জাতীয় শোক দিবসের খাবারের সুষ্ঠুবন্টনে সাধারণ মানুষ খুশি জাতীয় শোক দিবসের খাবারের সুষ্ঠুবন্টনে সাধারণ মানুষ খুশি - ajkerparibartan.com
জাতীয় শোক দিবসের খাবারের সুষ্ঠুবন্টনে সাধারণ মানুষ খুশি

4:11 pm , August 15, 2022

বিশেষ প্রতিবেদক ॥ শোক দিবস উপলক্ষ্যে নগরীর প্রায় একহাজার মসজিদসহ জেলার পাঁচ হাজারের বেশি মসজিদসহ মন্দির ও গীর্জায় সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ, সদর আসনের সংসদ সদস্য পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কর্ণেল (অবঃ) জাহিদ ফারুক, মহানগর এবং জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন করা হয়। তবারক হিসেবে দেয়া হয়েছে ভূনা খিচুরী ও ডিমসহ প্যাকেট খাবার। পৃথকভাবে একই আয়োজন ছিলো বরিশাল ক্লাব, উদয়ন স্কুলসহ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেও। এছাড়াও বরিশাল জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকেও ছিলো পৃথক আয়োজন। জাতীয় শোক দিবসে এবারের এই আয়োজন ব্যাপক প্রশংসা পেয়েছে সাধারণ মানুষের কাছে। বরিশাল ক্লাবের সামনেঅপেক্ষারত ইজিবাইক ও অটোরিকশা চালকদের কয়েকজন বলেন, আমরা মসজিদে যাওয়ার সুযোগ পাইনি। আমাদের ডেকে এখানে জড়ো করেছেন নেতারা। লাইন ধরে একজন একজন করে খাবারের প্যাকেট নিচ্ছি।
আর খাবার খেয়ে তৃপ্তির ঢেঁকুর তুলে রিকশাচালক মতিউর বললেন, খেচুরী আর ডিম। খুব মজা হয়েছে। যাদের জন্য এই আয়োজন আল্লাহ তাদের শান্তিতে রাখুন। তাদের পরিবারের সদস্যদের নেক বান্দা বা খাটি মুসলমান বানিয়ে দিন। গত কয়েকদিন টানা বৃষ্টিতে নগরীর আশেপাশের নি¤œাঞ্চল প্লাবিত হয়ে এমননিতেই শোকাবহ পরিবেশ বরিশালে। তারউপর ১৪ আগস্ট রাতে গাছপালা উপড়ে পরে নগরীর ১৩ নং ওয়ার্ডে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বেশকিছু বাড়ি। এমন সময় অনেক পরিবারের মুখেই হাসি ফুটেছে ১৫ আগস্টের শোকদিবস উপলক্ষে পাওয়া খেচুরীর প্যাকেটে।
বাংলাদেশ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাৎ বার্ষিকীর এই দিনটিকে জাতীয় শোকদিবস ঘোষণা করে বাংলাদেশের আওয়ামী লীগ সরকার। এরপর থেকে প্রতিবছর এ দিনটি জাতীয় শোকদিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে । ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ধানম-ির ৩২ নম্বরের নিজ বাসায় সেনাবাহিনীর কতিপয় বিপথগামী সেনাসদস্যের হাতে স্বপরিবারে নিহত হন। সেদিন তিনি ছাড়াও নিহত হন তার স্ত্রী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিব। এছাড়াও তাদের পরিবারের সদস্য ও আত্মীয়স্বজনসহ নিহত হন আরো ১৬ জন। এ দিন নিহত হন মুজিব পরিবারের বড় ছেলে শেখ কামাল, শেখ জামাল ও শিশু পুত্র শেখ রাসেল, পুত্রবধূ সুলতানা কামাল ও রোজী কামাল। শেখ মুজিবুর রহমানের ভাই শেখ আবু নাসের, ভগ্নিপতি আব্দুর রব সেরনিয়াবাত, ভাগনে শেখ ফজলুল হক মণি ও তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী বেগম আরজু মণিসহ আরো অনেকে। বঙ্গবন্ধুর জীবন বাঁচাতে ছুটে আসেন কর্ণেল জামিল উদ্দীন। তিনিও তখন নিহত হন। দেশের বাইরে থাকায় বেঁচে যান শেখ হাসিনা ও তার ছোটবোন শেখ রেহানা। প্রতি বছর ১৫ আগস্ট তাই নির্মম এক নৃশংসতাকে স্মরণ করিয়ে দেয়। বাঙালি জাতি গভীর শোক ও শ্রদ্ধায় স্মরণ করে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সকল সদস্যদের,পালিত হয় জাতীয় শোক দিবস।
বরাবরের ধারাবাহিকতায় জাতীয় শোক দিবসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধে সোমবার বেলা ১১টা ৫৫ মিনিটে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তিনি। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে কিছুটা সময় নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন প্রধানমন্ত্রী। ওই সময় বঙ্গবন্ধু ও ১৫ আগস্টের শহীদদের সম্মান জানিয়ে রাষ্ট্রীয় সালাম জানায় তিন বাহিনীর একটি চৌকস দল। বিউগলে বেজে ওঠে করুণ সুর। পরে দোয়া পাঠ ও মোনাজাতে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী।
পরে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের নিয়ে দলের সভাপতি হিসেবে আরও একবার শ্রদ্ধা নিবেদন করেন তিনি। এর আগে এদিন বেলা ১১টা ৪৫ মিনিটে হেলিকপ্টারযোগে সফরসঙ্গীদের নিয়ে টুঙ্গিপাড়া পৌঁছান বঙ্গবন্ধুকন্যা। তারও আগে রাষ্ট্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে সোমবার ভোরে রাজধানীর ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু ভবন প্রাঙ্গণে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন শেখ হাসিনা।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT