বাবুগঞ্জে গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যা পরিবারের দাবী ডাকাতি বাবুগঞ্জে গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যা পরিবারের দাবী ডাকাতি - ajkerparibartan.com
বাবুগঞ্জে গৃহবধূকে কুপিয়ে হত্যা পরিবারের দাবী ডাকাতি

3:18 pm , November 22, 2022

স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা সতীন আটক
সাইফুল ইসলাম, বাবুগঞ্জ ॥ বাবুগঞ্জের রাকুদিয়া গ্রামে গৃহকর্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এছাড়াও গৃহকর্তাকে কুপিয়ে জখম করে বেঁেধ টাকা-স্বর্নালংকার লুট করেছে বলে পরিবার দাবি করেছে। কিন্তু পুলিশ বলছে বিষয়টি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড। সোমবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে। হত্যার শিকার গৃহবধূ হলো-মারুফা বেগম (৩০)। সে রাকুদিয়া গ্রামের বাসিন্দা রড সিমেন্টের ব্যবসায়ী ও যুবদলের নেতা (উপজেলা সাংগঠনিক সম্পাদক) মিলন খানের স্ত্রী। আহত তার তার স্বামী মিলন খান (৪১) বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। মারুফা ৮ ও ৪ বছর বয়সী দুই ছেলের জননী। সে মিলন খানের দ্বিতীয় স্ত্রী। মিলনের ভাই সবুজ খান জানান, রাত দেড়টার দিকে বাসার কলাপসিবল গেট ভেঙ্গে ডাকাত দল প্রবেশ করে। ডাকাতরা বাসায় থাকা নগদ আড়াই লাখ টাকা ও তিন ভরি ওজনের স্বর্নালংকার লুট করার সময় স্ত্রী বাঁধা দেয়। তখন তার গলা কেটে হত্যা করে ডাকাতরা। স্ত্রীকে রক্ষায় স্বামী এগিয়ে গেলে তাকেও কুপিয়েছে ডাকাতরা। পরে ভাতিজার ডাক-চিৎকারে তারা গিয়ে দেখতে পান, ছোট ভাইয়ের স্ত্রী ফ্লোরে শোয়ানো রক্তাক্ত অবস্থায় রয়েছে। ভাইয়ের মুখমন্ডল কাপড় দিয়ে ও হাত পা রশি দিয়ে খাটের সাথে বাধা। এটা ডাকাতি না হত্যাকান্ড বলে জানতে চাইলে সবুজ বলেন, এটা তো ডাকাতির মতনই, সব কিছু বোঝা যায়। ভাইঙ্গা, চুইরা সব কিছু নিয়া গেছে তারা। মারুফার ফুফাতো ভাই সাদিকুর রহমান জানান, ডাকাত দলের সদস্য কতজন ছিলো সঠিক মিলন খান বলতে পারবেন। কি ঘটনা ঘটেছে ত্ওা তিনি ভালো বলতে পারবেন। তিনি জানান, বাসায় মিলন খান, মারুফা, দুই সন্তান নিহাদ (৭) ও মাহিন (৩) এবং জুয়েনা (১২)। জুয়েনার বরাতে বলেন, দুর্বৃত্তরা হত্যা করে যাওয়ার সময় জুয়েনার কক্ষে যায়। সেখানে তাকে জাগিয়ে একজন বলে, তোর খালাকে মেরে ফেলা হয়েছে। চিৎকার করলে তোকেও মেরে ফেলা হবে। তারা চলে যাওয়ার পর বাসার পিছনের দরজা খুলে জুয়েনা বের হয়ে পাশের ঘরের লোকজন ডেকে আনে। পরে তারা এসে খালু মিলন খানের চোখের বাঁধন খুলে দিয়ে মেডিকেলে পাঠিয়েছে। সাদিকুর রহমান আরো জানান, মারুফার লাশের ময়না তদন্ত শেষে বিকেলে লাশ হস্তান্তর করেছে পুলিশ। রাত আটটায় তাকে বাড়ীর পাশে দাফন করা হয়েছে। বাবুগঞ্জ থানার ওসি মাহাবুবুর রহমান জানান, প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে এটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন স্বামী মিলন খান পুলিশের নজরদারীতে রয়েছে। পুলিশ বিষয়টি যেমন পরিকল্পিত হত্যাকান্ড বলছে তেমনি, স্থানীয়রাও একমত পোষন করেছেন। স্থানীয়দের লোকমুখে প্রচার হচ্ছে, মারুফাকে হত্যা করতেই এসেছিলো দুর্বৃত্তরা। তাকে হত্যার পর বিষয়টি ডাকাতির ঘটনায় রুপ দেয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। এদিকে, স্বজনরা জানিয়েছেন, দুর্বৃত্তরা আগে থেকে বাসার নজরদারী করেছে। বিষয়টি মারুফা টের পেয়েছিলো। তিনি তার মা রাশিদা বেগমকেও বিষয়টি জানিয়েছিলো। মারুফা তার মাকে জানিয়েছিলো, রাত হলেই বাসার আশে-পাশে অপরিচিত লোকদের আসে। যার জন্য ভীত ছিলো মারুফা। এ জন্য তার কাছে মাকে থাকারও অনুরোধ জানিয়েছিলো।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয়রা জানিয়েছে, মিলনের প্রথম স্ত্রী ঝুমুর বেগম হত্যাকান্ডের পিছনে রয়েছেন। কারন হিসেবে তাদের মন্তব্য কিছুদিন ধরে ঝুমুরের সাথে মিলনের পরিবারের ঘনিষ্টতা বেড়েছে। সে নিয়মিত আসা-যাওয়া করতো। ঝুমুর আবারো ফিরে আসার কথা প্রচারও করেছে। তাই ধারনা করা হচ্ছে পরিকল্পিত এ হত্যাকান্ডে ঝুমুরের যোগ সাজস রয়েছে।
সাবেক স্ত্রী ঝুমুর আটক
এদিকে এ হত্যাকান্ডের ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাবেক স্ত্রী ঝুমুরকে পুলিশ হেফাজতে নিয়েছে। ওসি মাহবুবুর রহমান জানিয়েছেন, ঝুমুরকে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য আনা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে তারপর সিদ্বান্ত নেয়া হবে গ্রেপ্তার দেখানো হবে কিনা।
মামলা দায়ের
জামাতা মিলন খানকে প্রধান আসামী করে মামলা হয়েছে। ওসি জানান, মারুফার বাবা আইউব আলী বাদী হয়ে মামলা করেছেন। পরিকল্পিতভাবে মেয়েকে হত্যা ও সহযোগিতা করায় মামলায় অজ্ঞাত আরো ৭ জনকে আসামী করা হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT