জগদীশ সারস্বত গার্লস স্কুল এন্ড কলেজ কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে নিমন্ত্রন না পেয়ে শিক্ষকদের গালমন্দ-হুমকি জগদীশ সারস্বত গার্লস স্কুল এন্ড কলেজ কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে নিমন্ত্রন না পেয়ে শিক্ষকদের গালমন্দ-হুমকি - ajkerparibartan.com
জগদীশ সারস্বত গার্লস স্কুল এন্ড কলেজ কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে নিমন্ত্রন না পেয়ে শিক্ষকদের গালমন্দ-হুমকি

3:55 pm , November 21, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নগরীর জগদীশ সারস্বত গার্লস স্কুল এন্ড কলেজে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে নিমন্ত্রন না পাওয়ায় নারী নেত্রী শিরিন আক্তার কর্তৃক শিক্ষক শিক্ষিকাদের অপদস্ত করা ও অনুষ্ঠান বানচাল চেষ্টার বিষয়ে বরিশাল সিটি মেয়রের কাছে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। সোমবার বিদ্যালয়টির ২৯ জন শিক্ষক শিক্ষিকার স্বাক্ষর সম্বলিত ওই অভিযোগ সিটি মেয়রের দপ্তরে প্রেরন করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিদ্যালয়টির ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মোঃ আসাদুল আলম। অভিযোগে উল্লেখ করা হয় রবিবার বিদ্যালয়টির ২০২১ সালের এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা প্রদানের জন্য একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে নারী নেত্রী শিরিন আক্তার আমন্ত্রন না পেয়ে সকাল ১১ টার দিকে বিদ্যালয়ে প্রবেশ করে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সামনে তাকে অনুষ্ঠানে কেন আমন্ত্রন করা হলো না জানতে চেয়ে শিক্ষক ও শিক্ষিকাদের গালমন্দ করেন। পরে দুপুর ১২ টার দিকে আবার স্থানীয় কিছু লোকজন নিয়ে বিদ্যালয়ে প্রবেশ করে পুনরায় শিক্ষক ও শিক্ষিকাদের গালমন্দ করতে শুরু করেন। পরে বিদ্যালয়ের সভাপতি গাজী নইমূল হোসেন লিটু শিরিন আক্তার কে নিবৃত করেন। অভিযোগে শিক্ষকরা বলেন শিরিন আক্তারের এমন আচরনে আমরা প্রতিষ্ঠানে নিরাপত্তাহীনতা অনুভব করছি। তাই আমাদের অভিভাবক নগর পিতা সিটি মেয়রকে বিষয়টি অবহিত করলাম। রোববার অনুষ্ঠিত ওই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ। যদিও তিনি অনুষ্ঠান স্থলে আসার আগেই এ ঘটনা ঘটে। তবে অভিযুক্ত শিরিন আক্তার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। জগদীশ সারস্বত গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আসাদুল আলম বলেন ২০২১ সালে এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ছাত্রীদের সংবর্ধনা দেবার জন্য রোববার একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে আমন্ত্রন না করায় শিরিন আক্তারসহ স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা শামীম, ও মহানগর আওয়ামীলীগ নেতা ফিরোজ অনুষ্ঠান শুরুর আগে বিদ্যালয়ে এসে আমাদের সকল শিক্ষককে অকথ্য ভাষায় গালমন্দসহ হুমকি প্রদান করেছে। অথচ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রনের বিষয়ে শিক্ষকদের কোন ভূমিকা ছিলো না। অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে বিদ্যালয়ের এ্যাডহক কমিটির সাবেক সদস্য ও নারী নেত্রী শিরিন আক্তার বলেন আমাকে দাওয়াত দেওয়া হয়নি, এটা সত্য। কিন্তু আমি অনুষ্ঠানে গিয়ে অংশ গ্রহন করেছি। লিটু ভাইয়ের সাথে দেখা হওয়ার সময় জানতে চেয়েছি আমাকে কেন দাওয়াত দেওয়া হলো না। তখন লিটু ভাই বলেন তোমার নাম লিস্টে ছিলো। এখানে আমার বিরুদ্ধে শিক্ষকদের গালমন্দ করার অভিযোগ কি ভাবে আসে। এটা আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT