এক’শ কোটি টাকার নেহালগঞ্জ সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হবে আগামী জুনে এক’শ কোটি টাকার নেহালগঞ্জ সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হবে আগামী জুনে - ajkerparibartan.com
এক’শ কোটি টাকার নেহালগঞ্জ সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হবে আগামী জুনে

3:37 pm , August 1, 2022

বিশেষ প্রতিবেদক ॥ বরিশালÑবাউফল-কালাইয়া-দশমিনা হয়ে পটুয়াখালীর গলাচিপা পর্যন্ত সড়কের রাঙামাটি নদীর ওপর প্রায় এক’শ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মানাধীন নেহালগঞ্জ সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হবে আগামী জুনে।  দেশীয় তহবিলে ২ হাজার ৫৪০ ফুট দীর্ঘ  এই সেতুর কাজ বাস্তবায়ন করছে সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর। সেতুটির  ১ হাজার ফুট সংযোগ সড়কের মাটির কাজ ছাড়াও নদীর মধ্যবর্তী অংশে সেতুর স্প্যানের দুই পাশের প্রি-স্ট্রেসড কংক্রিট গার্ডার‘র নির্মান কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। নকশা সংশোধন করে মধ্যবর্তী অংশে স্টীল টাইপ স্ট্রাকচারের জন্য দরপত্র আহবান করেছে সড়ক ও জনপথ বরিশাল সার্কেল। সেতুটির ১৩টি স্প্যানের ১২টি পিয়ার ছাড়াও দুটি এবাটমেন্ট‘র নির্মান কাজ প্রায় শেষ পর্যায় হলেও নদীর মধ্যবর্তী অংশের উচ্চতা বৃদ্ধির কারণে নকশা সংশোধন করে ইস্পাতের অবকাঠমো নির্মান করতে হচ্ছে। এই সেতুর নির্মান কাজ শুরুর আগে বিআইব্লিউটিএ নকশায় অনাপত্তি দেয়ার পরেও নির্মাকাজের মাঝামাঝি সময় আপত্তির মুখে গত কয়েক বছর ধরে কাজ বন্ধ থাকে।  পরে দুটি দপ্তরের মধ্যে চিঠি চালাচালি ও একাধিক বৈঠকের পর সমঝোতার আলোকে সম্প্রতি সেতুর মধ্যবর্তী স্প্যানটি মূল নকশার চেয়েও যতটা সম্ভব উঁচু করে নির্মানের সিদ্ধান্ত হয়েছে। একই পরিস্থিতি তৈরী হয়েছে গোমা সেতুটির ক্ষেত্রেও। সেখানেও দীর্ঘ সময় পর মধ্যবর্তী স্প্যানটি অপক্ষোকৃত উচ্চতায় স্টীল স্ট্রাকচারে নির্মানের সিদ্ধান্তের পরে নকশা চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। উভয় সেতুর ক্ষেতেই নির্মান খরচ বেড়েছে। বিআইডব্লিউটিএ’র সাথে সমঝোতার আলোকে নেহালগঞ্জ সেতুটির মধ্যবর্তী এক’শ ফুটের স্প্যানটিকে ইস্পাতের অবকাঠামোতে নির্মান করতে গিয়ে নকশার পরিবর্তন ও সংশোধন করা হয়েছে। ৩৬ ফুট প্রশস্ত এ সেতুটিতে যানবাহন চলাচলের জন্য মূল অংশটি ২৪ ফুট বলে জানিয়েছেন বরিশাল সড়ক সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মিন্টু কুমার দেবনাথ। সম্পূর্ণ এক’শ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মানাধীন এ সেতুটি আগামী বছরের জুনের মধ্যে চালু হলে বরিশালের সাথে পটুয়াখালীর বাউফল হয়ে গলাচিপা পর্যন্ত সড়ক যোগাযোগ অনেকটাই সহজতর হবে। চলতি মাসের মধ্যে মধ্যবর্তী স্টীল স্ট্্রাকচারের দরপত্র গ্রহণের পরে আগামী মাস দুয়েকের মধ্যে নির্মান প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি হলে পরবর্তী এক বছরের মধ্যে নির্মান কাজ শেষে সেতুটি যান চলাচলের জন্য খুলে দেয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানা গেছে।

এই বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন    
সম্পাদক ও প্রকাশক: কাজী মিরাজ মাহমুদ
 
বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়ঃ কুশলা হাউজ, ১৩৮ বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়ক,
সদর রোড (শহীদ মিনারের বিপরীতে), বরিশাল-৮২০০।
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Developed by NEXTZEN-IT