কাঠালিয়ায় বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাই খুন কাঠালিয়ায় বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাই খুন - ajkerparibartan.com
কাঠালিয়ায় বড় ভাইয়ের হাতে ছোট ভাই খুন

3:22 pm , November 14, 2022

কাঠালিয়া প্রতিবেদক ॥ কাঠালিয়ায় জমি বিরোধের জেরে ছোট ভাই বেল্লাল হাওলাদারকে (৩৫) কুপিয়ে হত্যা করেছে বড় ভাই নুরু হাওলাদার (৫২)।  সোমবার সকাল সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার চেঁচরী রামপুর ইউনিয়নের মহিষকান্দি গ্রামে নিজ বাড়িতে এ হত্যা কান্ডের ঘটনা ঘটে। পরে স্থানীয় জনতা ঘাতক বড় ভাই নুরু হাওলাদারকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করে। নিহত বেল্লাল হাওলাদার ও ঘাতক নুরু হাওলাদার মহিষকান্দি গ্রামের মৃত মোমিন উদ্দীন হাওলাদারের ছেলে। স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ আব্দুল মন্নান হাওলাদার জানান, মহিষকান্দি গ্রামের মৃত মোমিন উদ্দীন হাওলাদার এর ছেলে নুরু হাওলাদার ও বেল্লাল হাওলাদারের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিলো। ছোট ভাই বেল্লাল হাওলাদার পাশ্ববর্তী সোবাহান হাওলাদারের ঘরে ঘুমন্ত ছিলো। এসময় বড় ভাই নুরু হাওলাদার পূর্ব বিরোধের জেরে সোবাহান হাওলাদারের বাড়িতে গিয়ে ঘুমন্ত অবস্থায় দা দিয়ে ছোট ভাই বেল্লাল হাওলাদারকে এলোপাথারী কোপায়। এতে বেল্লালের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষত-বিক্ষত হয় এবং মাথার মগজ বের হয়ে ছিন্ন বিচ্ছন্ন হয়ে যায় এবং ঘটনাস্থলেই বেল্লালের মৃত্যু হয়। এদিকে ছোট ভাই বেল্লালকে খুন করে পালানোর চেষ্টা করলে আমি স্থানীয়দের সাহায্যে বড় ভাই ঘাতক নুরু হাওলাদারকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করি।
কাঠালিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ মুরাদ আলী জানান, বড় ভাইর হাতে ছোট ভাই বেল্লাল হত্যার ঘটনায় এলাকাবাসীর সহযোগীতায় ভাই নুরু হাওলাদারকে আটক করা হয়েছে এবং লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।
জানা গেছে বেল্লাল একা থাকার কারনে প্রতিবেশী সোবাহান হাওলাদারের বাড়িতে  প্রায়ই রাত্রিযাপন করতো বেল্লাল। রোববার দিনগত রাতে প্রতিদিনের মত প্রতিবেশীর বাড়ি ঘুমিয়ে ছিলো বেল্লাল। বেল্লালের সাথে জরুরি কথা আছে বলে ফজরের আজানের  পরে সেই বাড়ীতে প্রবেশ করে বড় ভাই নুরু। ঘর মালিক সোবাহান ওজু করতে বাইরে গেলেই ছোট ভাই বেল্লালের মাথার উপরে এলোপাথারী ভাবে দা দিয়ে  কুপিয়ে ফেলে রাখে।
ওই ঘরের মালিকের ছেলে আল আমিন জানান, ফজরের সময়  হত্যাকারী নুরু বাড়িতে আসে। কেন আসছেন জানতে চাইলে তখন নুরু বলেন তুই ছোট মানুষ বুঝবিনা ঘুমিয়ে থাক, তখন আমি আবার বিছানায় শুয়ে পড়ি।  বাবা ওজু করতে যায়। হত্যাকারী নুরু ওজু করতে বাইরে যাওয়ার কথা বলে বেল্লালের ঘরে গিয়ে ধারালো দা দিয়ে মাথায় কোপ দেয়। তখন ডাক চিৎকার দিলে নুরু বাইরে চলে যায়। এর পর আমি আর পাশের বাড়ীর  মিজান  তার পিছু নেই।
মজসিদের সামনে গেলে লোকজন ডেকে তাকে ধরে স্থানীয় মন্নান মেম্বারকে খবর দেই। পরে কাঠালিয়া থানা পুলিশ হত্যাকারী নুরুকে আটক করে।
হত্যাকারী নুরু বলেন, আমার বাবার ১০৪ শতক সম্পত্তির ৮৮ শতক সম্পত্তি বেল্লাল নিজের নামে লিখে নিয়েছে এবং আদালতে আমাদের নামে মামলা করেছে। তাই আমি দা দিয়ে কুপিয়ে মেরেছি।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT