এই মূহুর্তে মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে এ্যাকশন নেয়ার নির্দেশ দিয়েছি -পুলিশ কমিশনার এই মূহুর্তে মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে এ্যাকশন নেয়ার নির্দেশ দিয়েছি -পুলিশ কমিশনার - ajkerparibartan.com
এই মূহুর্তে মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে এ্যাকশন নেয়ার নির্দেশ দিয়েছি -পুলিশ কমিশনার

3:41 pm , September 3, 2022

মাদক বিক্রেতাদের হামলার শিকার এলাকাবাসী পুলিশ কমিশনার অফিসের সামনে অবস্থান

বিশেষ প্রতিবেদক ॥ মাদক ব্যবসায়ীদের হামলার প্রতিবাদে কমিশনার অফিস ঘেরাও করেছে নগরীর রিফিউজি কলোনির ব্যবসায়ী ও বাসিন্দারা। শনিবার বিকালে আছরের নামাজের পরপরই প্রতিবাদ মিছিল নিয়ে এই ঘেরাও কর্মসূচি পালন করে তারা। তখন তাৎক্ষনিকভাবে পুলিশ কমিশনার মো: সাইফুল ইসলাম বাসা থেকে পুনরায় কার্যালয়ে চলে আসেন। এরপরে দুই দফা প্রথমে কার্যালয়ে হলরুমে এবং পরে নিচ তলায় হ্যান্ড মাইকে দোষীদের গ্রেপ্তারের আশ্বাস দিলে এলাকাবাসী শান্ত হয়। এলাকাবাসী ও সাংবাদিকদের সামনে পুলিশ কমিশনার মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, এলাকাবাসী একটি পরিবারের ৭/৮ জনের বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত থাকার লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে সত্যতা পাওয়া গেছে। এখন থেকে শুধু খালেদাবাদ কলোনী নয়, নগরীতে মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করা হবে বলে ঘোষনা দিয়েছেন পুলিশ কমিশনার। পুলিশ কমিশনার এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে বলেন, আমি আপনাদের অভিযোগ সব শুনেছি ও এই মূহুর্তের এ্যাকশন নেয়ার নির্দেশ দিয়েছি। আপনাদের থেকে মোট আটজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনা তদন্ত করে এদের বিরুদ্ধে কঠিন ব্যবস্থা নেয়া হবে। আপনারা নিশ্চিন্তে ঘরে ফিরে যান।
এদিকে, মাদক বিক্রেতাদের হামলায় খালেদাবাদ কলোনীর বাসিন্দা রাতুলের বাবা পারভেজ আলম জানান, কলোনীর দোকানী গোলাম শেখ’র ছেলে আরমান, কন্যা সাথী ও আনু এবং তার স্বামী রফিকসহ পরিবারের সকলেই বিভিন্নভাবে মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত। তারা মাদক বিক্রয়ের জন্য সাধারন মানুষকে বাধ্য করে। অভিযোগ করে পারভেজ আলম বলেন, তাদের মাদক ব্যবসা বন্ধে এলাকাবাসী বিভিন্ন সময় প্রতিবাদ করেছে। কিন্তু তাদের সাথে কোনভাবে পেরে উঠেনি এলাকাবাসী। পারভেজ আলম জানান, দুপুরে এক পথশিশুকে মোবাইল চুরির অভিযোগে মারধর করছিলো মাদক বিক্রেতা আরমানসহ তার পরিবারের সদস্যরা। রাতুল গিয়ে এর প্রতিবাদ করলে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার বুকে পোচ (আঘাত) দেয়া হয়। মাদক ব্যবসায়ীদের এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে এগিয়ে আসেন এলাকার মুরগী ব্যবসায়ী আরমান, ইমরান, ইস্রাফিলসহ আরো কয়েকজন। তখন তাদের উপর হামলার চেষ্টা করে মাদক বিক্রেতা পরিবারটি। তখন এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে নগরীর আমতলা মোড় এলাকায় মহানগর পুলিশ কমিশনারের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে।
এলাকাবাসী ও ব্যবসায়ী আলহাজ্ব আরমান জানান, তিনি মুরগীর ব্যবসা করেন। তার দোকানের সামনে প্রতিদিনই এই মাদক ব্যবসায়ীরা গোপনে মাদকের বেচাকেনা করতো। এ নিয়ে থানায় বহুবার অভিযোগ দিলেও কোনো কাজ হয়নি। ওদের সাথে থানার কর্মকর্তাদের সম্পর্কের কারণে কেউ আমাদের অভিযোগ গুরুত্ব দেয়না। স্থানীয় বাসিন্দা ও বিএম কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক কাজী মিলন জানান, নূরিয়া স্কুল সংলগ্ন রিফিউজি কলোনীর বাসিন্দারা মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ নিয়ে কমিশনার কার্যালয়ে এসেছে। ওখানে মুরগী ব্যবসায়ীদের গলিতে ঢুকে বেলা তিনটার দিকে স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ীদের কয়েকজন সাথী, আনু, রফিক, আরমান প্রকাশ্যে মাদক বিক্রি করতে গেলে মুরগী ব্যবসায়ী হাজী আরমান বাধা দেন। এতে ক্ষীপ্ত হয়ে তার উপর হামলা চালায় মাদক ব্যবসায়ীরা। ফলে তিনি ও স্থানীয় যুবক রাতুলসহ কয়েকজন আহত হয়। এ ঘটনায় আগেও তারা থানায় অভিযোগ জানিয়ে আসলেও কোনো ব্যবস্থা না দেখে রিফিউজি কলোনির বাসিন্দারা ও ব্যবসায়ীরা পুলিশ কমিশনার অফিস ঘেরাও করেছে বলে জানান মিলন। এই মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে সদর থানায় একাধিক অভিযোগ রয়েছে বলে জানালেন আহত রাতুলের বাবা পারভেজ। রিফিউজি কলোনির শতাধিক নারী পুরুষের মিছিল পুলিশ কমিশনার কার্যালয় ঘেরাও করেন। পরে পুলিশ কমিশনারের আশ্বাসে তারা ফিরে আসেন।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT