ঝালকাঠিতে পর্নোগ্রাফি মামলায় মিলন জেল হাজতে ঝালকাঠিতে পর্নোগ্রাফি মামলায় মিলন জেল হাজতে - ajkerparibartan.com
ঝালকাঠিতে পর্নোগ্রাফি মামলায় মিলন জেল হাজতে

3:08 pm , November 2, 2022

ঝালকাঠি প্রতিবেদক ॥ ঝালকাঠিতে পর্নোগ্রাফি মামলায় ঝালকাঠি সদর উপজেলার শেখের হাট ইউনিয়নের শিরযুগ গ্রামের মরহুম ইদ্রিস আলী সরদারের পুত্র পুত্র মিলন(৪০) সরদারকে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে বরিশালের আদালত। ১ নভেম্বর ১৪:৩৫ ঘটিকায় বরিশাল ডিএমপি কোতয়ালী মডেল থানায় পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রন আইনের ৮(১)/৮(২)/ ৮(৩) ধারায় মামলা রুজু হয়। মামলা নং -৪/২০২২। ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর থানার পুর্ব ফুলহার গ্রামের মো: কামরুল ইসলামের স্ত্রী জনৈক ২৬ বছরের মহিলা বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। মামলা সূত্রে জানা যায়, বাদীর সাথে অনুমান ১/২ মাস পূর্বে মিলন সরদার ফোন নম্বর সংগ্রহ করিয়া ফোনে কথা বার্তা বলে। সেই সুবাদে মিলনের সাথে বাদীনীর সুসম্পর্ক তৈরি হয়। এক পর্যায়ে ফেসবুক আইডি’র মাধ্যমে দুজনের সাথে ভিডিওতে কথাবার্তা হয়। বিবাদী মিলন এক পর্যায়ে বাদীকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। সোনিয়া প্রেমে রাজি না হলে মিলন ক্ষিপ্ত হয়ে তার সাথে ভিডিওর কথাবার্তা এডিটিং করে অশ্লীল ছবি তৈরি করে যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দেয়ার হুমকি প্রদান করে। ৩১ ডিসেম্বর ২০২২ ইং তারিখ রাত অনুমান ১০টায় কোতয়ালী মডেল থানাধীন ২৫ নং ওয়ার্ডস্থ রুপাতলী শাওন ফিলিং ষ্টেশনের মধ্যে অবস্থানকালে সোনিয়ার এক বন্ধু জানায় যে, বিবাদী মিলন বাদীর ছবির সাথে অশ্লীল ছবি এডিট করিয়া তাহার মোবাইলে সংরক্ষণ করে এবং মো: প্রিন্সসহ বিভিন্নজনকে পাঠায় এবং দেখায়। তখন বাদীনির এডিট করা অশ্লীল ছবি মো: প্রিন্স নামীয় ফেইসবুক আইডির ম্যাসেঞ্জারে সোনিয়া দেখতে পায় যা মিলনের ব্যবহৃত ফেইসবুক আইডি মো: মিলন সরদার হইতে পাঠান হয়েছে। উক্ত বিষয়টি দেখার পরে বাদীনি তাৎক্ষনিক মিলনের সাথে কথা বলে। তখন মিলন সরদার বাদীনিকে বিভিন্ন ধরনের হুমকি প্রদান করাসহ আরো অশ্লীল ছবি সোনিয়ার বন্ধু মহলে পাঠানোর হুমকি প্রদান করে।বাদীর ধারনা মিলন সরদার ইলেকট্রনিক্স ডিভাইসে অশ্লীল মান হানিকর ছবি প্রকাশ করিয়া বাদীনির ব্যক্তিগত মান সম্মান ক্ষুন্ন করেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি সূত্রে জানা যায়, ঝালকাঠির আওয়ামীলীগের বড় বড় নেতার সাথে মিলন সরদার ওঠাবসা ও আত্মীয়তার সম্পর্ক রয়েছে বলে মিলন সরদার লোকজনের উপর প্রভাব বিস্তার করে থাকে। ঝালকাঠির ৩/৪ জন শীর্ষ নেতা মিলনের কথামত চলে বলেও মিলন বাহিরে বলে বেড়ায় এবং প্রবাব খাটায়। মিলন ঝালকাঠি শহরের রোনালসে রোডস্থ দেশীভোজ রেস্টুরেন্টের সাবেক স্টাফ ছিলো বলে জানা যায়।বাদী মোসা: সোনিয়া ও তার পরিবার সাংবাদিকদের বলেন, “তারা এ ঘটনার সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্ত সাপেক্ষে মিলনের দৃস্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেন।” বরিশাল কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ মো: আজিমুল করিম সাংবাদিকদের মুঠোফোনে জানান, “বাদীর লিখিত অভিযোগ পেয়ে পর্নোগ্রাফী আইনে মামলা রুজু করেছি। আসামীকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছি। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।”

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT