আজ উদ্বোধন হচ্ছে সুন্দরবন নেভিগেশনের সর্বাধুনিক নৌযান সুন্দরবন-১৬ আজ উদ্বোধন হচ্ছে সুন্দরবন নেভিগেশনের সর্বাধুনিক নৌযান সুন্দরবন-১৬ - ajkerparibartan.com
আজ উদ্বোধন হচ্ছে সুন্দরবন নেভিগেশনের সর্বাধুনিক নৌযান সুন্দরবন-১৬

3:15 pm , November 15, 2022

ঢাকা-বরিশাল নৌ রুট

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ আজ উদ্বোধন করা হচ্ছে সুন্দরবন নেভিগেশনের সর্বাধুনিক নৌযান সুন্দরবন-১৬। ঢাকা-বরিশার রুটে এ লঞ্চটি চালুর পূর্বে ব্যাপক আলোচিত হয়েছে। আজ বিকেল ৪ টায় বরিশাল লঞ্চঘাটে উদ্বোধন উপলক্ষে দোয়া মিলাদ অনুষ্ঠিত হবে। বরিশাল সিটি করপোরেশনের মেয়র ও মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে এর উদ্বোধন করবেন। পরে আজই যাত্রী নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে প্রথম যাত্রা করবে আধুনিক ও বিলাসিতার শীর্ষে থাকা সুন্দরবন ১৬। লঞ্চটি নিয়ে বরিশালসহ দক্ষিনাঞ্চলের মানুষের আগ্রহের কমতি নেই। কাঠামোগত ও নির্মান শৈলীতে নানা চমকের পর লঞ্চের উদ্বোধনের দিন নির্ধারনেও ছিলো সুক্ষè চমক।
লঞ্চের নামের সাথে মিল করে (সুন্দরবন-১৬) ১৬ নভেম্বর উদ্বোধনের দিন নির্ধারন করেন লঞ্চের মালিক সাইদুর রহমান রিন্টু। তিনি বলেন চলমান রাজনৈতিক নানা সভা সমাবেশ ও অনেক ব্যস্ততার কারনে ১৬ নভেম্বর উদ্বোধনের দিন নির্ধারন করা অনেকটা অসম্ভব ছিলো। কিন্তু লঞ্চের নামের সাথে মিল করে উদ্বোধন করবো বলে অটল ছিলাম। এটা মূলত একটু বাড়তি চমকের প্রত্যাশায় কারন হিসাবে জানালেন তিনি। এদিনই যাত্রী বহন করে লঞ্চটি ঢাকা যাবে এবং পরের দিন ঢাকা প্রান্তে দ্বিতীয় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে। এই অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী এবং নৌ-পরিবহন মন্ত্রী অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন।
পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পর সবচেয়ে বড় ধাক্কা লাগে ঢাকা-বরিশাল রুটের যাত্রীবাহী নৌযান খাতে। সেই সংকট আরও বহুগুণ বাড়িয়ে দিয়েছে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি। যদিও সরকারের সঙ্গে দর কষাকষি করে লঞ্চের ভাড়া ৩০ শতাংশ বাড়িয়েছেন মালিকরা। একদিকে বাড়তি লঞ্চ ভাড়া অন্য দিকে পদ্মা সেতুর উন্মাদনা সব মিলিয়ে যাত্রী সংকটে পড়েছিলো এই রুটের দানবসব লঞ্চগুলো। কিন্তু সময় গড়াতে গড়াতে মানুষের পদ্মা সেতু দেখার স্বাদ মিটে যাওয়ায় আবার এই রুটে যাত্রীর সংখ্যা স্বাভাবিক হচ্ছে। এছাড়া সড়ক পথে নিত্য নতুন দূর্ঘটনা এবং সরকার নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে লঞ্চে ভাড়া কম রাখায় প্রতিনিয়িত যাত্রী বাড়ছে ঐতিহ্যবাহী এই রুটে। ঠিক তেমনই মূহুর্তে ঢাকা-বরিশাল নৌ পথে যুক্ত হলো দেশ সেরা লঞ্চ এমভি সুন্দরবন-১৬।
সুন্দরবন নেভিগেশনের স্বত্ত্বাধিকারী ও বাংলাদেশ লঞ্চ মালিক সমিতির কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ও বরিশাল সদর উপজেলা চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান রিন্টু বলেন নৌপরিবহনে নতুন সংযুক্ত হতে যাওয়া সুন্দরবন-১৬ দেশের মধ্যে যাত্রীবাহী যতগুলো লঞ্চ রয়েছে তার মধ্যে সর্ববৃহৎ। লঞ্চটিতে যাত্রী ধরে রাখতে আধুনিক সব সুযোগ-সুবিধা রয়েছে। চেষ্টা করেছি আগের যতগুলো লঞ্চ রয়েছে তার থেকেও ভালো সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা করার।
বর্তমান পরিস্থিতিতে এত বড় এবং নতুন লঞ্চ সংযোজনের বিষয়ে তিনি বলেন, লঞ্চটি আমার অনেক আগেরই তৈরি করা। পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকলে গত কোরবানীর ঈদেই লঞ্চটি লাইনে যুক্ত করা হত। কিন্তু পদ্মা সেতুর উদ্বোধন এবং যাত্রী একদম কমে যাওয়ায় তখন উদ্বোধন করিনি। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক হচ্ছে এবং লঞ্চটি বসিয়ে রাখার আর সুযোগ নেই। লঞ্চে যে সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা করা হয়েছে আশা করছি তাতে টিকে থাকতে পারবো। তিনি বলেন, আমি এই ব্যবসার একজন পুরানো মালিক অন্য মালিকদের কথা জানি না সব সময়ই চিন্তা করেছি যাত্রী সেবাকে প্রাধান্য দেওয়া। এখন পর্যন্ত সেই নীতিতে অটল আছি।
শিপইয়ার্ডে কোম্পানির দায়িত্বরত কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এমভি সুন্দরবন-১৬ লঞ্চটি হবে সুন্দরবন নেভিগেশন কোম্পানির ফ্লাগশিপ। কোম্পানির অন্যান্য লঞ্চের ক্যাপসুল ডিজাইন থেকে বাহ্যিক কাঠামোতে পরিবর্তন এনে ডেক ও কেবিনের সামনে চলাচলের প্রশস্ত জায়গা, পর্যাপ্ত টয়লেট, ক্যান্টিনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। যাত্রী সেবায় লঞ্চে থাকবে প্রশিক্ষিত কর্মী। নিচ তলা থেকে চার তলায় ৫ হাজারের অধিক এলইডি ও সাধারণ লাইটের সংযোজন করা হয়েছে।
দৈর্ঘ্যে ৩০০ এবং প্রস্থে ৫৪ ফুটের লঞ্চটি সরকারিভাবে প্রায় ১৫০০ যাত্রীর ধারণক্ষমতার অনুমতি পেয়েছে। তবে প্রয়োজন সাপেক্ষে ১০ হাজারের মতো যাত্রী বহন করা যাবে। এতে লিফট, ডুপ্লেক্সতো থাকছেই। তাছাড়া দুই শতাধিক শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কেবিন। এর মধ্যে রয়েছে ভিআইপি, সেমি ভিআইপি, ইকোনমি, ফ্যামিলি, সিঙ্গেল ও ডাবল। পাশাপাশি সোফার ব্যবস্থাও থাকবে। লঞ্চে উচ্চক্ষমতা সম্পন্ন ইঞ্জিন যুক্ত করা হয়েছে। এ ছাড়া থাকবে রাতে চলাচলের জন্য উন্নত প্রযুক্তির রাডার ও জিপিএস। নদীর ডুবোচর ও পানির পরিমাণ নির্ধারণ করে বসানো হচ্ছে ইকো সাউন্ডার।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT