বঙ্গমাতা সেতু চালুর মধ্যে দিয়ে বন্ধ হয়ে গেল ২৬ বছরের পুরনো ফেরি সার্ভিস বঙ্গমাতা সেতু চালুর মধ্যে দিয়ে বন্ধ হয়ে গেল ২৬ বছরের পুরনো ফেরি সার্ভিস - ajkerparibartan.com
বঙ্গমাতা সেতু চালুর মধ্যে দিয়ে বন্ধ হয়ে গেল ২৬ বছরের পুরনো ফেরি সার্ভিস

3:49 pm , September 4, 2022

বিশেষ প্রতিবেদক ॥ বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা অস্টম চীন-বাংলাদেশ মৈত্রী সেতু চালু হবার মধ্যে দিয়ে বন্ধ হয়ে গেলো ২৬ বছর আগে চালু হওয়া ফেরী সার্ভিস। এরই সাথে উপকূলের ৩টি বিভাগ ও সবগুলো সমুদ্র বন্দরের সরাসরি সড়ক যোগাযোগ প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি বরিশাল বিভাগীয় সদরের সাথে বিচ্ছিন্ন পিরোজপুর জেলার সরাসরি সড়ক যোগাযোগও প্রতিষ্ঠিত হল। রোববার সকাল ১১টার কিছু পরে প্রধানমন্ত্রী আনুষ্ঠানিকভাবে এ সেতুর উদ্বোধন ঘোষনার কিছুক্ষন পরেই ফেরী সার্ভিস বন্ধ হয়ে সেতু দিয়ে যানবাহন চলাচল শুরু হয়। ফলে বরিশাল, ঝালকাঠী ও পিরোজপুরবাসীর মধ্যে আনন্দের বন্যা বইতে শুরু করে। কিন্তু এ আনন্দের আড়ালেই চাপা পড়ে গেছে দক্ষিণাঞ্চলের বিশাল দূরত্বে ওই ফেরী সেক্টরের দুই পাড়ের দেড় শতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক ও কয়েক হাজার কর্মচারীদের কান্না আর হাহাকার।
১৯৯৬ সালের আগষ্ট মাসে বেকুটিয়া ফেরী সার্ভিস চালু হবার পর থেকে কঁচা নদীর দুই পাড়ের দেড় শতাধিক ছোট বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ছাড়াও মসজিদ এবং মাদ্রাসাও গড়ে ওঠে। দিনরাত শত শত যানবাহন পারাপার করতে গিয়ে ফেরী ঘাটটি ছিল কোলাহল মুখর। এমনকি এ ফেরীঘাটকে কেন্দ্র করেই এখানে তাজা মাছের বাজারও গড়ে ওঠে। কঁচা নদী থেকে মাছ ধরে এ ফেরী ঘাটের অস্থায়ী দোকানে বসে বিক্রি করতেন জেলেরা। বাসসহ বিভিন্ন যানবাহনের যাত্রীরা বেজায় খুশিতে তাজা মাছ কিনতেন। এখানের তাজা ইলিশ সবারই চোখ আর মনও জুড়াত।
কিন্তু রোববার দুপুরের আগেই সেখানে নেমে এসেছে শুনশান নীরবতা। প্রতিঘন্টা অন্তর সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের একটি করে ইউটিলিটি টাইপÑ১ (উন্নত) ফেরী এ ঘাট থেকে গাড়ী নিয়েও ঘাটে যেত। প্রায় ৫ কিলোমিটার দূরত্বের কঁচা পাড়ি দিতে সময় লাগত ১৫ মিনিট থেকে ২০ মিনিট। এক ঘন্টা অন্তর ফেরী থাকায় এপাড় ওপার দুই ঘাটেই দিনরাত গাড়ীর লম্বা লাইন ছিল নিত্যকার বিড়ম্বনা।
এখন সেখানে অপেক্ষার কোন বালাই নেই। পাঁচ মিনিটেরও কম সময়ে ১ হাজার ৪৯৪ মিটার দীর্ঘ বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা অস্টম চীন-বাংলাদেশ মৈত্রী সেতু পার হয়ে গাড়ী চলে যাচ্ছে এপাড় থেকে ওপারে।
এরশাদ সরকারের আমলে যোগাযোগ মন্ত্রী থাকাবস্থায় আনোয়ার হোসেন মঞ্জু বরিশালকে ভা-ারিয়া হয়ে পিরোজপুরÑখুলনার সাথে সড়ক যোগাযোগ প্রতিষ্ঠা করেন। কিন্তু ১৯৯১ সালে বিএনপি সরকার ক্ষমতা গ্রহনের পরে বরিশাল ও খুলনা দূরত্ব আরো হ্রাসের লক্ষ্যে ঝালকাঠীর রাজাপুর থেকে বেকুটিয়া পর্যন্ত ১২ কিলোমিটার সড়ক নির্মান সম্পন্ন করা হয়। বেকুটিয়াতে ফেরী সার্ভিস প্রবর্তনের লক্ষে সে সময়ে ২টি পন্টুন ও ২টি ইউটিলিটি ফেরী মোতায়েন হলেও ’৯৬-এর রাজনৈতিক অস্থিরতায় সে সরকার আর সড়ক ও ফেরী সার্ভিস চালু করতে পারেনি। তবে ওই বছরই সেপ্টেম্বরে এ সড়কটি এবং ফেরী সার্ভিস চালু করায় বরিশাল ও ঝালকাঠী থেকে পিরোজপুর ও খুলনার সড়ক পথে দূরত্ব আরো ২২ কিলোমিটার কমে মাত্র ১০৫ কিলোমিটারে এসে থামে।
২০১৫ সালে বেকুটিয়াতে সেতু নির্মানে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের সাথে চীনা দূতাবাসের সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। কিন্তু সেতু কর্তৃপক্ষ বেকুটিয়া সেতুর দৈর্ঘ্য ১৫শ মিটারের বেশী বলে জানায়। তা নির্মান সড়ক অধিদপ্তরের এখতিয়ার বহিভর্ূূত বলেও দাবী করে কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি নিয়ে পরবর্তীতে যোগাযোগ মন্ত্রনালয়ের হস্তক্ষেপে ১ হাজার ৪৯৪ মিটার দীর্ঘ অস্টম চীন বাংলাদেশ মৈত্রী সেতু নির্মানে সড়ক অধিদপ্তর দায়িত্ব লাভ করে। চীনা প্রেসিডেন্ট-এর ঢাকা সফরকালে ২০১৬ সালের ১ নভেম্বর অস্টম চীনÑবাংলাদেশ মৈত্রী সেতু নির্মানে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। এর দুই বছর পরে ২০১৮ সালের ১ অক্টোবর ‘প্রী-স্ট্রেসড কংক্রিট বক্স গার্ডার’ এ সেতুটির ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT