বরিশালের ৫ সরকারি স্কুলের দেড় শতাধিক শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল বরিশালের ৫ সরকারি স্কুলের দেড় শতাধিক শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল - ajkerparibartan.com
বরিশালের ৫ সরকারি স্কুলের দেড় শতাধিক শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল

2:50 pm , January 3, 2023

জন্মনিবন্ধন জালিয়াতি
বাতিলকৃত আবেদনের সাথে জড়িত অভিভাবকদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে -জেলা প্রশাসক

বিশেষ প্রতিবেদক ॥ ভর্তি লটারীতে একজনের নামে একাধিক আবেদন জমা পড়ায় বরিশাল জেলার ৫ সরকারি স্কুলে লটারীতে উত্তীর্ণ তৃতীয় শ্রেণির প্রায় দেড় শতাধিক শিশু শিক্ষার্থীর ভর্তি আবেদন বাতিল করা হয়েছে। অপেক্ষমান তালিকা ও পুনরায় লটারীর মাধ্যমে এ সংখ্যা পূরণ করা হবে এবং একইসাথে বাতিলকৃত আবেদনের সাথে জড়িত অভিভাবকদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। জানা গেছে, গেলো ১২ ডিসেম্বর দুপুর ২ টায় বাংলাদেশের সব সরকারি স্কুলে ভর্তি লটারির ফলাফল প্রকাশিত হয়। এর আগে গত ১৬ নভেম্বর সরকারি স্কুলে ভর্তির জন্য অনলাইন আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিলো এবং আবেদন প্রক্রিয়াটি ৬ ডিসেম্বর বিকাল ৫ টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত কার্যকর ছিলো। প্রথম শ্রেণি থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত জিএসএ ভর্তি পদ্ধতির জন্য বিপুল সংখ্যক প্রার্থী অনলাইনে আবেদন করে। বরিশালে যার সংখ্যা প্রায় ২০ হাজার। জিএসএ কর্তৃপক্ষ একটি অফিসিয়াল নোটিশের মাধ্যমে লটারির ফলাফল প্রকাশের তারিখ নিশ্চিত করে। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট ঢাকায় সরকারি স্কুলে ভর্তি লটারির ড্র অনুষ্ঠিত হয়। শিক্ষামন্ত্রী ড. দীপু মনি উপস্থিত থেকে লটারির ড্র এর কার্যক্রম পরিচালনা করেন। কিন্তু একই আবেদনকারীর নামে একাধিক আবেদন ও জন্মনিবন্ধনের তথ্য ধরা পড়ায় বরিশাল জেলা সদরেই পাঁচটি সরকারি স্কুলের দেড় শতাধিক শিশু শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল করা হয়েছে। স্কুলগুলো হলো : বরিশাল জিলা স্কুল, বরিশাল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, শহীদ আরজু মনি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় (কাউনিয়া) এবং শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং মডেল স্কুল এন্ড কলেজ। এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।  এ ব্যাপারে জিলাস্কুলের প্রধান শিক্ষক মুহাম্মদ নুরুল ইসলাম বলেন, আমাদের স্কুলে ২৪০ জনকে ভর্তির জন্য বাছাই করা হয়েছিলো। পরবর্তী যাচাই বাছাইয়ে দেখা গেছে এদের মধ্যে ৫০ জন শিক্ষার্থী একাধিক আবেদন করেছে। এটা একটি অপরাধ ও প্রতারণা। তাই এগুলো বাতিল করা হয়েছে।  সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহবুবা হোসেন বলেন, নাম পরিবর্তন, জন্ম নিবন্ধন ডিজিট পাল্টে ও ভুল তথ্য দিয়ে একাধিক আবেদন করার কারণে তার স্কুলেও প্রভাতী শাখায় ২৮ জন এবং দিবা শাখার ৩১ জনের আবেদন বাতিল করা হয়েছে। একইভাবে সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজ, আরজুমনি ও আব্দুর রব সেরনিয়াবাত মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ৫০টির মতো আবেদন বাতিল করা হয়েছে। বরিশালের জেলা প্রশাসক মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, নাম পরিবর্তন ও ওলট পালট করে প্রতারণা করে ভর্তি আবেদন করা একটা জঘন্য অপরাধ। এর মাধ্যমে বাবা-মা তাদের সন্তানকে শিশু অবস্থায় অপরাধ শিক্ষা দিচ্ছেন। আমরা বিষয়টি খুবই গুরুত্ব দিয়ে দেখছি। আপাতত অপেক্ষমান তালিকাকে গুরুত্ব দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সেখানেও যদি একাধিক আবেদন থাকে তা বাতিল হবে। প্রয়োজনে হয়তো পুনরায় লটারী হতেও পারে। তবে তা প্রাথমিক শিক্ষা দপ্তরই সিদ্ধান্ত নেবে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT