জনগণের কোন সংযোগ নেই, জবাবদিহিতা নেই। এসব সিদ্ধান্তের মাধ্যমে সরকার তার প্রতিটি দুর্নীতির দায় জনগনের উপরে চাপিয়ে দিয়ে সাধারণ মানুষকে চরম ভোগান্তিতে ফেলছে।  নেতৃবৃন্দ বলেন, বিদ্যুতের বর্ধিত মূল্যের প্রভাব সর্বস্তরে পড়বে। দেশে সামগ্রিক ভাবে বিদ্যুৎ উৎপাদন বাড়লেও বিদ্যুৎ খাতের দক্ষতা বাড়েনি। ভাড়া ভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র, অদক্ষ বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র, ডিজেল ভিত্তিক উৎপাদন কেন্দ্র, অদক্ষ সঞ্চালন লাইন এসব সমস্যা সমাধান না করে বারবার দাম বাড়িয়ে জনগনের ভোগান্তি বাড়াচ্ছে সরকার। আবার দাম বাড়লেও নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুতের নিশ্চয়তা কখনোই পাওয়া যাচ্ছে না। নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, অবিলম্বে ক্যাপাসিটি চার্জের নামে ভাড়াভিত্তিক
বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলোকে ভর্তুকি দেয়া বন্ধ করতে হবে।  গ্যাস উত্তোলনে রাষ্ট্রীয় সংস্থা বাপেক্সকে আধুনিয়কায়ন করে জ্বালানী উত্তোনের সক্ষমতা বাড়াতে হবে। এলএনজি আমদানি নীতি সম্পূর্ণ লুটপাট নির্ভর। দেশীয় সম্পদ লুন্ঠনের মাধ্যমে হাজার হাজার কোটি টাকা পাচারের যে মহোৎসব আওয়ামী লীগ সরকার করে যাচ্ছে তার বিরুদ্ধে জনগনের বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। সরকার তার গোষ্ঠী স্বার্থ রক্ষার জন্য টেকসই জ্বালানি নিশ্চিত না করে যেমন আমদানি নির্ভর হয়েছে তেমনি কতিপয় ব্যাবসায়িকে লুটপাট করার জন্য ভাড়া ভিত্তিক রেন্টাল, কুইক রেন্টাল ব্যবস্থা গ্রহন করেছে। যার ফলে দেশের স্থল ভাগে গ্যাস উত্তোলন কিংবা দেশীয় সক্ষমতায় জ্বালানী নির্ভর কোন পরিকল্পনা নেয়া হয়নি। দীর্ঘদিন আমরা নবায়নযোগ্য জ্বালানি ক্ষেত্রে বিনিয়োগের কথা বললেও সরকার ন্যূনতম কর্ণপাত করছে না। বরং সরকার বিদ্যুৎ খাতের সকল দুর্নীতি ও লুটপাটের বৈধতা দেয়ার জন্য দায়মুক্তি আইন পাশ করেছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT