নেতাকর্মীরা অবস্থান নিয়েছে বঙ্গবন্ধু উদ্যানের সমাবেশস্থলে নেতাকর্মীরা অবস্থান নিয়েছে বঙ্গবন্ধু উদ্যানের সমাবেশস্থলে - ajkerparibartan.com
নেতাকর্মীরা অবস্থান নিয়েছে বঙ্গবন্ধু উদ্যানের সমাবেশস্থলে

3:05 pm , November 4, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ বিএনপির বরিশাল বিভাগীয় গণ সমাবেশের একদিন পূর্বেই নেতাকর্মীদের পদচারনা আর মিছিলে মুখরিত নগরীর বঙ্গবন্ধু উদ্যান। সকল পরিবহন এমনকি নগরীর আসার পথে সকল খেয়া পারাপার বন্ধ থাকার পরেও বিভাগের ৬ জেলার ৪২ উপজেলার নেতাকর্মীরা এসে অবস্থান নিয়েছেন। বরিশাল নগরীর বিভিন্ন আবাসিক হোটেল, নেতৃবৃন্দদের বাসা-বাড়ী, আত্মীয়-স্বজনদের বাসায় অবস্থান নেয়া নেতাকর্মীরা দুপুরের পর থেকে খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে আসছে বঙ্গবন্ধু উদ্যানে। সকাল থেকে গণ সমাবেশের আশেপাশে টহল দল থাকলেও এখন বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
স্বরুপকাঠি উপজেলা থেকে আসা কৃষকদলের সভাপতি সুজন মিত্র বলেন, সন্ধ্যা নদীর ফেরি ও খেয়া পারাপারের ট্রলার বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। হেটে ও বিকল্প যানবাহনে বঙ্গবন্ধু উদ্যানে এসেছে তিনিসহ শতাধিক নেতাকর্মী। সমাবেশ শেষ না করে মাঠ ছেড়ে যাবেন না বলে জানান তিনি।
স্বরুপকাঠি উপজেলা শ্রমিক দলের সদস্য সচিব এনামুল হক বলেন, এ সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত রাজ পথে আন্দোলন চালিয়ে যাবো। যত বাঁধাই আসুক না কেন গণ সমাবেশে অবস্থান করবেন। প্রয়োজনে জীবন দেবেন বলে জানান তিনি।
ডান পায়ে হাটু অবদি ব্যান্ডেজ নিয়ে মাঠের মধ্যে বসে শ্লোগান দিচ্ছিলেন গলাচিপা থেকে আসা সুজন নামে এক নেতা। সুজন গলাচিপার বকুলপুর ইউনিয়ন বিএনপির ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারন সম্পাদক। মোটর সাইকেলযোগে গণ সমাবেশে আসার পথে বৃহস্পতিবার পটুয়াখালীর চৌমাথা এলাকায় হামলা চালানো হয়। লাঠির আঘাতে ডান পায়ে হাড়ে চির ধরেছে। বরিশাল এসে ব্যান্ডেজ করেছেন। বর্তমানে মাঠে থাকছেন জানিয়ে সুজন বলেন, সমাবেশ শেষ না করা পর্যন্ত ফিরবেন না।
পটুয়াখালীর সদর উপজেলার আউলিয়াপুর ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি মাহবুব মৃধা বলেন, ধর্মঘটের কারনে দুই দিন পূর্বে এসেছেন। পটুয়াখালী জেলা থেকে এখন পর্যন্ত ৪/৫ হাজার নেতাকর্মী এসেছে। রাতে ট্রলারে আরো নেতাকর্মী রওনা দেবে।
সরেজমিনে দেখা গেছে, গণ সমাবেশের মঞ্চ নির্মান প্রায় শেষের পথে। মঞ্চের আশে-পাশেসহ বঙ্গবন্ধু উদ্যানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে অবস্থান নিয়েছে নেতাকর্মীরা। উদ্যানের ওয়ার্ক ওয়েতে বিভিন্ন জেলা উপজেলার নেতাকর্মীদের অনুসারীরা মিছিল করছে।
উদ্যানের বিভিন্নস্থানে তাবুর মতো করে অবস্থান করছেন নেতাকর্মীরা। এসব তাবুর কাছাকাছিতে চলছে রান্না।
বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব এ্যাড. মজিবর রহমান সরোয়ার বলেন, দ্রব্যেমূল্যের উর্ধ্বগতি, দুর্নীতি, খুন, গুম,হত্যাসহ নানা অপকর্মে মানুষ অতিষ্ঠ। বিএনপির যে কোন কর্মসূচীতে সাধারন মানুষ অংশ নিয়ে সরকারের অপকর্মের প্রতিবাদ জানায়। তাই সরকার দিশেহারা হয়ে পড়েছে। যার বড় প্রমান সরকারের হরতাল দেয়া। এ থেকে প্রমান হয় সরকার জন সমর্থনে দেউলিয়া হয়ে গেছে।
এদিকে গণ সমাবেশ ঘিরে নগরীর সকল মোড়ে এবং সমাবেশের আশপাশে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
বঙ্গবন্ধু উদ্যানের বান্দ রোডের প্রবেশ পথে একদল পুলিশ নিয়ে অবস্থান করছেন কাউনিয়া থানার ওসি আব্দুর রহমান মুকুল। তিনি জানান, আইন শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য অবস্থান নিয়েছেন তারা।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT