কিশোরীকে আপত্তিকর ছবি দিয়ে জিম্মি ॥ এসআই মেহেদী গ্রেপ্তার কিশোরীকে আপত্তিকর ছবি দিয়ে জিম্মি ॥ এসআই মেহেদী গ্রেপ্তার - ajkerparibartan.com
কিশোরীকে আপত্তিকর ছবি দিয়ে জিম্মি ॥ এসআই মেহেদী গ্রেপ্তার

3:02 pm , November 16, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ মাত্র দুই মাসের ব্যবধানে আবারো অপরাধে জড়িয়ে আটক হয়েছে কোতয়ালী মডেল থানার এসআই মেহেদী হাসান। পর্যটকবাহী মাইক্রোবাস আটকে ২০ হাজার টাকা ঘুষ নেয়ার অভিযোগে বরখাস্ত হওয়া এসআই মেহেদীকে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আটক করা হয়।
মহানগর পুলিশ কমিশনার মো. সাইফুল ইসলাম জানান, আমাদের কাছে একটি অভিযোগ আসে। যেখানে অভিভাবকরা দাবী করেন তাদের মেয়ের মোবাইলে কেউ একজন অশ্লীল ম্যাসেজ পাঠায় এবং টাকা চাচ্ছে। এ ঘটনায় কোতয়ালী মডেল থানার পুলিশ তদন্ত শুরু করে। একপর্যায়ে অজ্ঞাত ব্যক্তি যখন বিকাশ নাম্বারে টাকা চায়, তখন সেখানে টাকা পাঠিয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তিকে গ্রেফতারে অভিযান করা হয়। অভিযানে গিয়ে আটক হয় অজ্ঞাত ব্যক্তি। পরে দেখা যায় আটক অজ্ঞাত ব্যক্তি কয়েকদিন আগে অন্য একটি বিষয়ে সাসপেন্ড হওয়া উপ-পরিদর্শক (এসআই) মেহেদী হাসান। এরপর যিনি  অভিযোগ করেছে এবং যিনি গ্রেফতার হয়েছে উভয়ের মোবাইল ফোন যাচাই করে প্রাথমিকভাবে ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়। পরে গ্রেফতারকৃত মেহেদীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। নিয়মানুযায়ী বিভাগীয় মামলা দায়ের করা হবে।
কিশোরীর মায়ের দায়ের করা মামলার এজাহার সূত্রে জানাগেছে, গত ৮ নভেম্বর রাত পৌনে ৯ টার দিকে এসএসসি পরীক্ষা দেয়া কন্যার নাম্বারে কল করে নিজের পরিচয় গোপন রাখে এসআই মেহেদী হাসান। পরে সে জানায়, কিশোরীর একান্ত ব্যক্তিগত ছবি ও ভিডিও তার কাছে রয়েছে। এরপর কিশোরীর হোয়াটস্অ্যাপে সেই ছবি ও ভিডিও পাঠায়।
পরবর্তীতে ভিকটিম কিশোরীকে হোয়াটস্অ্যাপ নাম্বারে ফোন করে ও ম্যাসেজ দিয়ে আরও একান্ত ব্যক্তিগত ভিডিও ধারণ করে হোয়াটসঅ্যাপ নাম্বারে পাঠাতে বলে ওই এসআই। এছাড়া নানাভাবে কিশোরীকে ব্লাকমেইল শুরু করে। এরপর বিভিন্ন সময়ে সে কিশোরীর হেয়াটসঅ্যাপে বিভিন্ন ধরনের অশ্লীল ছবি ও ভিডিও পাঠিয়ে সেইরকম ছবি ও ভিডিও ধারণ করে পাঠাতে  চাপ দেয়। কিন্তু কিশোরী এতে রাজি না হলে তার বন্ধু বান্ধব ও নিকট আত্মীয় স্বজনদের নিকট প্রেরণ করে এবং আরও ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। পাশাপাশি কু-প্রস্তাব প্রদান ও রুমমেট করার জন্য কিশোরীকে চাপ দিতে থাকে।
কিশোরীর একান্ত ব্যক্তিগত ছবি ও ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন স্থানে প্রচার ও প্রকাশ করে মানহানি করার ভয়ভীতি দেখিয়ে বিকাশের মাধ্যমে গত ১৫ নভেম্বর ১ হাজার টাকাও নেয় গ্রেফতার হওয়া এসআই। কিন্তু এরপর কিশোরীর কাছে আরও টাকা চাইলে সে বিষয়টি অভিভাবকদের জানালে তারা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অবহিত করেন। পুলিশ বিষয়টি জানতে পেরে ফাঁদ পেতে অভিযান চালিয়ে নগরের বাকলার মোড় এলাকা থেকে এসআই মেহেদী হাসানকে গ্রেফতার করে।
এ নিয়ে পৃথক অপরাধে একমাসের মধ্যে নিজ থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছে দুই এসআই। এর আগে গত ১৫ অক্টোবর বিধবা নারীকে ধর্ষনের মামলায় গ্রেপ্তার হয়েছে এসআই আবুল বাশার। গ্রেফতার হওয়া এসআই  মেহেদি হাসানসহ থানার অপর এসআই  ইব্রাহিম খলিলকে পর্যটকদের আটকে ঘুষ নেয়ার অভিযোগে গত ২৬ সেপ্টেম্বর সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। সাময়িকভাবে বরখাস্ত অবস্থায় থাকা এসআই মেহেদি হাসান নগরীর স্ব-রোড বাকলার মোড় সংলগ্ন একটি বহুতল ভবনের তিন তলায় ভাড়া থাকেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT