করোনা ভ্যাকসিন গ্রহণে আগ্রহ নেই দক্ষিনা মানুষের করোনা ভ্যাকসিন গ্রহণে আগ্রহ নেই দক্ষিনা মানুষের - ajkerparibartan.com
করোনা ভ্যাকসিন গ্রহণে আগ্রহ নেই দক্ষিনা মানুষের

3:28 pm , August 2, 2022

বিশেষ প্রতিবেদক ॥ দক্ষিণাঞ্চলে গত দুই মাসে করোনা ভ্যাকসিনের বুষ্টার ডোজ প্রয়োগে কিছুটা গতি আসলেও এখনো ১৮ বছরের উর্ধ্বের মোট জনসংখ্যার ২৫ভাগ মানুষও তা গ্রহণ করেনি। পাশাপাশি প্রথম ও দ্বিতীয় ডোজের ভ্যাকসিন প্রয়োগও গত দুই মাসে অনেকটা স্থবির হয়ে পড়েছে। এমনকি বুষ্টার ডোজ গ্রহণের ব্যাপারে এখনো সমাজের মধ্য থেকে নি¤œ বিত্তের মানুষের মধ্যে তেমন কোন আগ্রহ নেই বলে জানিয়েছে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্বাস্থ্য বিভাগের দায়িত্বশীল সূত্রগুলো। অনেকের মধ্যেই বুষ্টার ডোজ গ্রহনের পরে জ¦রসহ শরীর ব্যাথার এক ধরনের ভীতিও কাজ করছে। অথচ চিকিৎসা বিশেষজ্ঞদের মতে, করোনা প্রতিরোধে পরিপূর্ণ স্বাস্থ্যবিধি অনুসরনের সাথে ভ্যাকসিনের পূর্ণ ডোজ গ্রহনের কোন বিকল্প নেই। অপরদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দায়িত্বশীল সূত্রের মতে, দক্ষিণাঞ্চলে বর্তমানে শুধুমাত্র ফাইজারের বুুষ্টার ডোজ গ্রয়োগ করা হচ্ছে, যাতে জ¦রসহ কোন ধরনের উপসর্গের সম্ভবনা খুবই কম।
এদিকে এক পরিসংখ্যানে জানা গেছে, ২০২১ সালের ৭ জানুয়ারী থেকে চলতি বছরের জানুয়ারীর প্রথমভাগ পর্যন্ত দক্ষিণাঞ্চলের ৬ জেলায় যেখানে ৪৪ লাখ ১০ হাজার ৬১৬ জন প্রথম ডোজ এবং ৩১ লাখ ৫৪ হাজার ৫৭৩ জন দ্বিতীয় ডোজ গ্রহন করেছিলেন, সেখানে এ বছরের ৩১ মে পর্যন্ত ৬৯ লাখ ৩ হাজার ৯৩৪ জন প্রথম ডোজ গ্রহন করেছেন। আর প্রথম ডোজ গ্রহনকারীদের মধ্যে দ্বিতীয় ডোজ গ্রহন করেছিলেন  ৫৯ লাখ ৮২ হাজার ৩৬৯ জন। তবে বুষ্টার ডোজ গ্রহনকারীর সংখ্যা ছিল মাত্র ৬ লাখ ৪৭ হাজার ৩৩ জন।
কিন্তু এর একমাস পারে ৩০ জুন পর্যন্ত প্রথম ডোজ গ্রহনকারীর সংখ্যা দাঁড়ায় ৬৯ লাখ ১০ হাজার ৫৫৩ জনে। আর এসময়ে দি¦তীয় ডোজ গ্রহন করেছিলেন ৬০ লাখ ২৪ হাজার ৭১৫ জন নারী-পুরুষ। এ হিসেবে জুন মাসে দক্ষিণাঞ্চলের ৪২ উপজেলায় মাত্র ৭ হাজারের কম মানুষ করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ এবং ৪২ হাজার ৩৪৬ জন দ্বিতীয় ডোজ গ্রহন করেছেন। তবে এসময়ে বুষ্টার ডোজ গ্রহনকারীর সংখ্যা উল্লেখযোগ্য ভাবেই বেড়ে ১৪ লাখ ২৪ হাজার ৩১৬ জনে উন্নীত হয়েছে। অর্থাৎ একমাসে বুষ্টার ডোজ গ্রহনকারীর সংখ্যা ছিল ৭ লাখ ৭৭ হাজারের মত।
তবে জুলাই মাসে দক্ষিণাঞ্চলের ৬ জেলায় করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ গ্রহনকারীদের সংখ্যা পূর্ববর্তী মাসের তুলনায় কিছুটা বাড়লেও সংখ্যাটা ছিল মাত্র ৫৪ হাজার ৭২৬। তবে এসময়ে  দ্বিতীয় ডোজ গ্রহনকারীর সংখ্যা ছিল ১ লাখ ৮ হাজার ৮২৩ জন। পাশাপাশি জুলাই মাসে বুষ্টার ডোজ গ্রহনকারীর সংখ্যাটা পূর্ববর্তী মাসের অর্ধেকেরও নিচে কমে ৬ লাখ ৩৬ হাজার ৪৬৯ জনে স্থির ছিল।
ফলে প্রায় ১ কোটি জনসংখ্যার দক্ষিণাঞ্চলে ১২ বছরের উর্ধ্বের ৮০ লাখ জনসংখ্যার মধ্যে করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ গ্রহনকারীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬৯ লাখ ৬৪ হাজার ৮০৯ জনে। দ্বিতীয় ডোজ গ্রহন করেছেন ৬১ লাখ ৩৩ ৫৩৮ জন। আর বুষ্টার ডোজ গ্রহন করেছেন মাত্র ২০ লাখ ৬০ হাজার ৭৮৫ জন। যা এ অঞ্চলে ১৮ বছর ও তার উর্ধ্বে ৬০ লাখেরও বেশী জনসংখ্যার ২৫ ভাগের মত। এখন পর্যন্ত দেশে ১৮ বছর ও তার উর্ধ্বে বুষ্টার ডোজ প্রয়োগ করা হচ্ছে।
এ ব্যাপারে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বরিশাল বিভাগীয়  পরিচালক ডা. হুমায়ুন শাহীন খানের সাথে আলাপ করা হলে তিনি জানান, করোনা ভ্যাকসিনের ব্যাপারে দক্ষিণাঞ্চলের সবগুলো জেলা-উপজেলাতে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়ে কাজ চলছে। আমরা চেষ্টা করছি ১২ বছরের উর্ধ্বের শতভাগ মানুষকে ভ্যাকসিনের আওতায় আনতে। বুষ্টার ডোজের ব্যাপারে ভয়ের কোন কারণ নেই বলে জানিয়ে তিনি ১৮ বছরের উর্ধ্বের সকলকে তা গ্রহনেরও আহবান জানান। পাশাপাশি সরকারি নির্দেশনা পেলে দক্ষিণাঞ্চলেও ৫ বছরের উর্ধ্বের সব শিশুকে করোনা ভ্যাাকসিন প্রয়োগের প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT