নগরীতে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ব্যাটারিচালিত যানবাহন ॥ প্রতিনিয়ত ঘটছে দূর্ঘটনা নগরীতে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ব্যাটারিচালিত যানবাহন ॥ প্রতিনিয়ত ঘটছে দূর্ঘটনা - ajkerparibartan.com
নগরীতে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ব্যাটারিচালিত যানবাহন ॥ প্রতিনিয়ত ঘটছে দূর্ঘটনা

3:07 pm , January 8, 2023

আরিফ আহমেদ, বিশেষ প্রতিবেদক ॥ নগরীতে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ইজিবাইক ও অটোরিকশা। প্রতিদিন গড়ে ২০টি করে  ব্যাটারিচালিত এই যন্ত্র দানব নগরীতে প্রবেশ করছে। ট্রাফিক বিভাগের মতে, বর্তমানে নগরীতে ব্যাটারিচালিত ইজিবাইক ও অটোরিকশার সংখ্যা প্রায় ১২ হাজার ছাড়িয়েছে। যেখানে বৈধ মাত্র সাড়ে তিন হাজার। আর এগুলো গড়ে প্রতিদিন ৮০ হাজার ইউনিট বিদ্যুৎ খাচ্ছে। যা ভবিষ্যতের জন্য আতংকের বিষয় বলে মনে করছেন বরিশালের বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তারাও। এদিকে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে কোথাও কোথাও কোনো ট্রাফিক পুলিশ না থাকায় বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরি করছে হলুদ ইজিবাইকগুলো। অদক্ষ চালকের হাতে ক্রমশ বিপদজনক হয়ে উঠছে নগরীর সব সড়ক। শুধুমাত্র সদর রোড এলাকা ছাড়া নগরীর ২২ সড়কের অলিগলিতে এদের দাপট। যাত্রী থাক বা না থাক যত্রতত্র ঘুরে বেড়াচ্ছে এরা। যখন তখন ইচ্ছেমতো ব্রেক কষে কিম্বা ইউটার্ন নিতে গিয়ে যানজট তৈরি করছে।
একদিকে বরিশালের বাসদ নেত্রী মনীষা চক্রবর্তীর সমর্থন অন্যদিকে মেয়রের উদারতার সুযোগ নিয়ে প্রতিদিন এখন গড়ে ১০/১২টি নতুন হলুদ ইজিবাইক শহরে আসছে বলে জানালেন পরিবেশ আন্দোলনের নেতা এনায়েত হোসেন শিবলু।
সামাজিক আন্দোলনের নেতা ও বরিশাল অর্থনীতি সমিতির সভাপতি কাজী মিজানুর রহমান বলেন, এইসব ইজিবাইক ও অটোরিকশার কারণে দুর্ঘটনার শিকার হয়ে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছেন কম হলেও ২০০ রোগী। গতদিনও একজন মৃত্যুবরণ করেছেন এই সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হয়ে। তবে আমি বলবো ইজিবাইকের চেয়েও অটোরিকশাগুলো বেশি বেপরোয়া। এর উপর বিদ্যুৎ খরচ বিষয়টিও ভাবা উচিৎ বলে মনে করেন কাজী মিজানুর রহমান।
অটোরিকশাচালক মকবুল হোসেন জানালেন, তিনি তার অটোরিকশার জন্য প্রতিদিন ৭০ টাকা বিদ্যুৎ বিল দেন। অর্থাৎ মাসে ২১০০ টাকার বিদ্যুৎ খাচ্ছে তার অটোরিকশা।
অন্যদিকে ইজিবাইকচালক ইয়াসিন মোল্লা বিদ্যুৎ বিল দেন প্রতিবার ৪০-৬০ টাকা। দিনে তার বিদ্যুৎ খাতে সর্বনি¤œ ৮ ইউনিট করে ২৪ ইউনিট বিদ্যুৎ প্রয়োজন হয় বলে জানান তিনি।
উপ-পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) এস এম তানভীর আরাফাত বলেন, শুধু বিদ্যুৎই নয়, এরা এখন শহরের যানজটেরও অন্যতম কারণ। তবে বিষয়টি সম্পূর্ণই সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষের কাছে। এদের নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে বড় দুর্ঘটনা শুধু নয়, এই শহরই অচল হয়ে পড়বে।
আমরা এজন্য বেশকিছু লিখিত প্রস্তাবনা তাদের দিয়েছি। এখন সবটাই সিটি করপোরেশনের ইচ্ছা ও আন্তরিকতার উপর নির্ভরশীল।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT