নগরীতে জমি নিয়ে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের টানাটানি নগরীতে জমি নিয়ে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের টানাটানি - ajkerparibartan.com
নগরীতে জমি নিয়ে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের টানাটানি

3:22 pm , December 2, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ৬৩ বছর আগের একটি পুরাতন ভবন ভাঙ্গা নিয়ে  প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের মাঝে উত্তাপ ছড়িয়েছে। উভয় পক্ষ ভাঙ্গতে থাকা বিদ্যালয় ভবনটির জায়গা নিজেদের দাবি করছে। এ নিয়ে শুক্রবার সকালে বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে দুই পক্ষের শিক্ষকরাই অবস্থান নিয়েছে এমন খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এসময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: মনিরুজ্জামান ঠিকাদারসহ সংশ্লিষ্ট শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির সভাপতিকে ভাঙ্গার কাজ বন্ধের নির্দেশ প্রদান করেন। জানাগেছে, গত এক সপ্তাহ ধরেই বরিশাল নগরের বিএম কলেজ রোডের কলেজিয়েট বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ব্যবহৃত একটি ভবন ভাঙ্গা শুরু করে কর্তৃপক্ষ। তবে সেই ভবন ও জায়গার পাশে থাকা কলেজপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বলে দাবী করেছেন প্রধান শিক্ষক। কলেজপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ফারজানা ইসলাম কাগজপত্রের বরাত দিয়ে বলেন, যে ভবনটি ভাঙ্গা হচ্ছে সেটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পুরাতন ভবন। যা কলেজিয়েট মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে ব্যবহার করতে দেয়া হয়েছিলো মাত্র। কিন্তু ভবন ও ভবনের জায়গা তারা দাবি করে এখন সেটি ভেঙ্গে ফেলছে। এই জমি ও ভবন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সেই কাগজপত্র রয়েছে। সাবেক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মুনিবুর রহমানও জমি পরিমাপ করিয়ে কলেজিয়েট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ব্যবহার করা একতলা ভবনটি আমাদের পূরাতন ভবন বলে উল্লেখ করে রিপোর্ট দিয়েছেন। এ জমি ও ভবন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তার কাগজপত্র রয়েছে আমাদের কাছে। তারপরও কলেজিয়েট মাধ্যমিক বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এ ভবনটি এখন ভেঙ্গে ফেলছে। আর ভবন এবং জায়গা ফেরৎ চাওয়া আমাদের যুক্তিযুক্ত দাবি। বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। তারা এসে দেখেছেন। এখন তারাই সিদ্ধান্ত দিবেন। তবে উল্টো অভিযোগ তোলেন কলেজিয়েট বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক রতন বণিক। তিনি বলেন, বিগত এক বছর আগে এ জমিটি মাপা হয়েছে। সেসময় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৯.২ শতাংশ জমি তাদের বুঝিয়ে দেয়াসহ সিমানা পিলার দেয়া হয়েছে। এতে ম্যানেজিং কমিটি, প্রধান শিক্ষকসহ কিছু শিক্ষকেরও স্বাক্ষর রয়েছে। আর বর্তমান নিয়ম হচ্ছে ভবন যার জমিও তার। আর এটা প্রাথমিকের জমি না এটা পৈত্রিক জমি, আমরা ক্রয় করেছি। এ জমির জন্য আমরা সকল প্রকার ট্যাক্স ও খাজনা দিয়ে আসছি। ম্যানেজিং কমিটির সিদ্ধান্তে এ ভবনটি ভাঙ্গা হচ্ছে। এটি বেসরকারি স্কুলের নিয়মে আছে। এখানে ৬ তলা ভবন তৈরি করা হবে মাধ্যমিকের জন্য। যদি প্রাথমিকের প্রয়োজন হয় তারা কক্ষ ব্যবহার করতে পারবে। সভা করেও বিষয়টি বলা হয়েছে। প্রাথমিক বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ রাজিও হয়েছিলো। কিন্তু এখন তারা উল্টো কথা বলছে। ঘটনাস্থলে পরিদর্শনে গিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান কোন বক্তব্য দিতে রাজি না হলেও পরিদর্শন শেষে বরিশাল সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ফয়সাল জামিল বলেন, কলেজপাড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পুরাতন ভবনটি কলেজিয়েট মাধ্যমিক বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ভেঙ্গে ফেলছে। আমাকে প্রধান শিক্ষক সঠিক সব কাগজপত্র দেখিয়েছেন। সাবেক ইউএনও স্যার একটা রিপোর্ট করে গেছেন যে ভবনটি প্রাথমিকের। এটি আমি দেখতে এসেছি আর আমার উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা স্যারকে বিষয়টি অবহিত করেছি। এখন তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। এদিকে এ বিষয়ে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য কলেজপাড়া বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষকরা দুপুর থেকে কোতয়ালী মডেল থানায় অবস্থান নেন। কিন্তু থানা পুলিশ বিভিন্ন অজুহাতে সন্ধ্যা পর্যন্ত মামলা গ্রহণ করেনি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে কোতয়ালী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ সগীর হোসেন বলেন, বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে। আমাকে মামলা গ্রহণের নির্দেশনা প্রদান করেনি। জানতে চাইলে বরিশাল জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোহন লাল দাস বলেন, ঘটনাক্রমে প্রাথমিক শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের যুগ্ম সচিব (পরিকল্পনা)  মোঃ আশরাফুজ্জামান বরিশাল সফরে ছিলেন। খবর পেয়ে তিনি নিজেও ঘটনাস্থলে গিয়েছিলেন। এমনকি সন্ধ্যা পর্যন্ত শিক্ষকদের সাথে থানায়ও অবস্থান করেন। যেহেতু স্যার নিজে বিষয়টি নিজ থেকে দেখভাল করছেন তাই এখানে আমাদের কিছু বলার নেই। তবে এ বিষয়ে অধিদপ্তরে আমি কথা বলেছি তারাও বলেছেন যুগ্ম সচিব স্যার যে সিদ্ধান্ত নেয় সেভাবে করার জন্য। রবিবার এ বিষয়ে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছে অধিদপ্তর। জানতে চাইলে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( শিক্ষা ও আইসিটি) মন দীপ ঘরাই বলেন, বিষয়টি বিকেলের দিকে আমি অবহিত হয়েছি। আমরা সবাই মন্ত্রী পরিষদ সচিব স্যারের সাথে রয়েছি। তাকে বিদায় দিয়ে সন্ধ্যার পর ডিসি স্যারের সাথে কথা বলে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেব।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT