সদর উপজেলার কমিটি বিলুপ্তির দাবীতে সংবাদ সম্মেলন, বিক্ষোভ ও দলীয় কার্যালয়ে তালা সদর উপজেলার কমিটি বিলুপ্তির দাবীতে সংবাদ সম্মেলন, বিক্ষোভ ও দলীয় কার্যালয়ে তালা - ajkerparibartan.com
সদর উপজেলার কমিটি বিলুপ্তির দাবীতে সংবাদ সম্মেলন, বিক্ষোভ ও দলীয় কার্যালয়ে তালা

3:34 pm , September 17, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ সদর উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটি বিলুপ্তের দাবিতে নগরীর সদর রোডের দলীয় কার্যালয়ে তালা দিয়েছে দলের একাংশের নেতাকর্মীরা। শনিবার দুপুরে জেলা ও মহানগর দলীয় কার্যালয়ে তালা দেয়া হয়। এর আগে ঘোষিত কমিটি বিলুপ্তি ও দক্ষিন জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটি নতুন করে গঠনের দাবীতে বরিশাল রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সংবাদ সম্মেলন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে সদর উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি এ্যাড. কাজী এনায়েত হোসেন বাচ্চু, ঘোষিত কমিটির যুগ্ম আহবায়ক মন্টু খান, সদস্য মামুন অর রশিদ, আনোয়ার হোসেন, আব্দুর জব্বার শিকদারসহ সদর উপজেলা নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন কমিটির ১নং সদস্য জিয়াউল ইসলাম সাবু। লিখিত বক্তব্যের মাধ্যমে তিনি বলেন, অসাংগঠনিকভাবে গত ১৯ জুলাই পূর্বের কমিটি বিলুপ্ত করে বরিশাল জেলা (দক্ষিন) বিএনপির আহবায়ক এ্যাড. মুজিবুর রহমান নান্টু ও সদস্য সচিব এ্যাড. আকতার হোসেন তালুকদার মেবুল। অথচ বিলুপ্ত করার আগে সদর উপজেলার সভাপতি এ্যাড. কাজী এনায়েত হোসেন বাচ্চু হজ্ব পালনে দেশের বাইরে ছিলেন। ওই সময় বাচ্চুসহ কেন্দ্রীয় নেতাদের অনুরোধ ও পরামর্শও উপেক্ষা করে তারা এ কমিটি দিয়েছেন।
জিয়াউল ইসলাম বলেন, বিষয়টি নিয়ে ২০ জুলাই দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান, মহাসচিব ও বরিশাল বিভাগীয় দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় নেতাদের নিকট লিখিত অভিযাগ দেন এ্যাড. কাজী এনায়েত হোসেন বাচ্চু। পরবর্তীতে গত ৩১ জুলাই মহাসচিবের বরাতে কেন্দ্রীয় বিএনপি’র সহ-সভাপতি আব্দুল আউয়াল মিন্টু বিভাগীয় সাংগঠনিক টিমের পরামর্শক্রমে বরিশাল সদর উপজেলা কমিটি করার লিখিত নির্দেশ দেয়। কিন্তু সেই নির্দেশ অমান্য করে গত ১৫ সেপ্টেম্বর রাতে ফেসবুকের মাধ্যমে বরিশাল সদর উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটি ঘোষনা করেন জেলার সভাপতি। তিনি বলেন, মুজিবুর রহমান নান্টু ক্ষমতার অপব্যবহার করে অনৈতিক সুবিধা নিয়ে অগণতান্ত্রিকভাবে সদর উপজেলার সাবেক কমিটির কারো সাথে পরামর্শ বা মতামত না করে অস্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় একটি হাস্যকর কমিটি ঘোষনা করেন। যে কমিটিতে পদাধিকার বলে বিভিন্ন ইউনিয়ন বিএনপির নেতৃবৃন্দর থাকার কথা থাকলেও অনেককেই রাখা হয়নি।
তিনি বলেন, কমিটিতে নুরুল আমিনকে আহবায়ক করা হয়েছে যিনি সদ্য বিলুপ্ত সদর উপজেলা বিএনপির সদস্যও ছিলেন না। এর আগে নুরুল আমিন কড়াপুর ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়কের দায়িত্ব নিলে সাবেক সভাপতি সম্পাদক সহ ১৯২ জন নেতা পদত্যাগ করেন। ২০১৮ সালের সংসদ নির্বাচনে নুরুল আমিন ইউনিয়ন বিএনপির নেতা হয়েও আওয়ামী লীগের প্রার্থীর সমর্থনে কাজ করেন বলে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়।
অভিযোগের ভিত্তিতে দৈনিক আজকের পরিবর্তনকে বরিশাল দক্ষিন জেলা বিএনপির আহবায়ক এ্যাড. মজিবুর রহমান নান্টু বলেন, গত ১৪ বছর ধরে নুরুল আলম বিএনপির রাজনীতি করে। সে তো এখন জামায়াতে নেই। জামায়াত নেতা হলেও কি ? সে তো এ দেশের নাগরিক। দেশের সকল কিছু মেনে নিয়ে রাজনীতি করে। কে কি বললো না বললো। এ নিয়ে মাথা ঘামানোর সময় নেই।
সাবু আরো অভিযোগ করেন, চরমোনাই ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর প্রধান সমন্বয়কারী আ. ছালাম রাঢ়ীকে বর্তমান আহবায়ক কমিটির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক করা হয়েছে। আহবায়ক কমিটিতে অনেক অঙ্গ সংগঠনের লোকদের সদস্য করা হয়েছে, যাদের কেউ চিনে না। কমিটিতে অনেককে যথাযথ স্থানে রাখা হয়নি। তাই কমিটি বিলুপ্ত দাবি করেন তিনি।
সাবু বলেন, কমিটিতে সদর উপজেলা বিএনপি’র পরীক্ষিত ত্যাগী জেল জুলুম ও অত্যাচার সহ্যকারী নেতাকর্মীরা হতাশ, নিরাশ এবং হতবাক। এ নিয়ে নেতাকর্মীদের অসন্তোষ চরম আকার ধারণ করেছে। আগামী তিন দিনের মধ্যে নেতৃবৃন্দ এই দাবী না মানলে লাগাতার কর্মসূচী দিয়ে অবাঞ্চিত কমিটিকে হঠাতে বাধ্য হবো। এছাড়া দক্ষিন জেলা বিএনপির কমিটির পুনরায় গঠনের দাবী জানানো হয়েছে সংবাদ সম্মেলনে। কারণ হিসেবে বলেন, এ্যাড. মুজিবুর রহমান নান্টু পিরোজপুর জেলার লোক। বরিশাল জেলা বিএনপির কোন আন্দোলন সংগ্রামে তাকে পাওয়া যায়নি। সদস্য সচিব পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীর লোক। আমরা চাই বরিশাল জেলার লোক দিয়ে জেলা কমিটি গঠন করা হোক।
এদিকে, সংবাদ সম্মেলন শেষে নেতা কর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে দলীয় কার্যালয়ে যায়। সেখানে গিয়ে দলীয় কার্যালয়ে তালা দেন তারা। এ বিষয়ে সাবু বলেন, বিক্ষুব্ধ নেতা কর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে দলীয় কার্যালয়ে তালা দিয়েছে। বিষয়টি জানার পর তালা খুলে দেয়া হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT