ভোলায় বিএনপির ডাকা পূর্ন দিবস হরতাল অর্ধ দিবস পালন  ভোলায় বিএনপির ডাকা পূর্ন দিবস হরতাল অর্ধ দিবস পালন  - ajkerparibartan.com
ভোলায় বিএনপির ডাকা পূর্ন দিবস হরতাল অর্ধ দিবস পালন 

3:50 pm , August 4, 2022

ভোলা অফিস ॥ পুলিশের সাথে সংঘর্ষে গুলিতে নিহত স্বেচ্ছাসেবক দল কর্মী আব্দুর রহিম ও জেলা ছাত্রদল সভাপতি নুরে আলমের মৃত্যুতে জেলা বিএনপি ভোলায় সকাল সন্ধ্যা হরতালের ডাক দিলেও শেষ পর্যন্ত তা অর্ধ দিবস হরতাল পালিত হয়েছে। জনদুর্ভোগের কথা চিন্তা করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বেলা ১২ টায় হরতাল প্রত্যাহার করে নেয়ার কথা ঘোষনা দেন। এর আগে শহরজুড়ে হরতালের পক্ষে মিছিল ও পিকেটিং করে হরতাল সমর্থনকারীরা। তবে মাঠে পুলিশের পাশাপাশি হরতালের বিপক্ষে নামে আওয়ামী লীগসহ অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা।
সকালে ভোলা শহরে সমস্ত দোকানপাট ও শপিংমল গুলো বন্ধ ছিলো। কোন ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খোলেনি। সকল দোকানপাট বন্ধ থাকার পাশাপাশি রিক্সাসহ সকল ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিলো। পুরো শহর যেন শোকে নীরবতা পালন করেছে। বিভিন্ন এলাকা থেকে খন্ড খন্ড মিছিল আসতে থাকে শহরের মহাজনপট্টিস্থ জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে। সেখানে রাস্তা অবরোধ করে চলে বিক্ষোভ। বিএনপি, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল ও ছাত্রদলসহ এর অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা মাঠ দখলে নেয়।  হরতালকারীরা রাস্তায় বের হওয়া বোরাক চালাতে বাঁধা প্রদান করে। তবে দূরপাল্লার বাস ও অন্য জেলার সাথে লঞ্চ চলাচল ছিলো স্বাভাবিক।
এদিকে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখার জন্য শহরে বিপুল সংখ্যক পুলিশ  ও র‌্যাব সদস্যরা শহরে টহল দেয়। এ সময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সামনেও হরতালের সমর্থনে মিছিল করতে দেখা গেছে। তবে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।
অপরদিকে হরতালের বিপক্ষে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মাঠে ছিলো। তারাও হরতালের বিপক্ষে শহরে মিছিল করেছে। এসময় তারা হরতাল বিরোধী স্লোগান দেয়।
বেলা ১২ টায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বের চন্দ্র রায় সংবাদ সম্মেলন করে হরতাল প্রত্যাহার করে নেন। এ সময় তিনি হরতাল সফল করায় ভোলাবাসীকে ধন্যবাদ জানান। একই সাথে জনদুর্ভোগের কথা চিন্তা করে হরতাল প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে জানান।
উল্লেখ্য,সারাদেশে লোডশেডিংয়ের প্রতিবাদে দেশব্যাপী বিক্ষোভের অংশ হিসেবে ভোলায়ও বিক্ষোভ হয়। মিছিল শুরু করলে পুলিশ বাঁধা দেয়। এতে পুলিশের সাথে বিএনপির অর্ধশত কর্মী আহত হয়। গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হন স্বেচ্ছাসেবক দল কর্মী আব্দুর রহিম এবং ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় জেলা ছাত্রদল সভাপতি নুরে আলম মারা যান। এ খবরে ক্ষোভে ফেটে পড়ে পুরো ভোলার বিএনপির নেতাকর্মীসহ সর্বস্তরের মানুষ। রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভের পাশাপাশি হরতালের সমর্থনে মিছিল করেন নেতাকর্মীরা।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT